| |

শম্ভুগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির উদ্যোগে শম্ভুগঞ্জ বাজার এলাকা পরিদর্শন করেন ময়মনসিংহ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান

আপডেটঃ ১২:১৪ পূর্বাহ্ণ | অক্টোবর ৩১, ২০১৭

Ad

মো: নাজমুল হুদা মানিক ॥ ময়মনসিংহ সদর উপজেলার শম্ভুগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির উদ্যোগে গতকাল বিকালে শম্ভুগঞ্জ বাজার এলাকার বিভিন্ন উন্নয়ন মুলক কাজের জন্য বাজারের রাস্তাঘাট পরিদর্শন করেন ময়মনসিংহ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান।

 

শম্ভুগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির পক্ষে আওয়ামীলীগ নেতা মো: মোক্তার হোসেন যাত্রী ছাইনী, গনসৌচাগার, ড্রেনেজ ব্যবস্থা, পাঠাগার, চামড়া বাজারে জলাবদ্ধতা, বাইপাস সড়ক নির্মান সহ বিভিন্ন উন্নয়ন মুলক কাজের জন্য দাবী জানান।

 

ময়মনসিংহ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান বলেন, ময়মনসিংহ বিভাগীয় শহরে শম্ভুগঞ্জ হবে দ্বিতীয় শহর। ময়মনসিংহ বিভাগের কার্যক্রম শুরু হলে শম্ভগঞ্জ সহ চরাঞ্চল হলে গুলশান, বারিধারার মত উন্নত এলাকা।

 

ময়মনসিংহ শহর হবে পুরাতন ঢাকার মত শহর। তিনি বলেন, এলজিইডি বিভাগ দেশে গুরুত্বপুর্ন ভুমিকা পালন করছে। এলজিইডির মাধ্যমে দেশের যোগাযোগ ব্যবস্থার অভুতপুর্ব উন্নয়ন হয়েছে।

 

জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন, উপশহরের মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নয়ন করতে হবে। মানুষের কল্যানে কাজ করতে হবে। তিনি বলেন, শম্ভুগঞ্জ বাজারের ছোটখাট রাস্তা নির্মান করে দেয়া এলজিইডির জন্য তেমন কোন বড় কাজ নয়।

 

এটি অনায়াসেই এলজিইডি করে দিতে পারবে। তিনি বলেন, পরিকল্পনা মাফিক কাজ করতে হবে। এসময় এলজিইডি ময়মনসিংহের নির্বাহী প্রকৌশলী মো: মোশাররফ হোসেন বলেন, সমন্বয় করে কাজ করলে কোন সমস্যা হয়না।

 

বর্তমানে এলজিইডি ও উপজেলা পরিষদ যৌথ ভাবে অনেক কাজ করে যাচ্ছে। সমন্বয় করে কাজ করলে আশাকরি শম্ভুগঞ্জ বাজারের কাজ কোন সমস্যা হবেনা। দ্রুতগতিতেই কাজগুলি করা সম্বব হবে।

 

পরে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান ও এলজিইডি নির্বাহী প্রকৌশলী মো: মোশাররফ হোসেন শম্ভুগঞ্জ বাজারের বিভিন্ন রাস্তা, যাত্রী ছাইনী, গনসৌচাগার, ড্রেনেজ ব্যবস্থা, পাঠাগার, চামড়া বাজারে জলাবদ্ধতা, গরুর হাটের রাস্তা, বাইপাস সড়ক নির্মান সহ বিভিন্ন উন্নয়ন মুলক কাজের ক্ষেত্র পরিদর্শন করেন।

 

এসময় চরঈশ্বরদিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোর্শেদুল আলম জাহাঙ্গীর, সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এমদাদুল হক মন্ডল, মহানগর আওয়ামীলীগ নেতা মো: মোক্তার হোসেন, আওয়ামীলীগ নেতা মোসলেম উদ্দিন, আবুল কালাম, মজিবুর রহমান, ইউপি সদস্য আ: মান্নান, শম্ভুগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি হাজী মো: আব্দুল মান্নান,

 

সহ সভাপতি সুব্রত কুমার সাহা, সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব এরশাদ আলী, যুগ্ন সাধারন সম্পাদক আহসান হাবিব, সহ সাধারন সম্পাদক হাবিবুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ আলহাজ্ব কামাল হোসেন, সাবেক সভাপতি আলহাজ্ব ফজলুল হক মন্ডল সহ এলঅকার গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

 

জেলা পরিষদ চেয়ারম্যনের সাথে সফরসঙ্গী ছিলেন আওয়ামীলীগ নেতা মীর শহিদ উদ্দিন, কাজী মঞ্জুর মোর্শেদ রাজু, আতাউর রহমান টিটু, আসলাম খান পাঠান, যুবলীগ নেতা নিতাই চন্দ্র দে প্রমুখ।

 

পরে তিনি শম্ভুগঞ্জ নলুয়াপাড়া গোরস্থান মাঠে এলাকাবাসীর উদ্যোগে এক মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন। মো: তাহের হোসেনের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন, বক্তৃতা দিয়ে মাঠ গরম করে কোন লাভ নেই। দেশ ও জনগনের উন্নয়নে কাজ করতে হবে। দেশের মানুষ ও এলাকার উন্নয়নে কাজ করতে হবে।

 

তিনি বলেন, শম্ভুগঞ্জের মানুষ আওয়ামীলীগের প্রতি দুর্বল। তাই সরকার তাদের উন্নয়নে সর্বাত্বক কাজ করে যাচ্ছে। আগামীদিনে শম্ভুগঞ্জ হবে শুলশান ও বারিধারার মত এলাকা। ময়মনসিংহ হবে পুরাতন ঢাকা। তিনি বলেন, সরকারের ধারাবাহিকতা রক্ষা করতে হবে। উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষা করতে জনগনকে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে হবে।

 

নতুন কোন জটিলতা সামনে আনা যাবেনা। তিনি বলেন, শেখ হাসিনা মহিলাদের উন্নয়নে ব্যাপক কাজ করে যাচ্ছেন। এলাকাবাসীর দাবীর প্রেক্ষিতে তিনি বলেন, গোরস্থানের কাজ অবশ্বই হবে তবে এবছর শুরু হবে। পর্যায়ক্রমে এ কাজ সমাপ্ত হবে।