| |

শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে বীর মুক্তিযোদ্ধা চিকিৎসা অবহেলায় মৃত্যুর পথযাত্রী

আপডেটঃ 12:15 am | May 20, 2017

Ad

শেরপুর ঝিনাইগাতী প্রতিনিধি:  ঝিনাইগাতী উপজেলার গান্ধিগাঁও গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক সেনা সদস্য মিজানুর রহমান চিকিৎসা অবহেলায় মৃত্যুর পথযাত্রী। অবহেলায় তাঁর চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হওয়ায় তার এমন পরিস্থিতি হয়েছে বলে তিনি অভিযোগ করেন। বীর মুক্তিযোদ্ধা গান্ধিগাঁও গ্রামের এম.এ জব্বার মন্ডলের ছেলে। তার মৃক্তিযোদ্ধের সনদ নং-১১৯৭২৮, গেজেট নং-৪৮৬৭, তার সনদের স্মারক নং ময়মনসিংহ ০৩/১২/২০০২/৩৪৫১। এছাড়াও তিনি একজন অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য। জানা যায়, গত ১৫ মে তার নিজ ঘরে কাজ করার সময় মাটির দেয়াল ভেঙ্গে চাপা পরে মিজানুর রহমান গুরুত্বর ভাবে আহত হন। প্রথমে তাকে ঝিনাইগাতী সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নেওয়া হয় রোগীর অবস্থা গুরুতর হওয়ায় ১২ ঘন্টা পর শেরপুর সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। শেরপুর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য অপেক্ষা করতে থাকে এই গুরুত্বর আহত মুক্তিযোদ্ধা মিজানুর রহমান। দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর ডা. মিলে ১২ ঘন্টা পর। ডা. রোগী দেখে জানায়, তার চিকিৎসা অত্র হাসপাতালে সম্ভব না। তাই রোগীকে শেরপুর হাসপাতাল থেকে ময়মনসিংহ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানেও তার চিকিৎসা নেই বলে জানায় এবং তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা রেফার্ড করে। বর্তমানে মুক্তিযোদ্ধা মিজানুর রহমান মুমূর্ষ অবস্থায় আগারগাঁও নিউরো সাইন্স হাসপাতালে ভর্তিকৃত রয়েছে। সেখানে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন। সূত্রমতে জানা যায়, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক সেনা সদস্য মিজানুর রহমানকে আরও উন্নত চিকিৎসার জন্য দেশে কিংবা দেশের বাহিরে ভাল চিকিৎসার করানো প্রয়োজন। উল্লেখ্য, মিজানুর রহমানের পরিবারের লোকজনের অভিযোগ চিকিৎসার শুরু থেকেই সরকারী চিকিৎসা সেবা কেন্দ্রগুলি থেকে সঠিক চিকিৎসা পায়নি ও ডাক্তারের সঙ্গে সাক্ষাত মিলেছে দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর। যে কারণে তার দ্রুত পরিস্থিতি দিন দিন অবনতির দিকে গেছে। তাই বর্তমানে উন্নত চিকিৎসার জন্য যে পরিমাণের অর্থের প্রয়োজন এবং যে উন্নত সেবা কেন্দ্রে তার চিকিৎসা নেওয়া দরকার সেই সামর্থ নেই। তাই  মুক্তিযোদ্ধা মিজানুর রহমানের উন্নত চিকিৎসার জন্য  করাতে পারছেন না। প্রকাশ থাকে যে, মিজানুর রহমান জানান, তরুন বয়সে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দেশের স্বাধীনতার জন্য যুদ্ধ করেছি। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর সেনা বাহিনীতে যোগদান করে দেশের জন্য কাজ করেছি। তাই আমার এই মুমূর্ষ অবস্থায় সঠিক চিকিৎসা ব্যবস্থার জন্য মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

ব্রেকিং নিউজঃ