| |

দুর্দান্ত সাকিব-তামিমে ইতিহাস গড়লো বাংলাদেশ

আপডেটঃ ৩:০৯ অপরাহ্ণ | আগস্ট ৩০, ২০১৭

Ad

মিরপুরে সিরিজের প্রথম টেস্টে রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে অস্ট্রেলিয়াকে ২০ রানে হারিয়েছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের ২০ রানের জয়

নিজেদের মাইলফলকে পৌঁছানোর ম্যাচে দলকে ২০ রানের দারুণ এক জয় উপহার দিলেন সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবাল। অর্ধশতক ও ১০ উইকেট নিয়েছেন সাকিব। দুই ইনিংসেই অর্ধশতক পেয়েছেন তামিম।

অস্ট্রেলিয়া বিপক্ষে পাঁচ টেস্টে এটাই বাংলাদেশের প্রথম জয়। টেস্টে বাংলাদেশের জয় পৌঁছাল দুই অঙ্কে, ১০১ টেস্টে ১০টি। জিম্বাবুয়ে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, ইংল্যান্ড, শ্রীলঙ্কার পর টেস্টে অস্ট্রেলিয়াকে হারাল বাংলাদেশ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

অস্ট্রেলিয়া ২য় ইনিংস: ৭০.৫ ওভারে ২৪৪ (ওয়ার্নার ১১২, রেনশ ৫, খাওয়াজা ১, স্মিথ ৩৭, হ্যান্ডসকম ১৫, ম্যাক্সওয়েল ১৪, ওয়েড ৪, অ্যাগার ২, কামিন্স ৩৩*, লায়ন ১২, হেইজেলউড ০; মিরাজ ২/৮০, নাসির ০/২, সাকিব ৫/৮৫, তাইজুল ৩/৬০, মুস্তাফিজ ০/৮)

টিকলেন না হেইজেলউড, বাংলাদেশের জয়

জশ হেইজেলউডকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলে অস্ট্রেলিয়াকে গুটিয়ে দেন তাইজুল ইসলাম। ২৬৫ রানের লক্ষ্য তাড়ায় অস্ট্রেলিয়া অলআউট হয়েছে ২৪৪ রানে।

images (3)

প্রতিরোধ ভাঙলেন মিরাজ

বোলিংয়ে ফিরেই অস্ট্রেলিয়ার প্রতিরোধ ভেঙেছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। বিদায় করেছেন নাথান লায়নকে। সুইপ করার চেষ্টায় ধরা পড়েন সৌম্য সরকারের হাতে। এই ক্যাচও দ্বিতীয় প্রচেষ্টায় মুঠোয় জমান তিনি।

লায়ন ১২ রান করে ফিরে যাওয়ার সময় অস্ট্রেলিয়ার স্কোর ২২৮/৯। প্যাট কামিন্সের সঙ্গে ক্রিজে যোগ দিয়েছেন ১১ নম্বর ব্যাটসম্যান জশ হেইজেলউড। জয়ের জন্য এখনও ৩৭ রান চাই অতিথিদের।

জীবন পেলেন কামিন্স

সাকিব আল হাসানের বলে আবার ক্যাচ ছাড়লেন সৌম্য সরকার। লাফিয়ে উঠা বলে প্যাট কামিন্সের ক্যাচ মুঠোয় নিতে পারেননি তিনি।

সে সময়ে কামিন্স ছিলেন ৯ রানে। ৬২ ওভার শেষে অস্ট্রেলিয়ার স্কোর ২১৬/৮। জয়ের জন্য তখনও তাদের প্রয়োজন ৪৯ রান।
images (4)

সাকিব পাঁচে জয়ের আরও কাছে বাংলাদেশ

লাঞ্চের পর প্রথম বলেই আঘাত হানলেন সাকিব আল হাসান। গ্লেন ম্যাক্সওয়েলকে বিদায় করে নিলেন নিজের পঞ্চম উইকেট। ম্যাচে ১০! টেস্টে এনিয়ে দ্বিতীয়বার ১০ উইকেট পেলেন বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার।

কাট করতে চেয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ার শেষ ভরসা ম্যাক্সওয়েল। নিচু হওয়া বল ব্যাটের কানায় লেগে এলোমেলো করে দেয় স্টাম্প।

১৪ রান করে ম্যাক্সওয়েল ফেরান সময় অস্ট্রেলিয়ার স্কোর ১৯৯/৮। প্যাট কামিন্সের সঙ্গে ক্রিজে যোগ দিয়েছেন নাথান লায়ন। তখন জয়ের জন্য অস্ট্রেলিয়ার প্রয়োজন আরও ৬৬ রান।

