| |

জামালপুরের ছোনটিয়া থেকে পলাতক জঙ্গি মোঃ হাসান শেখকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১৪, জামালপুর ক্যাম্প।

আপডেটঃ 9:48 pm | August 25, 2017

Ad

১। বাংলাদেশের আইন শৃংখলা পরিস্থিতি ক্রান্তিলগ্নে “বাংলাদেশ আমার অহংকার” এই স্লোগান নিয়ে এলিট ফোর্স র‌্যাব সৃষ্টির সূচনালগ্ন থেকেই জঙ্গি ও উগ্রবাদী সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে আপোষহীন অবস্থানে থেকে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

 

র‌্যাবের কর্ম তৎপরতার কারণেই সারাদেশে একযোগে বোমা বিষ্ফোরণসহ বিভিন্ন সময়ে নাশকতা সৃষ্টিকারী নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন সমূহের শীর্ষ সারির নেতা থেকে শুরু করে বিভিন্ন স্তরের নেতা কর্মীদেরকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা সম্ভব হয়েছে।

 

আটককৃতদের মধ্যে কারো কারো মৃত্যুদন্ড, যাবজ্জীবন কারাদন্ড হয়েছে, কেউ কেউ বিভিন্ন মেয়াদে কারাভোগ করেছে এবং বেশকিছু মামলা এখনো বিচারাধীন। তবে যে সকল জঙ্গি এখনো আত্মগোপন করে আছে তাদের তৎপরতা একেবারে বন্ধ হয়ে যায়নি।

 

র‌্যাবের কঠোর গোয়েন্দা নজরদারী ও অভিযানের ফলে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠনগুলোর নেতা কর্মীরা পূনরায় সংগঠিত হওয়ার চেষ্টা চালিয়ে বার বার ব্যর্থ হয়েছে এবং বিভিন্ন আইন প্রয়োগকারী সংস্থার হাতে আটক হয়েছে।

 

২। র‌্যাবের জঙ্গী বিরোধী অভিযানের ধারাবাহিকতায় বেশ কিছু সন্দেহভাজন উগ্রপন্থী ও জঙ্গীবাদে উদ্বুদ্ধ সদস্য আমাদের গোয়েন্দা নজরদারীর মধ্যে ছিল।

 

এরই ধারাবাহিকতায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হায়াতুল ইসলাম খান, কোম্পানী কমান্ডার, র‌্যাব-১৪, সিপিসি-১, জামালপুর এর নেতৃত্বে একটি চৌকস আভিযানিক দল ২৪ আগষ্ট ২০১৭ খ্রিঃ ২২০৫ ঘটিকায় জামালপুর জেলার সদর থানাধীন ছোনটিয়া এলাকা হতে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জেএমবির জামালপুর জেলার তৎকালীন দায়িত্বপ্রাপ্ত ও সামরিক শাখার এহসার সদস্য মোঃ হাসান শেখ (৫২), পিতা-মৃত জসিম উদ্দিন, সাং-ছোনটিয়া, থানা ও জেলা-জামালপুরকে গ্রেফতার করেন।

 

৩। মোঃ হাসান শেখ বিগত ২৬ অক্টোবর ২০০৯ খ্রিঃ জঙ্গি কার্যক্রমে যুক্ত থাকার অভিযোগে তার অপর সহযোগী নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন (জেএমবি) এর গায়েরে এহসার সদস্য আব্দুল মাজেদ (৩১) সহ গ্রেফতার হন এবং তাদের বিরুদ্ধে জামালপুর জেলার সদর থানার মামলা নং-৪৮, তারিখঃ ২৭/১০/২০০৯ ইং, ধারা সন্ত্রাস দমন আইন ২০০৯ এর ৮/৯ রুজু হয়। গ্রেফতারকৃত জেএমবি সদস্য মোঃ হাসান শেখ (৫২) উক্ত মামলায় জামিনে এসে আত্মগোপনে ছিল।

ব্রেকিং নিউজঃ