| |

চাঞ্চল্যকর ফুলবাড়িয়া ব্রিফকেস ভর্তি সবুজ হত্যা মামলা রহস্য উৎঘাটন করেছে জেলা গোয়েন্দা সংস্থা ডিবি

আপডেটঃ ১:০৪ পূর্বাহ্ণ | অক্টোবর ৩০, ২০১৭

Ad

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ময়মনসিংহ ফুলবাড়ীয়া সড়কের পাশে তেলিগ্রাম কান্দাপাড়া নামক স্থান থেকে ব্রিফকেস ভর্তি সবুজ মিয়া (৩৮), মামলা রহস্য উৎঘাটন করেছে জেলা গোয়েন্দা সংস্থা ডিবি। জানাযায়, ফুলবাড়ীয়া ময়মনসিংহ সড়কের পাশে তেলিগ্রাম কান্দাপাড়া নামক স্থান থেকে ব্রিফকেস ভর্তি এক অজ্ঞাত যুবকের লাশ পায় পুলিশ।

 

এ ঘটনায় ফুলবাড়িয়া পুলিশ ২৩-০৯-২০১৭ তারিখে অজ্ঞাত পরিচয়ে একটি মামলা দায়ের করেন। আরো জানাযায়, জমি কিনার পাওয়না ৭ লাখ টাকা ময়মনসিংহ একটি ব্যাংক থেকে থেকে উঠিয়ে দিবে বলে তাসলিমা আক্তার লাভলীসহ আরো ৩-৪ জন সকালে তার নিজ বাড়ি থেকে বের করে নিয়ে যায় সবুজকে।

 

সবুজ বাসায় ফিরে না গেলে তার ছোট ভাই মোনেয়ম খান ঈশ্বরগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেন ২১-০৯-২০১৭ তারিখে। ২৩-০৯-২০১৭ তারিখে ফুলবাড়িয়া ময়মনসিংহ সড়কের পাশে লাশ পায় পুলিশ। ওই ব্যাক্তির ছবি ফেইসবুকে ভাইরাল হলে তার ছোট ভাই মোনায়েম ভুইয়া তার ভাই সবুজ বলে সনাক্ত করেন।

 

চাঞ্জল্যকর এই মামলাটি রহস্য উৎঘাটন করার জন্য ময়মনসিংহ জেলা পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম পিপিএম,বিপিএম মামলাটি জেলা গোয়েন্দা সংস্থাকে তদন্তের জন্য নির্দেশ প্রদান করেন।

 

জেলা গোয়েন্দা সংস্থা ডিবি ওসি আশিকুর রহমানের নির্দেশে এলআইসি টিমের এসআই ইফতেখার,এসআই আনোয়ার,এএসআই আরিফ তথ্য প্রযুক্তি মাধ্যমে বিভিন্ন যায়গা সাড়াশী অভিযান পরিচালনা করে আসামী তাসলিমা আক্তার লাভলী(৪০),বিল্লাল হোসেন ফরাজি(৪৭),দীপক চন্দ্র সরকার (২৪),গ্রেফতার করেন।

 

৩ জন আসামী বিজ্ঞ আদালতে ১৬৪ ধারা জবানবন্দী দেন ও তাদের দোষ স্বীকার করেছে বলে সুত্র থেকে জানাযায়। ডিবি ওসি আশিকুর রহমান বলেন,এ ঘটনায় এখনো তদন্ত চলছে এবং অভিযান অভ্যহত রয়েছে। তদন্ত শেষ হলে সব কিছু বলা যাবে।

ব্রেকিং নিউজঃ