| |

গফরগাঁওয়ে পাওনা টাকা চাওয়ার অপরাধে সবুজ মিয়াকে কুপিয়ে ব্রহ্মপুত্র নদে ফেলে দিয়েছে সন্ত্রাসীরা

আপডেটঃ 12:50 am | September 21, 2017

Ad

শিবলী সাদিক খান ॥ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলায় পাওনা টাকা চাওয়ার অপরাধে সবুজ মিয়া (১৮) নামে এক প্রবাসীকে কুপিয়ে ব্রহ্মপুত্র নদে ফেলে দিয়েছে আলী নেওয়াজ নামে এক আদম বেপারীর নেতুত্বে তার ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীরা।

 

পুলিশ জানায়, উপজেলার পাঁচবাগ ইউনিয়নের চৌকা গ্রামের আদম বেপারী আলী নেওয়াজ বিদেশে লোক নেওয়ার জন্য একই গ্রামের রাসেল, পারভেজ ও সাইদুলের কাছ থেকে প্রতারণা করে সাড়ে ১০লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়।

 

টাকা নিয়ে দীর্ঘ দিন অন্যত্র পালিযে থাকে আদম বেপারী আলী নেওয়াজ। মঙ্গলবার দুপুরে আদম বেপারী আলী নেওয়াজ জমি রেজিষ্ট্রি করতে গফরগাঁও সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসে আসার খবর শুনে নিহত সবুজ মিয়া গফরগাঁও রেজিষ্ট্রি অফিসে আসে।

 

সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসে এসে পাওনা টাকা চাওয়ায় প্রবাসী সবুজ মিয়াকে ধরে নিয়ে যায় আদম বেপারী আলী নেওয়াজ ও তাঁর ভাড়াটিয়া লোকজন। পরে স্থানীয় তেতুলিয়া বাজার নিয়ে সবুজকে এলোপাথারী কুপিয়ে ব্রহ্মপুত্র নদে ফেলে দেয় আলী নেওয়াজ ও তাঁর লোজজন। পুলিশ ও দমকল বাহিনীর কর্মীরা নিখোঁজ সবুজ মিয়াকে উদ্ধারের চেষ্টা চালাচ্ছে।

 

নিখোঁজ সবুজ মিয়ার মা মিনা বেগম জানান, পাওনা টাকা চাওয়ার অপরাধে আদম বেপারী আলী নেওয়াজ ও তাঁর ভাড়াটিয়া লোকজন আমার ছেলেকে কুপিয়ে হত্যা করে লাশ ব্রহ্মপুত্র নদে ফেলে দিয়েছে।

 

এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাত পোনে ৯টায় সবুজের পিতা মোঃ শহীদ মিয়া বাদী হয়ে গফরগাঁও থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন । গফরগাঁও থানার ওসি একেএম মাহাবুবুল আলম ও ওসি তদন্ত তারিকুজ্জামান জানান,

 

ঘটনার সাথে জড়িত আদম বেপারী আলী নেওয়াজকে গ্রেফতার করা হয়েছে। নদে ফেলে দেয়া নিঁখোজ সবুজ জীবিত না মৃত এ বিষয়ে এখনো বলা যাচ্ছেনা, ময়মনসিংহ থেকে ডুবুরীর দল আসছে নদীতে খোঁজ করবেন বলে জানা গেছে।

ব্রেকিং নিউজঃ