| |

হোটেল রেস্তোরা মালিক কর্মচারীরা মনে করে গাঙ্গিনারপাড় রাস্তা তাদের বর্জ ফেলার জায়গা… অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান

আপডেটঃ 10:43 pm | April 24, 2017

Ad

ইব্রাহিম মুকুট ॥ ওয়ার্ল্ড ভিশনের সহযোগিতায় আলোকচিত্র শিল্পী সংসদ আশিস আয়োজিত বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিষয় ওরিয়েন্টেশন গতকাল আশিস কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়।

আশিস সভাপতি বি.এফ.ইউজে কেন্দ্রীয় সদস্য ও দৈনিক আজকের খবর পত্রিকার সম্পাদক বিশিষ্ট সাংবাদিক মোশাররফ হোসেন এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন ময়মনসিংহ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান, আলোচনা করেন বাকৃবি’র সাবেক ভিসি শাহ্ মো: ফারুক, সৈয়দ নজরুল কলেজের অধ্য ড. এ.কে.এম আব্দুর রফিক, প্রেসকাব সহ-সভাপতি এ জেড এম ইমাম উদ্দিন মুক্তা, সহকারী তথ্য অফিসার তাহলিমা জান্নাত, পৌরসভার প্যানেল মেয়র মো: নজরুল ইসলাম, ওয়ার্ল্ড ভিশনের বিপ্লব রিছিল প্রজেক্ট অফিসার, হোটেল রেস্তোরা মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার শরীফ আহমেদ, দি ফারমার্স ব্যাংকের ম্যানেজার সেলিমা বেগম, আশিস সহ সভাপতি সুবোধ চন্দ্র সরকার, সাহেরা বেগম প্রমুখ।

সভা পরিচালনা করেন আশিস সাধারণ সম্পাদক এ এইচ এম মোতালেব। সভায় বর্জ্য অপসারণ বিষয়ে অধ্য ড. এ.কে.এম আব্দুর রফিককে আহ্বায়ক করে খন্দকার শরীফ আহমেদ, মোশাররফ হোসেন, এ এইচ এম মোতালেবকে যুগ্ম আহ্বায়ক করে ৫১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়।

ময়মনসিংহ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান বলেন, হোটেল রেস্তোরা মালিক কর্মচারীরা মনে করে গাঙ্গিনারপাড় রাস্তা তাদের বর্জ ফেলার জায়গা। তাই তারা যত্রতত্র বর্জ ফেলে রাখে।

কলার খোসা, কলার ডগা, পিয়াজের খোসা, কাঁচামাল সহ বিভিন্ন পচনশীল পন্য ইচ্ছামত রাস্তার উপর ফেলে রেখে পরিবেশ বিনষ্ট করছে। অবস্থা দেখে মনে হয় এখানে যেন কারো কোন দায় দায়িত্ব নেই। ময়মনসিংহ পৌরসভার মেয়র অত্যন্ত সচেতন।

তিনি সর্বাত্বক ভাবে শহরকে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখার চেষ্ঠা চালিয়ে যাচ্ছেন। তারপরও আমরা যদি যারযার অবস্থান থেকে দায়িত্ব পালন করি তবে শহর আরো সুন্দর হবে।

তিনি আরো বলেন, ময়মনসিংহ পৌর এলাকার পানি নিস্কাসনের জন্য প্রতিবছর ড্রেন নির্মান করা হচ্ছে।ড্রেন নির্মানের ৬মাস পর আবার ভেঙ্গে ফেলা হয় এতে সরকারের ল ল টাকা অপচয় হচ্ছে, এনিয়ে কোন জবাবদিহিতা নেই।

ব্রেকিং নিউজঃ