| |

কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরব থানাধীন কালিকাপ্রসাদ এলাকা থেকে বিপুল পরিমান ফেন্সিডিলসহ ০১ জন মহিলা মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১৪, ভৈরব ক্যাম্প।

আপডেটঃ 4:29 pm | September 14, 2017

Ad

১। বর্তমানে আমাদের দেশের যুব সমাজের অধঃপতনের অন্যতম প্রধান কারণ মাদকাসক্তি। দেশের যুবসমাজের একটি বড় অংশ আশংকাজনকভাবে মাদক হিসেবে ব্যবহৃত ফেন্সিডিলের প্রতি আসক্ত হয়ে পড়ছে।

 

মাদকের টাকা জোগাড় করার জন্য মাদকাসক্ত যুব সমাজ বিভিন্ন ধরনের অনৈতিক কার্যকলাপ, অবৈধ অস্ত্রের ব্যবহার, ছিনতাইসহ বিভিন্ন অবৈধ কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়ছে। “বাংলাদেশ আমার অহংকার” এই স্লোগান নিয়ে র‌্যাব যুব সমাজকে মাদকের ভয়াল থাবা থেকে রক্ষার জন্য প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই দেশব্যাপী বিভিন্ন মাদক ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে আপোষহীন অবস্থানে থেকে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে যা দেশের সর্বস্তরের জনসাধারন কর্তৃক ইতোমধ্যেই বিশেষভাবে প্রশংসিত হয়েছে।

 

২। এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-১৪, সিপিসি-৩, ভৈরব ক্যাম্প গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরব থানাধীন কালিকাপ্রসাদ এলাকায় জনৈক কেনু মিয়ার বাড়ীতে কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী মাদক-দ্রব্য বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে অবস্থান করছে।

 

উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাবের একটি চৌকস আভিযানিক দল ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ইং তারিখে ২১৫০ ঘটিকায় র‌্যাব-১৪, সিপিসি-৩, ভৈরব ক্যাম্প এর স্কোয়াড কমান্ডার এএসপি জুয়েল চাকমা এর নেতৃত্বে উক্ত স্থানে অভিযান পরিচালনা করে ১। মোছাঃ স্বপ্না (৫০), পিতা-মৃত কেনু মিয়া,

 

সাং-কালিকাপ্রসাদ, থানা-ভৈরব, জেলা-কিশোরগঞ্জকে গ্রেফতার পূর্বক তার দেখানো মতে তার শয়ন কক্ষের খাটের নিচ হতে ৫২৬ বোতল ফেন্সিডিল ও ০১ (এক) টি মোবাইল সেট উদ্ধার করেন।

 

উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্যের আনুমানিক মূল্য ৫,২৬,০০০/- (পাঁচ লক্ষ ছাব্বিশ হাজার) টাকা। ধৃত আসামীদের বিরুদ্ধে ১৯৯০ (সংশোধনী ২০০৪) ইং সালের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ১৯(১) টেবিল ৩(খ)/২১ ধারা মোতাবেক কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরব থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ব্রেকিং নিউজঃ