সাকিব, তাইজুলের স্পিনে ঘুরে দাঁড়াল বাংলাদেশ

৪১ রানে অস্ট্রেলিয়ার ৫ উইকেট তুলে নিয়ে ঢাকা টেস্টে ঘুরে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ। সামনে থেকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন আইসিসি টেস্ট র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। তাকে দারুণভাবে সঙ্গ দিচ্ছেন আরেক বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম।

স্টিভেন স্মিথের সঙ্গে ডেভিড ওয়ার্নারের ১৩০ রানের জুটিতে ২ উইকেটে ১৫৮ রানের দৃঢ় ভিতের ওপর দাঁড়িয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। সাকিব-তাইজুলে দারুণ বোলিং দ্রুত উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়েছে অতিথিরা।

লাঞ্চে যাওয়ার সময় অস্ট্রেলিয়ার স্কোর ১৯৯/৭। গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ১২ ও প্যাট কামিন্স ২ রানে অপরাজিত। জয়ের জন্য তাদের প্রয়োজন আরও ৬৬ রান।

আগের দিন উসমান খাওয়াজাকে ফেরানো সাকিব সকাল থেকে টানা বল করে এ দিন নিয়েছেন ৩ উইকেট।  তাইজুল নিয়েছেন দুটি উইকেট।

অ্যাগারকে বিদায় করলেন তাইজুল
প্রথম ইনিংসে প্রতিরোধ গড়া অ্যাশটন অ্যাগারকে এবার টিকতে দিলেন না তাইজুল ইসলাম। ফিরতি ক্যাচ নিয়ে বিদায় করেছেন বাঁহাতি অলরাউন্ডারকে।

সাকিব আল হাসানের সঙ্গে জুটি বেধে দারুণ বোলিং করা বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল পেয়েছেন নিজের দ্বিতীয় উইকেট।

২ রান করে অ্যাগার ফিরে যাওয়ার সময় অস্ট্রেলিয়ার স্কোর ১৯৫/৭। গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের সঙ্গে ক্রিজে যোগ দিয়েছেন প্যাট কামিন্স। জয়ের জন্য অতিথিদের প্রয়োজন আরও ৭০ রান।

ওয়েডকে ফেরালেন সাকিব, কাঁপছে অস্ট্রেলিয়া

চতুর্থ দিন টানা বল করে যাওয়া সাকিব আল হাসান এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলেন ম্যাথু ওয়েডকে। একটু নিচু হওয়া বল বাঁহাতি ব্যাটসম্যানের ব্যাট ফাঁকি দিয়ে প্যাডে লাগলে আউট দেন আম্পায়ার আলিম দার। রিভিউ নিয়েছিলেন ওয়েড, কিন্তু পাল্টায়নি সিদ্ধান্ত।

প্রথম ইনিংসে পাঁচ উইকেট নেওয়া সাকিব দ্বিতীয় ইনিংসে চার উইকেট নিয়ে দলকে ফিরিয়েছেন ম্যাচে।

৪ রান করে ওয়েড ফেরার সময় অস্ট্রেলিয়ার স্কোর ১৯২/৬। গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের সঙ্গে ক্রিজে যোগ দিয়েছেন অ্যাশটন অ্যাগার। জয়ের জন্য অতিথিদের দরকার আরও ৭৩ রান।

তাইজুল ফেরালেন হ্যান্ডসকমকে
আগের দিন ডেভিড ওয়ার্নারের প্রায় একই রকম একটি ক্যাচ ধরতে পারেননি সৌম্য সরকার। পিটার হ্যান্ডসকমের ক্যাচও ফসকে যাচ্ছিলল শেষ পর্যন্ত ধরেছেন দ্বিতীয় প্রচেষ্টায়।

অফ স্টাম্পের ঘেঁষে বল করা তাইজুলকে কাট করতে চেয়েছিলেন হ্যান্ডসকম। শরীরের বেশি কাছে থাকায় ঠিক মতো খেলতে পারেননি। ক্যাচ যায় প্রথম স্লিপে। প্রথম প্রচেষ্টায় বল হাতে লেগে উপর উঠে যায়। ঘুরে ডাইভ দিয়ে তা তালুবন্দি করেন সৌম্য।

১৫ রান করে হ্যান্ডসকমের বিদায়ের সময় অস্ট্রেলিয়ার স্কোর ১৮৭/৫। গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের সঙ্গে ক্রিজে যোগ দিয়েছেন ম্যাথু ওয়েড।

