| |

জামালপুরে পাথর্শী ইউপি নির্বাচনের স্থগিতাদেশ ॥ হামলা, ভাংচুর

আপডেটঃ 10:52 pm | April 05, 2017

Ad

মোঃ রিয়াজুর রহমান লাভলু ॥ জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার পাথর্শী ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন স্থগিতাদেশের খবর পেয়ে ইউপি চেয়ারম্যান মেম্বারের বাড়িতে হামলা, ভাংচুর চালিয়েছে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী। ঘটনাটি ঘটেছে গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায়।
জানা গেছে, উপজেলার পাথর্শী ইউনিয়ন পরিষদের বিগত ১৪ বৎসর যাবৎ নির্বাচন বন্ধ থাকার পর অবশেষে ৮ মার্চ নিবার্চনের তফসিল ঘোষনা করা হয়। কিন্তু মঙ্গলবার সন্ধ্যায় হাইকোর্ট থেকে পাথর্শী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন তিন মাসের জন্য স্থগিতাদেশের খবর হয়। এ খবর সর্বত্রই ছড়িয়ে পড়লে এলাকার উত্তেজিত হাজার জনতা ঐক্যবদ্ধ হয়ে চেয়ারম্যান, মেম্বারদের বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাঙ্গচুর চালানো হয়।
হামলায় ইউপি চেয়ারম্যান হাসমত আলী এবং মহিলা সদস্য দেলোয়ারা বেগম জনরোষ থেকে পালিয়ে রক্ষা পেলেও মেম্বার একরামুলকে কাছে পেয়ে উত্তেজিত জনতা বেধড়ক গণধোলাই দিয়ে মারাত্বকভাবে আহত করে। আহত ইউপি সদস্য একরামুলকে দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে চেয়ারম্যান হাসমত আলী এবং মহিলা সদস্য দেলোয়ারা বেগম জনরোষের ভয়ে পলাতক রয়েছে বলে এলাকাবাসিরা জানিয়েছে।
ইসলামপুর উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্র জানায়, পার্থশী ইউনিয়নে গত ২০০৩ সালের ৫ মার্চ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। কিন্তু জনশ্রুতি রয়েছে, পার্থশী ইউপি চেয়ারম্যান হাসমত আলী খান বিগত দিনে ব্যক্তির স্বার্থ চরিতার্থ করার জন্য তিনি বিগত দিনে যমুনা নদী ভাঙন, সীমানা জটিলতার অজুহাতে নামে-বেনামে মামলা করে হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা জারি করে বিগত ১৪ বছর যাবত বিশাল জনগোষ্ঠির গণতান্ত্রিক মৌলিক অধিকার বঞ্চিত করে ভোট প্রয়োগ ক্ষমতা হরণ করে তিনি এবং তার পরিষদবর্গের স্বার্থ হাসিল করে আসছে বলে অভিযোগ রয়েছে এলাকাবাসির। এলাকাবাসির অভিযোগ ২০১২ সালের পর বর্তমান সরকার ইসলামপুর যমুনা নদীতে প্রায় সাড়ে ৪০০ কোটি টাকার বালির বস্তা ড্রাম্পিং করে কংক্রিট ব্লক দিয়ে তীর সংরক্ষণ করায় গত তিন বছর যাবত নদী ভাঙ্গন নেই।
এদিকে চলতি বছরের ৮ মার্চ নির্বাচন কমিশনের তফসিল ঘোষণার পর থেকে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দিপনার মধ্য দিয়ে পার্থশী ইউনিয়নে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দিপনার মধ্য দিয়ে সর্বত্রই নির্বাচনী আমেজ ছড়িয়ে পড়ে। আগামী ১৬ এপ্রিল নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। ক্ষিপ্ত এলাকাবাসির দাবী চেয়ারম্যান হাসমত আলী খানের পরোক্ষ ও প্রত্যক্ষ মদদে যমুনা নদী ভাঙন, সীমানা জটিলতার অজুহাতে মহিলা ইউপির সদস্য দেলোয়ারা বেগমকে বাদী করে হাইকোর্টে একটি রিট দায়ের করেন। হাইকোটের বিজ্ঞ বিচারক তিন মাসের জন্য নির্বাচন স্থগিত আদেশ দেন। অথচ নির্বাচন স্থগিতাদেশের ফলে চেয়ারম্যান পদে মোট তিনজন, সংরক্ষিত মহিলা ইউপি সদস্য পদে সাতজন, সাধারণ ইউপি সদস্য পদে মোট ৪৮ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দিতা করার জন্য ব্যয় বহন করে সকল প্রকার প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছেন। এই মুহুর্তে নির্বাচন বন্ধ করায় এলাকার সাধারণ ভোটার গণ ব্যাপক ক্ষুব্ধ।
এ ব্যাপারে ইসলামপুর থানার ওসি (তদন্ত) সাদিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি শান্ত করার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। এ বিষয়ে জানতে চেয়ারম্যান হাসমত আলীর মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তা বন্ধ পাওয়া যায়।
এ ব্যাপারে স্থানীয় সংসদ সদস্য ফরিদুল হক খান দুলাল জানান, পাথর্শী ইউপি নির্বাচন বন্ধ থাকায় সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ড ব্যাহত হচ্ছে। পাশাপাশি এলাকাবাসিরা ও দিন দিন ক্ষিপ্ত হয়ে উঠছেন। তাই দ্রুত নির্বাচন সম্পন্ন না হলে পাথর্শীর প্রায় দেড় কোটি টাকার সরকারি উন্নয়ন প্রকল্প বাতিলের আশংকা দেখা দিবে বলে তিনি জানান।

ব্রেকিং নিউজঃ