| |

হজযাত্রী ও দর্শনার্থীদের জন্য প্রস্তুত মক্কার সুড়ঙ্গ

আপডেটঃ 2:16 pm | June 01, 2017

Ad

মক্কার সুড়ঙ্গের কাজ শেষ হয়েছে। চলাচলের জন্য সবধরনের কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে। হজযাত্রী ও দর্শনার্থীরা যেন নিরাপদ ও প্রশান্তিতে চলাচল করতে পারে সেজন্য সব ধরনের উপকরণ নিশ্চিত করেছে মক্কা পৌরসভা। মক্কা পৌরসভার উপ-সচিব খালিদ আল-হাইজ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। খবর সৌদি গেজেটের।

খালিদ আল-হাইজ বলেন, শহরের পার্শ্ববর্তী এলাকার সঙ্গে সংযোগ স্থাপনে সহায়তা করবে এই সুড়ঙ্গ। সুরঙ্গের রাস্তাগুলো চালু করা হলে যানজট সমস্যা অনেকটাই কমে যাবে বলে আশা প্রকাশ করা হয়েছে।

বিশেষ করে রমজান মাসে বিপুল সংখ্যক হজযাত্রী ও বাইরে থেকে আসা লোকজনের কারণে মক্কায় সৃষ্ট সমস্যা সুড়ঙ্গগুলো চালুর ফলে অনেকটাই কমে যাবে।

একদল প্রকৌশলী ও প্রযুক্তিবিদের সহায়তায় নিয়মিতভাবে সেগুলোর রক্ষণাবেক্ষণ করছে মক্কা পৌরসভা। আলোকসজ্জা, বিদ্যুতের ব্যবস্থা, অগ্নিকাণ্ডের সতর্ক সংকেত, বাতাস চলাচলের ব্যবস্থা ও সুড়ঙ্গের নিরাপত্তার জন্য তারা কাজ করছেন বলেও জানানো হয়েছে।

পৌরসভার অধীনে ৩০ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের ৫৮ টি সুড়ঙ্গ নির্মাণ করা হয়েছে। সুড়ঙ্গের ভেতর ৬৬ হাজার ৯৩৫ ইউনিটের বৈদ্যুতিক বাতি রয়েছে। এছাড়াও ৫৯৯টি পাখা, ৪২ টি জেনারেটর, সুড়ঙ্গ পরিচালনার জন্য ৩৯টি নিয়ন্ত্রণ কক্ষ, ৭৭টি পানির পাম্প এবং ১২ টি আইটি স্টেশন রয়েছে। এছাড়া গ্যাসের জন্য ৪১টি ডিভাইস, তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণের জন্য ৮৮টি ডিভাইস, বাতাসের গতি পরিমাপের জন্য ৩৬২টি যন্ত্র এবং ৯০ টি এয়ার কন্ডিশনিং ইউনিট রয়েছে।

tunnel-220170601140230tunnel-320170601140225

ছোট সুড়ঙ্গগুলোতে সাড়ে নয়শ সোডিয়াম লাইট ও দুই হাজার একশ ২৩ টি হালকা লাইট রয়েছে। ৬৮টি পাখা, আটটি চলমান সিঁড়ি, পাঁচটি জেনারেটর, ৩২ টি এয়ার কন্ডিশনিং ইউনিট, সুড়ঙ্গ পর্যবেক্ষণের জন্য পাঁচটি কম্পিউটার এবং স্থিরচিত্র ধারণের জন্য ২৭টি ক্যামেরা ও আনুষাঙ্গিক যন্ত্রপাতি রয়েছে।

ব্রেকিং নিউজঃ