| |

শেরপুরে মৃগী নদীর ভাঙ্গনে হুমকির মুখে শহরের বিভিন্ন বাসা-বাড়ি ও মসজিদ

আপডেটঃ ৫:৪৬ অপরাহ্ণ | আগস্ট ১৪, ২০১৭

Ad

জুিহদুল হক মনির,শেরপুর প্রতিনিধি: প্রায় দের শত বছরের পুরোনো শেরপুর পৌরসভার সীমানা বরাবর বয়ে যাওয়া পাহাড়ি মৃগি নদীতে ভাঙ্গন শুরু হয়েছে। ফলে পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ডের কসবা ভাটিপাড়া মহল্লার বেশ কয়েকটি বসতভিটে নদী গর্ভে ভেঙ্গে পড়ছে। হুমকির মুখে রয়েছে পুরোনো কবরস্থানও একটি মসজিদ।
ক্ষতিগ্রস্থ এলাকাবাসী জানায়, দীর্ঘদিন থেকে শহরের উপকন্ঠ দিয়ে বয়ে যাওয়া পাহাড়ি মৃগী নদী পাশ্ববর্তি লছমনপুর ইউনিয়নের নামা সেরীর চর এলাকায় ভাঙ্গন শরু হয়।

 

সেই ভাঙ্গন বর্তমানে পৌর এলাকার কসবা ভাটি পাড়া মহল্লায় ঠেকেছে। ফলে গত ১৫ দিন যাবত ওই এলাকার মাসুদ মিয়া, সুজন মিয়া, আফরোজ আলী, আলতাফ মিয়া, জামাল মিয়া ও সোহরাব আলীসহ বেশ কয়েকটি ঘর নদী গর্ভে ভেঙ্গে পড়ছে।

 

এসব বাড়ি-ঘরের সাথেই পৌরসভার সড়ক থাকায় তাদের জমিও কমে যাচ্ছে। ফলে ভবিষ্যতে তাদের ঘর-বাড়ি ওই এলাকা থেকে অন্যত্র সরিয়ে নেওয়া ছাড়া বিকল্প থাকবে না বলে তারা জানায়। এদিকে ওই মহল্লার একটি কবরস্থান ও মসজিদও হুমকির মুখে পড়েছে।
স্থানীয় বাসিন্দা শহরের নয়আনী বাজারের পাদুকা ব্যবসায়ী মাসুদ মিয়া জানায়, ভাঙ্গনের বিষয়টি আমাদের ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র আতিকুর রহমান মিতুলকে জানানো হলেও আজো ভাঙ্গন রোধে কার্যক পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি।
এ ব্যাপারে পৌরসভার পেনেল মেয়র আতিকুর রহমান মিতুল জানায়, বিষয়টি লিখিত ভাবে পানি উন্নয়ন বোর্ডকে জানানো হয়েছে। তার ঘটনাস্থাল পরিদর্শন করে ভাঙ্গর রোধে ব্যবস্থা নিবে।