| |

কেন্দুয়ায় যুবকের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনে তরুণীর বিষপানে আত্ম হননের ব্যর্থ চেষ্টা

আপডেটঃ 11:56 pm | May 07, 2017

Ad

শাহজাদা আকন্দ, নেত্রকোনা প্রতিনিধিঃ  এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও জনপ্রতিনিধিদের কাছে বার বার ধর্ণা দেয়ার পরও ধর্ষণের ন্যায় বিচার না পেয়ে বিষপানে আত্মহনন করছে চেয়েছিলেন এক তরুণী।

ঘটনাটি ঘটেছে নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া উপজেলার আশুজিয়া ইউনিয়নের ভগবতীপুর গ্রামের বীরগঞ্জ বাজার এলাকায়। এ ঘটনার পর স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল রহস্যজনক কারণে বিষয়টিকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে ওঠে পড়ে লেগেছে।
সরজমিনে ঘটনাস্থলে গেলে ভিকটিমের পরিবার ও এলাকাবাসীর অভিযোগ, হাসুয়ারী গ্রামের মৃত ইনছান উদ্দিন’র পুত্র এনামূল হক এনাম বীরগঞ্জ বাজার এলাকার উক্ত তরুনীকে প্রায়শই উত্যক্ত করতো।

গত ২০ এপ্রিল রাতে তরুণীর মা প্রকৃতির ডাকে ঘর থেকে বের হলে পূর্ব থেকে উৎপেতে থাকা এনাম ঘরে প্রবেশ করে দরজা লাগিয়ে তরুনীকে ধর্ষণ করে।

তরুণীর আর্ত-চিৎকারে মা বাহির থেকে এসে ঘরের দরজা খোলার জন্য ধাক্কাধাক্কি করতে থাকে। তার ডাক চিৎকারের ভয় পেয়ে এ সময় এনাম লুঙ্গি, পায়ের সেন্ডেল ও মোবাইল ফেলে রেখে দৌঁড়ে পালিয়ে যায়। ধর্ষিতার পরিবার বিষয়টি গ্রাম্য মাতব্বরগন ও জন প্রতিনিধিদের জানিয়ে ন্যায় বিচার প্রার্থনা করে।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম ও ইউপি সদস্য আজিজুল ইসলামসহ গণ্যমান্য ব্যাক্তিগন কয়েক দফায় গ্রাম্য শালিস দরবারে বসলেও ধর্ষকের পরিবারের অসহযোগিতার কারণে ধর্ষিতার পরিবার ন্যায় বিচার পাওয়া থেকে বঞ্চিত হয়।

পরে একই ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আবু তাহের তরুণীর ভগ্নীপতি শাহ্জাহান মিয়াকে ডেকে নিয়ে যুবকের পরিবারের কাছ থেকে নেয়া ৬০ হাজার টাকা দিয়ে ঘটনাটিকে ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা চালায়।

কিন্তু তরুণী এতে বেকে বসায় প্রভাবশালী মহলের সবচেষ্টা ব্যর্থ হয়ে যায়। সমাজের কাছে ন্যায় বিচার না পেয়ে ধর্ষিত তরুণী লজ্জা অপমান সইতে না পেরে অবশেষে গত ৫ মে বিষপানে আত্ম হননের পথ বেঁচে নেন।

স্থানীয় লোকজন তাকে দ্রুত উদ্ধার করে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। গণমাধ্যম কর্মীরা বিষয়টি জানতে পেরে হাসপাতালে ছুটে গেলে তরুণীর ভগ্নীপতি শাহ্জাহান ধর্ষণের ঘটনা অস্বীকার করে বলেন, এসএসসি পরীক্ষার ফলাফল ভালো না হওয়ায় সে বিষপান করে আত্মহত্যা করতে চেয়েছিল।

সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের মুখে এক পর্যায়ে হাসপাতালে তরুণীকে একা ফেলে রেখে কেটে পড়ে শাহ্জাহান। এলাকাবাসী ও ভিকটিমের পরিবার ধর্ষক এনাম ও তার ঘটনা ধামাচাপা দেয়া চেষ্টাকারীদের যেন দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়া হয়।
অপরদিকে প্রভাবশালী মহল বলছে, তরুণীটি এনামের স্ত্রী হতে তার বিরুদ্ধে চক্রান্ত করছে।

ব্রেকিং নিউজঃ