| |

ভারতের বিপক্ষে যেসব পরিবর্তন নিয়ে মাঠে নামতে যাচ্ছে টাইগার বাহিনী

আপডেটঃ 12:54 pm | May 29, 2017

Ad

আগামী ১জুন ইংল্যান্ডে শুরু হতে যাচ্ছে আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির অষ্টম আসর।  আর চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির প্রস্তুতি হিসেবে নিজেদের প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে গত ২৭মে পাকিস্তানের মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ দল চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে অবশ্য পাকিস্তানের বিপক্ষে ২ উইকেটে হেরেছে।  টাইগারদের এই হারার ব্যবধানটা স্বাভাবিক হলেও যখন শুনবেন প্রতিপক্ষ নবম উইকেট জুটিতে ৭ ওভারে ৯৩ রান তুলে জিতেছে, তখন এই ব্যবধানটাই সবার কাছে বিস্ময়করমনে হবে।

বাংলাদেশ দলের প্রধাণ কোচ চান্ডিকা হাথুরুসিংহে পাকিস্তানের বিপক্ষে টাইগারদের এই হারটা বিশ্বাসই করতে পারছিলেন না।  বার্মিংহাম ছেড়ে বাসে লন্ডনে রওনা হওয়ার আগে তাৎক্ষণিক ভাবে তিনিও বললেন, এমন কিছু ভাবতে পারেননি তিনি।

হাথুরুসিংহের ভাষ্যমতে, “এমন কিছু আগে কখনও দেখিনি।  আমার জন্যও এটি নতুন অভিজ্ঞতা। ” এই দুঃস্বপ্নের মতো হারের পর ড্রেসিং রুম তো দূরে থাক হোটেল রুমে গিয়েও এই প্রসঙ্গে কারোর সাথে কথা বলেননি টাইগারদের কোচ।

তিনিও হয়তো এতোটাই চমকে গেছেন যে বলার ভাষা হারিয়ে ফেলেছেন।  রোববার লন্ডনে ফিরেই হোটেলে লম্বা টিম মিটিংয়ে বসবে টিম বাংলাদেশ।  দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে কিভাবে ভুলগুলো শুধরে ফেরা যায় তা নিয়েই হয়তো কথা হবে সবার সাথে।

তবে, চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির আগে বাংলাদেশ দলের সব থেকে বড় আলোচনার বিষয় হয়ে ওঠেছে সাম্প্রতিক সময়ে টাইগারদের ফিল্ডিং।  তাই বাংলাদেশ দলের টিম মিটিংয়ের একটা বড় অংশ জুড়ে থাকবে ফিল্ডিং নিয়ে আলোচনা এটাই স্বাভাবিক।  সদ্য শেষ হওয়া স্বাগতিক আয়ারল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ত্রিদেশীয় সিরিজে মাশরাফি বাহিনীর ফিল্ডিং ছিলো জঘন্য।

সিরিজের শেষ ম্যাচে ৫ উইকেটের জয় পাওয়া ম্যাচেও ৪ টি ক্যাচ ছেড়েছে টাইগার ফিল্ডাররা।  আর শনিবার প্রস্তুতি ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে হারের মূল কারণও তো এক গাদা ক্যাচ মিস ও বাজে ফিল্ডিং।  মূল টুর্নামেন্ট শুরুর আগে এই জায়গায় নিজেদের ঝালাই নিশ্চিত করতে হবে বাংলাদেশের।

ব্যাটিং আর বোলিং নিয়ে খুব বেশি একটা চিন্তা নেই বাংলাদেশের।  পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে বিশ্রামে ছিলেন টাইগার পেসার মুস্তাফিজুর রহমান ও রুবেল হোসেন।  এই দুজন ফিরলে বোলিং অ্যাটাকটা অন্যরকমই হবে টাইগারদের।  আর প্রস্তুতি ম্যাচে বিশ্রামে থাকা সাব্বির রহমান ফিরলে ব্যাটিংয়েও ওলট পালট হবে।

তবে ত্রিদেশীয় সিরিজের শেষ ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ৫ উইকেটের জয়ের ম্যাচে ব্যাট হাতে ৬৫ রান করেছিলেন সাব্বির।  তাই তিনে সাব্বিরকে না খেলানোর মতো কঠিন সিদ্ধান্ত যে টিম ম্যানেজমেন্ট নেবে না তা ধরে নেয়াই যায়।

তবে, প্রস্তুতি ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে সুযোগ পেয়েই ঝড়ো গতিতে ৬১ রান করে তিন নম্বরে খেলার দাবিটা জানিয়ে রাখলেন ইমরুল কায়েসও।  আয়ারল্যান্ডেও ত্রিদেশীয় সিরিজের আগে প্রস্তুতি ম্যাচে ৭৮ বলে ৯২ করে নিয়েছিলেন স্বেচ্ছা অবসর।  তাই টাইগারদের টিম মিটিংয়ে আলোচনার বিষয়বস্তুতে এসবও থাকার কথা।

এদিকে, মঙ্গলবার চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির আগে নিজেদের শেষবার ঝালিয়ে নিতে মাঠে নামবে টাইগাররা।  যেখানে তাদের প্রতিপক্ষ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির বর্তমান চ্যাম্পিয়ন দল ভারত।  আগের ম্যাচে বাংলাদেশ দল তাদের মূল একাদশের তিনজন ক্রিকেটারকে বিশ্রাম দিলেও এই ম্যাচে সেরা একাদশকেই মাঠে দেখা যাবে।  কারণ একদিন পরে এই মাঠেই মূল আসরে স্বাগতিকদের বিপক্ষে লড়বে বাংলাদেশ দল।

ব্রেকিং নিউজঃ