| |

ত্রিশালে মাদকসেবীর হাতে যুবক খুন

আপডেটঃ 8:50 pm | September 26, 2017

Ad

ফয়জুর রহমান ফরহাদঃ ময়মনসিংহের ত্রিশালে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সদর উপজেলার চিকনা মনোহর দিঘালিয়াপাড়া গ্রামে সোমবার রাতে মাদকসেবীর ছুরিকাঘাতে আবদুল মালেক (৩২) নামে এক নির্মাণ শ্রমিক খুন হয়েছে। এ ঘটনায় একজনকে আটক করেছে পুলিশ।
গতকাল পুলিশ ও এলাকাবাসি সূত্রে জানা গেছে, সোমবার রাত পৌনে ৯ টার দিকে ওই গ্রামের বাবলুর মুদির দোকানের সামনে এলাকার ছোট বড় অনেকেই বসে আড্ডা দিচ্ছিল।

 

তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে একই গ্রামের বীরমুক্তিযোদ্ধা সুবেদার নূরুল হকের মাদকাসক্ত ছেলে মাসুদ (৩০) নির্মাণ শ্রমিক আবদুল মালেকের ঘাড়ে ছুরি মারে।

 

সাথে সাথেই মাটিতে লুটিয়ে পড়ে সে। এ সময় উপস্থিত লোকজন মাসুদকে ধরার চেষ্টা করলে ছুরির ভয় দেখিয়ে পালিয়ে যায় সে। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে প্রথমে ত্রিশাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে প্রচন্ড রক্তক্ষরন হওয়ায় চিকিৎসক তাকে দ্রুত ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করে।

 

সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত ১০ টার দিকে তার মৃত্যু হয়। খুনি মাসুদের পিতা মুক্তিযোদ্ধা সুবেদার নূরুল হককে আটক করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় নিহতের বড় ভাই আবদুল বারেক বাদী হয়ে ৪ জনকে আসামি করে ত্রিশাল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে।
স্থানীয়রা জানান, মা বাবার কোন কথা শোনতনা মাদকাসক্ত মাসুদ প্রায়ই মা-বাবাকে মারধর করত, মালেক চাচাত ভাই হিসেবে মাঝেমধ্যেই মাসুদকে শাসন করত। হয়ত এটাই তার জন্য কাল হয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শী স্থানীয় আবুল কাশেম জানান, বাবলুর মুদির দোকানের সামনে আমরা অনেকেই বসে আড্ডা দিচ্ছিলাম। তুচ্ছ এক বিষয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে মাদকাসক্ত মাসুদ মালেকের ঘাড়ে ছুরি মারে।
এ ব্যাপারে ওসি জাকিউর রহমান জানান, ঘটনাস্থল থেকে খুনের জন্য ব্যবহৃত ছুরিটি উদ্ধার করা হলেও খুনি পলাতক রয়েছে। ৪ জনকে আসামি করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের হয়েছে এবং মাসুদের পিতা নূরুল হককে আটক করা হয়েছে।

ব্রেকিং নিউজঃ