| |

নান্দাইলে জিনের ভয় দেখিয়ে স্কুল ছাত্রকে নির্যাতন

আপডেটঃ 2:24 pm | April 14, 2017

Ad

শামছুজ্জামান বাবুল, নান্দাইল প্রতিনিধিঃ ময়মনসিংহের নান্দাইলে কবিরাজির নামে এক স্কুল ছাত্রকে নির্মম নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। মুমুর্ষু অবস্থায় শিশুটিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল পর্যন্ত থানায় কোনো মামলা হয়নি।

উপজেলার বেতাগৈর ইউনিয়নের চরকমরভাঙ্গা গ্রামের কলা বিক্রেতা  আফাজ উদ্দিনের পুত্র আবু সালিম স্থানীয় একটি কিন্ডার গার্টেন স্কুলে ১ম শ্রেণিতে পড়তো।

জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার আবু সালিমের জ্বর হলে প্রতিবেশি নবী হোসেনের স্ত্রী আম্বিয়া খাতুন (৪৫) ও তার মেয়ে স্মৃতি আক্তার (১৪) জ্বিন তাড়ানোর কথা বলে শিশুর ওপর নির্যাতন শুরু করে। প্রতিদিন রাতে শিশুটির ঘরে গিয়ে তাকে চেয়ারের সাথে শিকল দিয়ে বেঁধে বাঁশের কঞ্চি ও ব্লেড দিয়ে সমস্ত শরীরে নির্যাতন চালায়। টানা কয়েক দিন ধরে আম্বিয়া খাতুন ও তার মেয়ে স্মৃতি আক্তার শিশুটির ওপর নির্যাতন চালায়।

জ্বিনের ভয় দেখিয়ে এবং ঘরের মাটির নিচে গুপ্ত ধনও রয়েছে বলে কৌশলে চালানো হয় নির্যাতন। বাশের কঞ্চি দিয়ে আঘাত, ব্লেড দিয়ে ক্ষত বিক্ষত ও কাঁচি গরম করে ছ্যাকা দেওয়া হয় শিশুটির শরীরে।

স্থানীয়রা জানায়, শিশুটির মুখে কাপড় গুজে বাঁশের কঞ্চি দিয়ে নির্যাতন করা হয়। ব্লেড দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম করা এবং ছ্যাকা দেওয়া হয়। নির্যাতন সইতে না পেরে জ্ঞান হারিয়ে অবস্থা খারাপ হয়ে গেছে গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এনে ভর্তি করা হয়।

হাসপাতালে গিয়ে দেখা যায় শিশুটি যন্ত্রনায় ছটছট করছে। শরীর জুড়ে ব্লেডের আছর রয়েছে। শরীরের বিভিন্ন স্থানে ফোলা জখমের কালো দাগ। ঘটনার পর থেকে এলাকা ছেড়ে পালিয়েছে নির্যাতন কারীরা।

নান্দাইল মডেল থানার ওসি মো. আতাউর রহমান জানান, লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।##

ব্রেকিং নিউজঃ