| |

দ্বিতীয় দফায় গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি অবৈধ: হাইকোর্ট

আপডেটঃ 10:28 pm | July 30, 2017

Ad

তিন মাসের ব্যবধানে চলতি বছর দ্বিতীয় দফায় বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের (বিইআরসি) গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্তকে অবৈধ ঘোষণা করে রায় দিয়েছেন হাইকোর্ট।

 

এ বিষয়ে জারি করা রুলের চূড়ান্ত শুনানি শেষে রবিবার (৩০ জুলাই) বিচারপতি জিনাত আরা ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রায় দেন।

 

গত ১ জুন থেকে দ্বিতীয় দফায় মূল্যবৃদ্ধি কার্যকর হয়েছে। তবে যে বিল নেওয়া হয়েছে তা এই নিষেধাজ্ঞার আওতার বাইরে থাকবে। ফলে আগস্ট থেকে বর্ধিত মূল্যের পরিবর্তে গ্যাসের পূর্ব নির্ধারিত কার্যকর হবে।

 

আদালতে বিইআরসির পক্ষে অ্যার্টনি জেনারেল মাহবুবে আলম এবং তিতাস গ্যাসের পক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোতাহার হোসেন সাজু শুনানি করেন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ইশরাত জাহান। অন্যদিকে রিট আবেদনকারীর পক্ষে ছিলেন আইনজীবী সুব্রত চৌধুরী ও এম সাইফুল আলম।

 

চলতি বছর ২৩ ফেব্রুয়ারি এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের পক্ষ থেকে দুই ধাপে মূল্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়। এতে ১ মার্চ থেকে প্রথম দফা এবং ১ জুন থেকে দ্বিতীয় দফায় মূল্যবৃদ্ধি কার্যকর হবে বলে উল্লেখ করা হয়।

 

মূল্যবৃদ্ধির ফলে ১ মার্চ থেকে আবাসিক খাতে দুই চুলার জন্য ৮০০ এবং এক চুলার জন্য ৭৫০ টাকা গুনতে হচ্ছে গ্রাহকদের। দ্বিতীয় ধাপে ১ জুন থেকে দুই চুলার জন্য ৯৫০ এবং এক চুলার জন্য ৯০০ টাকা টাকা মূল্য ধরা হয়।

 

গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির এই সিদ্ধান্তের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে কনজুমার এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) এর পক্ষে প্রকৌশলী মুবাশ্বির হোসেন ২৭ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্টে একটি রিট দায়ের করেন। রিট আবেদনে গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি সংক্রান্ত বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের জারি করা বিজ্ঞপ্তির কার্যকারিতা স্থগিত চাওয়া হয়।

 

সেই রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে ২৮ ফেব্রুয়ারি বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি জে বি এম হাসানের হাইকোর্ট বেঞ্চ ১ জুন থেকে দ্বিতীয় দফায় গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত ৬ মাসের জন্য স্থগিত করেন। একইসঙ্গে মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত কেন বেআইনি ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুলও জারি করেন আদালত।

 

হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত চেয়ে আবেদন করে এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন। গত ৩০ মে চেম্বার বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন হাইকোর্টে আদেশ স্থগিত করেন। গত ৫ জুন আপিল বিভাগও চেম্বার আদালতের দেওয়া স্থগিতাদেশ স্থগিতাদেশ বহাল রাখেন।

 

তবে মূল্য বৃদ্ধির বৈধতা প্রশ্নে হাইকোর্ট যে রুল জারি করেছিলেন তা ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে নিষ্পত্তি করতে বলেছিলেন আপিল বিভাগ। সে অনযায়ী রুলের চূড়ান্ত শুনানি শেষে এই রায় দেওয়া হল।

ব্রেকিং নিউজঃ