| |

মান্দি দম্পত্তিকে গ্রাম্য শালিসে মাথা ন্যাড়া ও জুতার মালা পড়ানোর ঘটনায় ফুলবাড়ীয়ায় সেই মাতব্বরদের বিরুদ্ধে মামলা

আপডেটঃ 1:13 pm | April 17, 2017

Ad

ফুলবাড়ীয়া প্রতিনিধি ॥ ফুলবাড়ীয়া উপজেলা রাঙ্গামাটিয়া ইউনিয়নের হাতিলেইট বিলপাড়া গ্রামে হিন্দু সম্প্রদায়ের মান্দি (মান্দাই) দম্পত্তিকে গ্রাম্য শালিসে প্রকাশ্যে মাথা ন্যাড়া, জুতার মালা নির্যাতন ও জরিমানা করার ঘটনায় রবিবার সন্ধ্যায় ফুলবাড়ীয়া থানায় ১২ জন মাতব্বরের নাম উল্লেখ করে ১৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। মামলার বাদী হয়েছেন নির্যাতিত মহিলা লক্ষী রানী কোচ। এ ঘটনায় পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি।

মামলা না করার জন্য নির্যাতিত দম্পত্তিকে নানা ভাবে হুমকি দেয়ার ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। মামলা করার পর থেকে নির্যাতিত পরিবারটি ব্যাপক আতংকের মধ্যে রয়েছে। কোচ দম্পতির সাথে পাশের এলাকার এক মুসলিমের সাথে সামাজিক সম্পর্ক থাকার কারনে গ্রাম শালিসে দেড়শ মানুষের উপস্থিতিতে স্বামী কয়েশ চন্দ্র কোচ ও স্ত্রী লক্ষী রানী কোচকে মাথা ন্যাড়া করে মারপিট করে জুতার মালা পরিয়ে রাখা হয়।

এক পর্যায়ে তাদেরকে গোবর খাওয়ানো জন্য নিয়ে আসে। ৫ গ্রামের মানুষদের দাওয়াত করে খাওয়ানোর জন্য ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। একঘরে করে রাখার কারনে দুই শিশু সন্তানসহ গৃহবন্ধি হয়ে আছে পরিবারটি।  জরিমানার টাকা দিতে না পরলে কোচ দম্পত্তিকে বাড়ি ছাড়া করবে মাতাব্বরা এমন হুমকি দেয়। অসুস্থ্য নির্যাতিত দম্পত্তিকে চিকিৎসার জন্য স্থানিয় ইউপি চেয়ারম্যান সালিনা চৌধুরী সুষমা  আর্থিক সাহায্য করেছেন।

তিনি বলেন, ঘটনাটি চরম মানবধিকার লংঘন হয়েছে। অপরাধীদের  উপযুক্ত শাস্তি নিশ্চিত করে প্রশাসনকে সর্বাত্মক সহযোগীতা করা হবে। শনিবার রাতে ফুলবাড়ীয়া থানার অফিসার ইনচার্জ রিফাত খান রাজিব ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে নিযার্তিত পরিবারকে মামলা করতে থানায় আসতে বলেন। রবিবার বিকেলে কোচ দম্পত্তি কয়েশ  চন্দ্র ও লক্ষী রানী ফুলবাড়ীয়া থানায় আসেন।

রশিদ চন্দ্র কোচকে প্রধান করে ১২ জন এজাহার নামীয় ও ৪ জনকে অজ্ঞাতনামা করে লক্ষী রানী বাদী হয়ে মামলা করেছেন। নির্যাতিত লক্ষী রানী কোচ বলেন, মিথ্যা ঘটনায় আমাদের মতো নির্যাতন যাতে সমাজে আর কেউ না হয়।

সমাজের কাউকে মুখ দেখাতে পারছিনা, আমার শিশু সন্তানদের কান্না ওদের মন গলাতে পারেনি। আমাকে ও আমার স্বামীকে যারা প্রকাশ্যে নির্যাতনের হুকুম দিয়েছে এবং নির্যাতন করেছে তাদের দ্রুত গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি, যাতে করে ওদের শাস্তি দেখে সমাজে এরকম ঘটনা আর না ঘটে। ফুলবাড়ীয়া থানা অফিসার ইনচার্জ রিফাত খান রাজিব বলেন, কোচ দম্পত্তি নির্যাতনকারী মাতাব্বরদের গ্রেফতারের অভিযান চলছে।

উল্লেখ্য, গত বুধবার দিনগত রাতে পাশ্বতবর্তী পাড়ার মুসলমান ইবির আলীর সাথে সামাজিক সম্পর্ক থাকার কারনে মান্দি সম্প্রদায়ের মাতব্বররা মারপিট করে মাথা ন্যাড়া করে দেয় ঐ দম্পত্তির।

ব্রেকিং নিউজঃ