| |

শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলা সদর বাজারে ড্র্যানেজ ব্যবস্থা ভাল না থাকায় ময়লাযুক্ত পানির দুর্গন্ধে বেহাল দশা

আপডেটঃ 9:34 pm | July 08, 2017

Ad

মোঃ আবু রায়হান, ঝিনাইগাতী ॥ শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলা সদর বাজার ও বাজারের আশ-পাশের এলাকায় ড্র্যানেজ ব্যবস্থা ভাল না থাকায় ময়লাযুক্ত পানির দূর্গন্ধ এলাকাবাসী অতিষ্ট হয়ে পড়েছে।

 

এই সমস্ত যমে থাকা পানি পঁেচ অসহনীয় দূর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। এমনকি এই সমস্ত জমা-পানি থেতে বিভিন্ন ধরনের মশার জন্ম হচ্ছে। ফলে এলাকাবাসী বিভিন্ন রোগাক্রান্ত হয়ে পড়ছে।

 

ওয়ার্লেস গেট এলাকার রাসেল জানান, তারা দীর্ঘদিন থেকে এই দূর্গন্ধময় ময়লাযুক্ত পানি জমে থাকার কারণে ঘর থেকে বেড়িয়ে সদর রাস্তায় আসতে পারে না। এবংকি রাত্রে পঁচা পানির দূর্গন্ধে বাড়িতে অবস্থান করাও কঠিন। এছাড়াও গরুহাটিতেও একই অবস্থা।

 

একদিকে বাজারের নোংরা আবর্জনার স্তুপের দূর্গন্ধ একই সাথে গরু জবাই খানার (কষাইখানা) রক্তযুক্ত পানি জমে এমন তীব্র দূর্গন্ধের সৃষ্টি হয় যে, ওই খানে লোকজন বসবাস করা দূরূহ ব্যাপার।

 

ইতিপূর্বে বিষয়টি পূর্বের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সেলিম রেজা থাকাকালিন সময়ে তিনি এই জবাই খানাটি ওই খান থেকে স্থানান্তর করে মহারশী নদীর পাড়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে।

 

উক্ত নির্বাহী কর্মকর্তা সেলিম রেজা বদলী হওয়ার পর বিষয়টি স্থগিত হয়ে যায়। আবারও সেই সমস্যা রয়ে গেল ওই এলাকার লোকজন। ঝিনাইগাতী সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোফাজ্জল হোসেন চাঁন ও ১নং ওয়ার্ডের মেম্বার আব্দুল কুদ্দুসকে অবহিত করলে সমস্যার সমাধান করবে বলে আশ্বাস প্রদান করেন।

 

কিন্তু দীর্ঘদিন অতিবাহিত হতে চলেছে সমস্যার সমাধানের কোন উদ্যোগ নেই। তাই ভোক্তভোগি এলাকাবাসীরা হতাশার মধ্যে দিনাতি পাত করছে। উল্লেখ্য যে সমস্ত এলাকায় এখন পঁচা পানি জমে থাকা দূর্গন্ধ এলাকার লোকজন ভোক্তভোগি সেই সমস্ত এলাকা হলো ঝিনাইগাতী বাজারের বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন (একচেঞ্জ) অফিস এলাকায়, গরুহাটি, ধান হাটি, উপজেলা পোস্ট অফিস, সদর বাজারসহ দক্ষিণ এলাকায়।

 

এই সমস্ত এলাকায় প্রায় ১২ মাসই বাজারের পঁচা পানি নেমে আসে। ড্যানেজ ব্যবস্থা না থাকায় পানি বের হতে পারে না। ফলে এসমস্ত পঁচা পানির দূর্গন্ধে এলাকার লোকজন চরম দূর্ভোগের মধ্যে রয়েছে।

 

প্রকাশ থাকে যে, সদর বাজারের সওজ’য়ের রাস্তার উভয় পার্শ্বের ড্যানেজ ব্যবস্থা একই পরিস্থিতি। ফলে রাস্তার দু পাশে জমে থাকা পঁচা পানির দূর্গন্ধে দোকানি ও পথচারী দূর্ভোগের স্বীকার।

 

কর্তৃপক্ষের এমন উদাসিনতার কারণে এমন বেহাল অবস্থা। অবিলম্বে এই সমস্ত রক্ত জমাট বাধা পঁচা পানি ও ময়লাযুক্ত দূর্গন্ধময় পঁচা পানি নিষ্কাশনসহ প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করে আশু সমস্যার সমাধান করবেন এমন প্রত্যাশা দূর্ভোগে থাকা এলাকাবাসীর দাবী।

 

এই সমস্ত সমস্যা নিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ.জেড.এম শরীফ হোসেন এর সাথে কথা হলে এমন বেহাল অবস্থা তিনি তদন্ত করে দেখেছেন এবং সত্যতা স্বীকার করেছেন। উক্ত সমস্যা সমাধানের উদ্যোগ নিচ্ছেন বলে তিনি জানান।

ব্রেকিং নিউজঃ