| |

ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাবের ২য় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন ও ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাব সম্মাননা স্মারক ২০১৭ প্রদান

আপডেটঃ 11:12 pm | October 14, 2017

Ad

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ময়মনসিংহ জেলা প্রতিষ্ঠার ৯০ বছর পর স্থানীয় সাংবাদিকতার সূত্রপাত হয়। আর ময়মনসিংহ বিভাগ প্রতিষ্ঠার দিনই যাত্রা শুরু করে ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাব। রাষ্ট্রনায়ক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ময়মনসিংহ বিভাগ স্বপ্নের বাস্তবায়ন করেছেন। যা গত দু বছরের পদযাত্রায় রয়েছে।

 

দ্রুত বিভাগীয় শহর বাস্তবায়ন কার্যক্রম শুরুর আশাবাদ ব্যক্ত করে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ বলেন, ইতিহাসের সঙ্গে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। সাংবাদিকরা এগিয়ে যাচ্ছে। এই পথ চলায় যেতে হবে বহুদুর।

 

১৩ অক্টোবর শুক্রবার সকাল ১০টায় নগরীর সি.কে.ঘোষ রোড মীর প্লাজায় ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাবের ২য় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে জমকালো অনুষ্ঠান হয়। এতে তিন জন গণমাধ্যম ব্যাক্তিত্বকে ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাব সম্মাননা পদক দেয়া হয়।

 

সেই সাথে মানবিক কল্যাণে দায়িত্বশীল ভূমিকার জন্য ট্রফিক বিভাগের টি.এস.আই নূরুল হককেও সম্মাননা দেয়া হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সরকারী আনন্দ মোহন কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর মো: জাকির হোসেন।

 

বিশেষ অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ডিএসবি জয়িতা শিল্পী। ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি এ কে এম ফখরুল আলম বাপ্পী চৌধুরী এতে সভাপতিত্ব করেন। সঞ্চালনা করেন ক্লাবের মূখ্য সমন্বয়ক স্বাধীন চৌধুরী।

 

অনুষ্ঠানে সূচনা বক্তব্য রাখেন প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহ সভাপতি আলহাজ মো: আশিক চৌধুরী। অনুষ্ঠানে ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাব সম্মাননা স্মারক ২০১৭ দেয়া হয় সিনিয়র সাংবাদিক দৈনিক আজকের খবর সম্পাদক মো: মোশাররফ হোসেন, দৈনিক স্বদেশ সংবাদ সম্পাদক শ্রী জগদীশ সরকার ও প্রবীণ সাংবাদিক বীর মুক্তিযোদ্ধা জিয়া উদ্দিন আহমেদ।

 

অনুষ্ঠনের প্রধান অতিথি আনন্দ মোহন কলেজ বিশ্ববিদ্যলয়ের অধ্যক্ষ প্রফেসর জাকির হোসেন বলেন, আমার বিশ্বাস এই বিভাগীয় প্রেসক্লাব একদিন উন্নতির শিখরে আরোহন করবে। তিনি বলেন, সাংবাদিকরা জাতির কলম সৈনিক।

 

সাংবাদিকতায় এথিক্স এন্ড ভ্যালুজ সমুন্নত রেখে কাজ করতে সাংবাদিকদের প্রতি আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, সমাজ উন্নয়নে কর্নধারের ভূমিকা পালন করে সাংবাদিকরা। বাংলাদেশ সাংবাদিক জগৎ এখন অনেক এগিয়ে।

 

সেই তুলনায় ময়মনসিংহ অনেক পিছেয়ে। এক্ষেত্রে শুরুতে আরও খারাপ অবস্থা ছিল। তিনি বলেন, ময়মনসিংহ শহরে পত্রিকা বেড়েছে কিন্তু সাংবাদিকদের সুযোগ সুবিধা বাড়েনি। আমি আশা করি ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাব সাংবাদিকদের উন্নয়নে কাজ করবে।

 

তিনি বলেন, ময়মনসিংহ বিভাগীয় শহরের কাজ অচিরেই শুরু হবে। আজি এ প্রভাতে….কবিতা আবৃত্তি দিয়েই বক্তব্য শুরু করলেন অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ডিএসবি জয়িতা শিল্পী। তিনি বলেন, আমি জানি না এখানে কতদিন থাকবো।

 

কিন্তু আমি এখানে যতদিন থাকবো এ অঙ্গনের একজন মানুষ হয়ে থাকবো। তিনি আশাবাদ ব্যাক্ত করে বলেন, আপনাদের আইডিন্টিটি যেন ব্যক্তিস্বত্বায় প্রকাশ পায়, এটি একটু খেয়াল রাখবেন। এরপর তিনি শেষ করলেন আরেকটি কবিতা আবৃত্তি করে-‘ বিশেষ কারণে আমি’…..।

 

বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে) কেন্দ্রিয় কমিটির সদস্য ও ময়মনসিংহ সম্পাদক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক, সাংবাদিক নেতা মো: মোশাররফ হোসেন সাংবাদিকতায় সকল পদক্ষেপের চিন্তা চেতন ও সিদ্ধান্ত গ্রহনে সাহসী সাংবাদিকতা আর রয়েসয়ে লিখার বিষয় নিয়ে আলোকপাত করেন।

 

তিনি বলেন, সাংবাদিকতায় আধুনিকায়ন হয়েছে। বর্তমানে তথ্য প্রযুক্তিতে এর ব্যাপক বিস্তার হয়েছে। আজকে গ্রাম বাংলার যেকোন প্রান্ত থেকে মুহূর্তেই সকল খবর পাওয়া যাচ্ছে। তিনি বলেন, আমাদের সাংবাদিকদের বছরে কমপক্ষে একটি করে ট্রেনিং প্রোগ্রামে অংশ নেয়া প্রয়োজন।

 

সিনিয়র সাংবাদিক জিয়া উদ্দিন আহমেদ বলেন, যতদিন বাংলাদেশ থাকবে ততদিন ময়মনসিংহ থাকবে,যতদিন ময়মনসিংহ বিভাগ থাকবে,ততদিন ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাব থাকবে। তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় এ প্রজন্মের কলম সৈনিকদের কাজ করতে হবে।

 

তিনি ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাব কর্তৃক সম্মাননা ক্রেস্ট গ্রহন করে বলেন, আজকে আমি আমার মায়ের কাছ থেকে মনে হয় আদর পেলাম এ সম্মাননা পেয়ে। কারণ আমি একজন মুক্তিযোদ্ধা হিসাবে অনেক দেশ অনেক সংগঠনের কাছ থেকে সম্মাননা পেয়েছি।

 

কিন্তু এবার পেলাম আমার গোষ্ঠি, আমার সংগঠন সাংবাদিক সংগঠনের কাছ থেকে। এটি আমার জীবনে পরম পাওয়া হয়ে থাকবে। সম্মাননা স্মারক অনুভূতি প্রকাশ করে কথা বলেন, দৈনিক স্বদেশ সংবাদ সম্পাদক শ্রী জগদীশ চন্দ্র সরকার।

 

তিনি বলেন, আমি আজ অনেক আনন্দিত হলাম। আমি আশা করি এ প্রেসক্লাবটি আরও সামনের দিকে এগিয়ে যাবে। এরপর তিনি ময়মনসিংহের সাংবাদিকতার শুরু ও বিকাশ অধ্যায় সম্পর্কে আলোচনা করেন।

 

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাব সভাপতি দৈনিক মাটি ও মানুষ প্রকাশক সম্পাদক একেএম ফখরুল আলম বাপ্পী চৌধুরী অনুষ্ঠানে আগত সকল অতিথিদের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাব সাংবাদিকরা বস্তুনিষ্ঠ ও দায়িত্বশীল সাংবাদিকতার অনুশীলন করে থাকে।

 

তিনি বলেন, আমরা আগামী বছর এ অনুষ্ঠানটি আরও বড় পরিসরে করবো বলে আশা করছি। তিনি বস্তুনিষ্ঠ ও ভালো সাংবাদিকতার স্বীকৃতি স্বরুপ বিভাগে বাৎসরিক শ্রেষ্ঠ সাংবাদিক নির্বাচনে ১ লাখ, জেলা পর্যায়ে ৫০ হাজার, উপজেলা পর্যায়ে ১০ হাজার টাকা করে পুরস্কার প্রদানের ঘোষনা দেন।এ পুরস্কার নির্বাচনে ৭ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি থাকবে। যারা যাচাই বাছাই করবেন শ্রেষ্ঠ সাংবাদিক।

 

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাব সহ সভাপতি সাপ্তাহিক রাতদিন নির্বাহী সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুন স্বপন, দৈনিক লোকলোকান্তর সম্পাদক কবি আমিনুল হাসান, দৈনিক মাটি ও মানুষ বার্তা সম্পাদক বিল্লাল হোসেন প্রান্ত, সাপ্তাহিত মোমেনশাহী সম্পাদক মফিজ উদ্দিন,

 

জনতার আদালত ডট কম ব্যুারো চিফ আব্দুল কাদের চৌধুরী, আনন্দ মাল্টিমিডিয়ার মোকলেছুর রহমান মামুন, এটিএম মনিরুজ্জামান, মো: কামল, রাশেদুল ইসলাম, বিজয় টিভি মামুন, দেশ টিভি ইলিয়াস,উজ্জন খান, ফজলু, ফয়েজ আহমেদ, সুমন ভৌমীকসহ ত্রিশাল, সরিষাবাড়ী, পূর্বধলা উপজেলা ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাব সাংবাদিকবৃন্দ প্রমুখ।

ব্রেকিং নিউজঃ