| |

নেত্রকোনায় পৃথক ঘটনায় দুই কৃষক খুন

আপডেটঃ 9:34 pm | April 17, 2017

Ad

শাহজাদা আকন্দ, নেত্রকোনা প্রতিনিধি ঃ নেত্রকোনা জেলার পুর্বধলা ও মদন উপজেলায় গত রবিবার রাতে পৃথক পৃথক ঘটনায় দুইজন কৃষক খুন হয়েছেন।
এলাকাবাসী ও থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, পুর্বধলা উপজেলার নারান্দিয়া ইউনিয়নের হবিবপুর গ্রামে জমির সীমানা বিরোধকে কেন্দ্র করে প্রতিবেশীর পিড়ির আঘাতে কৃষক মোক্তার উদ্দিন (৫০) এবং মদন উপজেলার গোবিন্দশ্রী ইউনিয়নের পশ্চিমপাড়া গ্রামে বাড়ির পিছনে ধান মাড়াই খলায় পাহাড়া দিতে গিয়ে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে পতিপক্ষের  ধারালো এস্ত্রের আঘাতে কৃষক রানা বিশ্বাস (৫৫) নিহত হয়েছেন। পুলিশ নিহতদের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাতপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।
পূর্বধলা থানার অফিসার ইনচার্জ অভিরঞ্জন দেব জানান, উপজেলার হবিবপুর গ্রামের কৃষক মোক্তার উদ্দিনের জমির সীমানায় বেড়া দেয়াকে কেন্দ্র করে গত রবিবার বিকালে প্রতিবেশী মোশারফ ও জয়নালের সাথে বিরোধ দেখা দেয়। এ নিয়ে রাতে ঝগড়ার সময় বসার পিড়ি দিয়ে প্রতিপক্ষের লোকজন কৃষক মোক্তার উদ্দিনের মাথায় আঘাত করলে সে মারাত্মক জখম হয়। আশংকা জনক অবস্থায় তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে সে মারা যায়।
এদিকে মদন থানার অফিসার ইনচার্জ মাজেদুর রহমান জানান, পশ্চিমপাড়ার রানা বিশ^াস রবিবার রাতে নিজ বাড়ির পিছনে ধানের খলা পাহাড়া দিতে যায়। সকালে বাড়ি ফিরতে দেরি হওয়ায় তার স্ত্রী রুমা বিশ^াস ধানের খলায় গিয়ে দেখে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে ক্ষত-বিক্ষত স্বামীর দেহ খলায় পড়ে রয়েছে। তার ডাক-চিৎকারে আশে পাশের লোকজন ছুটে এসে রানা বিশ্বাসকে দ্রুত মদন হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
নিহতের ছেলে রুবেল বিশ^াস সাংবাদিকদের জানান, কে বা কারা আমার বাবাকে খুন করেছে তা দেখেনি। তবে আমার ধারনা, গত ক’দিন আগে আমার কাকা শম্ভু বিশাসের এক কর্মচারী তার হাঁসের খামার থেকে হাঁস চুরি করেছিল। বিষয়টি জানার পর আমার বাবা ঐ কর্মচারীকে গালিগালাজ করেছিল। ক্ষোভের বশে হয়ত ঐ কর্মচারী আমার বাবাকে হত্যা করতে পারে।
পুলিশ সুপার জয়দেব চৌধুরীর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, দুটি ঘটনারই পৃথক পৃথক মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে ।

ব্রেকিং নিউজঃ