| |

হালুয়াঘাটে বিদেশ নেওয়ার নামে প্রায় ৪ লক্ষ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

আপডেটঃ 10:25 pm | May 14, 2017

Ad

আব্দুল হক লিটন হালুয়াঘাট:  ময়মনসিংহের হালুয়াঘাটে বিদেশে নেওয়ার নামে প্রতারনায় স্বীকার হয়ে প্রায় ৪ লক্ষ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ ভুক্তভুগি ও স্থানীয়দের। জানা যায়, উপজেলার গাজির ভিটা ইউনিয়নের দক্ষিন নলকুড়া গ্রামের মৃত ওয়াহেদ আলীর পুত্র মোঃ আবু রায়হান সরকারী খরচে মালশিয়া যাওয়ার জন্য লটারীর মাধ্যমে একটি ভিসা পান।

মালশিয়া যাওয়ার জন্য ৪০ হাজার টাকা সংগ্রহের সংবাদ পেয়ে মোজাখালী গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে নাজমুল হোসেন আবু রায়হানের বাড়িতে উপস্থিত হয়। লটারীর ভিসা দিয়ে মালশিয়া না গিয়ে কাতারে যাওয়ার জন্য আবুরায়হানকে  পরামর্শ দেন নাজমুল হোসেন।

বিভিন্ন লোভ-লালসা দেখিয়ে নাজমুল হোসেন কাতারে যাওয়ার জন্য প্রথম কিস্তি হিসেবে হাতিয়ে নেয় ৪০ হাজার টাকা। পরে আনুসাঙ্গীক কাগজ পত্র সংগ্রহের জন্য  আরো ৩ লক্ষ ৭৩ হাজার টাকা এলাকার লোকজনের সামনে হাতিয়ে নেয়।

ভিসার মেয়াদ থাকা অবস্থায় সমস্ত কাগজ পত্র বুঝিয়া পাইয়া অঙ্গীকার নামায় স্বাক্ষর করেন আবু রায়হান। কিন্তু অক্ষর জ্ঞানহীন আবু রায়হান জানতোনা এই সব কাগজ পত্র আসল না নকল।

১৪ জানুয়ারী  কাতারের উদ্যেশ্যে রওয়ানা হলেও সঙ্গে থাকা কাগজ পত্র সঠিক না থাকায় ২৮ মার্চ দেশে ফিরতে হলো আবু রায়হানের। দেশে ফিরে টাকা উদ্ধারে এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গের নিকট বিচার প্রার্থী হন।

এ সময় তারা এই ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে আমাদের সময়কে জানান, এই ক্ষতিগ্রস্ত আবুরায়হানের টাকা উদ্ধারের জন্য আমাদের জোর সুপারিশ থাকলো। গতকাল রবিবার সকালে সরেজমিনে গিয়ে এসব তথ্য পাওয়া যায়।
এ বিষয়ে নাজমুল হোসেনকে প্রশ্ন করলে তিনি উক্ত ঘটনাকে সম্পুর্ন মিথ্যা বানোয়াট বলে দাবী করেন। সে আরও বলেন, আইনী ভাবে যদি প্রমানিত হয় যে আমার কাগজ পত্র জাল তাহলে আমি আইনী ভাবে জবাব দিতে প্রস্তুত।

ব্রেকিং নিউজঃ