বিপজ্জনক স্মিথকেও ফেরালেন সাকিব
ডেভিড ওয়ার্নারের পর স্টিভেন স্মিথকে বিদায় করে বাংলাদেশকে ম্যাচে ফিরিয়েছেন সাকিব আল হাসান। কাট করতে গিয়ে মুশফিকুর রহিমের গ্লাভসবন্দি হন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক।

৩৭ রান করে স্মিথ ফেরার সময় অস্ট্রেলিয়ার স্কোর ১৭১/৪। পিটার হ্যান্ডসকমের সঙ্গে ক্রিজে যোগ দিয়েছেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। জয়ের জন্য অতিথিদের তখন প্রয়োজন আরও ৯৪ রান।

images (1)

ওয়ার্নারকে ফিরিয়ে প্রতিরোধ ভাঙলেন সাকিব
শতক পাওয়া ডেভিড ওয়ার্নারকে ফিরিয়ে অস্ট্রেলিয়ার প্রতিরোধ ভেঙেছেন সাকিব আল হাসান। একটু নিচু হওয়া বল বাঁহাতি ব্যাটসম্যানের ব্যাট ফাঁকি দিয়ে প্যাডে লাগলে জোরালো আবেদনে সাড়া দেন আম্পায়ার আলিম দার। রিভিউ নিয়েছিলেন ওয়ার্নার কিন্তু পাল্টায়নি আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত। ভাঙে ১৩০ রানের তৃতীয় উইকেট জুটি।

১৬টি চার আর একটি ছক্কায় ১১২ রান করে ওয়ার্নার ফিরে যাওয়ার সময় অস্ট্রেলিয়ার স্কোর ১৫৮/৩। অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথের সঙ্গে ক্রিজে যোগ দিয়েছেন পিটার হ্যান্ডসকম। জয়ের জন্য অতিথিদের প্রয়োজন আরও ১০৭ রান।

ওয়ার্নারের দুর্দান্ত শতক

  1. নিজের প্রথম শতকে অস্ট্রেলিয়াকে জয়ের পথে এগিয়ে নিচ্ছেন ডেভিড ওয়ার্নার। ১৪ রানে জীবন পাওয়া বাঁহাতি উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান রান তিন অঙ্কে নিয়ে যান ১২১ বলে। এই সময়ে তার ব্যাট থেকে আসে ১৫টি চার ও একটি ছক্কা।

    ৩৯ ওভার শেষে অস্ট্রেলিয়ার স্কোর ১৪৬/২। ১৯তম শতক পাওয়া ওয়ার্নার অপরাজিত ১০৪ রানে, অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ ২৯ রানে। জয়ের জন্য প্রয়োজন আরও ১১৯ রান।

ওয়ার্নার-স্মিথের শতরানের জুটি

শত রানের জুটিতে দলকে এগিয়ে নিচ্ছেন ডেভিড ওয়ার্নার ও স্টিভেন স্মিথ। দিনের শুরুতে জুটির রান তিন অঙ্কে নিয়ে গেছেন দুই জনে।

৩৭ ওভার শেষে অস্ট্রেলিয়ার স্কোর ১৩৯/২। জয়ের জন্য প্রয়োজন আর ১২৬ রান।

আশা নিয়ে মাঠে বাংলাদেশ

উইকেট অনুনেমেয়, হতে পারে যে কোনো কিছুই। প্রতিটি রান নিতে হবে সংগ্রাম করে। প্রথম টেস্টে জয়ের আশায় চতুর্থ দিন মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ।

দেড়শ রান দূরের পথ

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে চতুর্থ দিন জয়ের জন্য আরও ১৫৬ রান চাই অস্ট্রেলিয়ার। বাংলাদেশের চাই শেষ ৮ উইকেট। তৃতীয় দিনের খেলা শেষে বাংলাদেশের প্রতিনিধি হয়ে আসা তামিম ইকবাল জানান, এখনও বাংলাদেশের জেতা সম্ভব। তার বিশ্বাস, ধৈর্য ধরে ভালো জায়গায় বল করে গেলে সাফল্য আসবেই।

তৃতীয় দিন শেষে স্কোর: 

অস্ট্রেলিয়া ২য় ইনিংস: ৩০ ওভারে ১০৯/২ (ওয়ার্নার ৭৫*, রেনশ ৫, খাওয়াজা ১, স্মিথ ২৫*; মিরাজ ১/৫১, নাসির ০/২, সাকিব ১/২৮, তাইজুল ০/১৭, মুস্তাফিজ ০/৮)

বাংলাদেশ ২য় ইনিংস: ২২১

অস্ট্রেলিয়া ১ম ইনিংস: ২১৭

বাংলাদেশ ১ম ইনিংস: ২৬০