| |

আটপাড়ায় আনোয়ারা আব্দুল আজিজ তালুকদার উচ্চ বিদ্যালয়ে অনিয়ম ও দ্বন্দ্বের কারণে শিক্ষা কার্যক্রম ব্যাহত

আপডেটঃ 5:08 pm | April 18, 2017

Ad

শাহ্জাদা আকন্দ, নেত্রকোনা প্রতিনিধি ঃ নেত্রকোনা জেলার আটপাড়া উপজেলার ইকরাটিয়া আনোয়ারা আব্দুল আজিজ তালুকদার মেমোরিয়াল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা মোঃ শামছুল হক তালুকদার বাদলের সাথে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির বর্তমান সভাপতি ও ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের দ্বন্দ্বের কারণে বিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম চরম ভাবে ব্যাহত হচ্ছে।
শ্রীরামপাশা গ্রামের মোঃ শামছুল হক তালুকদার বাদল প্রত্যন্ত এলাকায় শিক্ষা বিস্তারের লক্ষ্যে ১৯৯৬ সালে মা-বাবার নামে ইকরাটিয়া আনোয়ারা আব্দুল আজিজ তালুকদার মেমোরিয়াল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন। প্রতিষ্ঠার পর থেকে বিদ্যালয়ে লেখাপড়া ভাল ভাবেই চলছিল। বিদ্যালয়টি নিন্ম মাধ্যমিক স্তরে এমপিওভূক্ত হওয়ার পরও এর প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ আলী ৮ম গ্রেডে বেতন ভাতাদি উত্তোলনের পরিবর্তে ৭ম গ্রেডে বেতন ভাতাদি উত্তোলন এবং চাকুরী কালীন জন্ম তারিখ পরিবর্তন করে চাকুরী বাড়িয়ে বেতন ভাতাদি উত্তোলন করে আসছিলেন। বিষয়টি জানার পর বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা জেলা শিক্ষা কর্মকর্তার বরাবরে লিখিত অভিযোগ করলে জেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ ওয়ালী উল্লাহ ২২ জানুয়ারী এক পত্র মারফত প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ আলীকে ৫ ফেব্রুয়ারী মধ্যে অতিরিক্ত উত্তোলিত সরকারী অর্থ চালানের মাধ্যমে সরকারী কোষাগারে জমা দানের নির্দেশ প্রদান করেন। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অতিরিক্ত উত্তোলিত টাকা সরকারী কোষাগারে জমা না দেয়ায় বিষয়টি জানিয়ে জেলা প্রশাসক বরাবরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে জেলা প্রশাসক আটপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে বিষয়টি সুষ্ঠু তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ প্রদান করেন। তদন্ত কার্য সম্পন্ন হওয়ার আগেই জেলা শিক্ষা অফিসার স্কুলে গিয়ে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষককে অবসর গ্রহনের পরামর্শ দেন। জেলা শিক্ষা অফিসার প্রধান শিক্ষকের পদটি শূণ্য ঘোষনা করে মোটা অংকের অর্থের লেনদেনের মাধ্যমে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি কায়সার ইমরান বাবুল এবং ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক খালেকুজ্জামানকে নতুন করে প্রধান শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রদানের আদেশ দেন। তারই প্রেক্ষিতে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ২ জানুয়ারী দৈনিক মানবজমিনে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। বিষয়টি জেলা প্রশাসককে অবহিত করা হলে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের শিক্ষা বিভাগের সহকারী কমিশনার রাবেয়া আক্তার বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দানের বিষয়টি স্থগিতের নির্দেশ প্রদান করেন।
বিদ্যালয়ের ছাত্র, শিক্ষক, অভিভাবক ও এলাকাবাসী অবিলম্বে সৃষ্ট জটিলতা নিরসন পূর্বক বিদ্যালয়ে শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ ফিরিয়ে আনার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন।

ব্রেকিং নিউজঃ