| |

নান্দাইলে ৭ দিন ধরে পথের ধারে পড়ে থাকা মৃতপ্রায় এ মহিলা কে!

আপডেটঃ ১২:১৯ পূর্বাহ্ণ | অক্টোবর ৩১, ২০১৭

Ad

ইব্রাহিম মুকুট ॥ পথের ধারে ৭ দিন ধরে পড়ে রয়েছে সত্তোর উর্ধ এক বৃদ্ধ মহিলা। মূখের ভেতরে মাছি আনাগোনা করছে, এক পা’য়ে পঁচন ধরেছে, হাত পা একটু একটু নাড়া-ছাড়া করলেও কোন কথা বলার শক্তি নেই।

 

বিড় বিড় করে কিছু বলার চেষ্টা করলেও বুঝার উপায় নেই তার মূখের কথা। ব্যস্ততম নান্দাইলের সমূর্ত্ত জাহান মহিলা কলেজের সামনের যাত্রী ছাউনিতে মৃত্যুর দিকে ধাবমান ওই বৃদ্ধাকে দেখতে অনেকে এগিয়ে গেলেও কেউ তাকে উদ্ধারে কেউ আসেনি।

 

সোমবার (৩০ অক্টোবর) বিকেল ৩টার দিকে নান্দাইল উপজেলা প্রেস ক্লাবের সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক দৈনিক তৃতীয় মাত্রা ও দৈনিক আলোকিত ময়মনসিংহ এর নান্দাইল প্রতিনিধি শামছুজ্জামান বাবুল এ রাস্তা দিয়ে যাবার সময় যাত্রী ছাউনীতে বৃদ্ধা মহিলাকে পড়ে থাকতে দেখে এগিয়ে যান।

 

প্রত্যক্ষ করেন বৃদ্ধার মূখের ভেতরে মাছি আনাগোনা করছে, মাঝে মধ্যে হাত নাড়ছে। এ সময় যাত্রী ছাউনির পাশের বাসার নাসিমা আক্তার রিনা নামে এক মহিলা এগিয়ে এসে বলেন, ৭ দিন আগে পাশর্^বর্তী স্থানের গরুর গোবরের মধ্যে ওই বৃদ্ধা পড়ে ছিলেন, গত বৃহস্পতিবার ওই বৃদ্ধাকে গোবর থেকে উঠিয়ে ভয়ে ভয়ে যাত্রী চাউনিতে নিয়ে আসি।

 

বৃদ্ধা মহিলার করুণ পরিনতি দেখে সাংবাদিক শামছুজ্জামান বাবুল মোবাইল ফোনে বিষয়টি নান্দাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ হাফিজুর রহমানকে অবগত করেন। ইউএনও তাৎক্ষণিক নিজের ব্যবহৃত অফিসের গাড়ি পাঠিয়ে বৃদ্ধাকে নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য প্রেরণ করে কর্তব্যরত ডাক্তারকে বিষয়টি দেখভাল করার অনুরোধ জানান।

 

সোমবার বিকেল সাড়ে ৩ টার দিকে নান্দাইলের সমূর্ত্ত জাহান মহিলা কলেজের সামনের যাত্রী ছাউনি থেকে উদ্ধারকৃত মৃত্যু পথযাত্রী ওই মহিলাকে বর্তমানে নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

 

নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের বেডে বৃদ্ধার সাথে কথা বলার চেষ্টাকালে কিছুটা অস্পষ্ট স্বরে তিনি বলতে চেষ্টা করেন ,তার নাম রহিমা, বাড়ি খলাপাড়া, কখনো আবার বলেন কিশোরগঞ্জ, তার পারভীন নামে একটি মেয়ে রয়েছে বলেও জানান। এর বেশি কিছুই বলতে পারেননি ওই বৃদ্ধা মহিলা।

 

নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ মোহাম্মদ মোস্তাক আহাম্মেদ তাৎক্ষণিক বৃদ্ধা মহিলার শারিরিক অবস্থা দেখে বলেন, আনেক দিন ধরে অভূক্ত এ রোগিকে ভাল খাদ্য ও উন্নত চিকিৎসা দেয়া হলে সুস্থ্য হবার সম্ভাবনা রয়েছে।

 

এবিষয়ে নান্দাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ হাফিজুর রহমান বলেন, মমূর্ষ অবস্থায় এক সপ্তাহ ধরে একজন বৃদ্ধ মহিলা রাস্তার পাশে পড়ে আছে আমাকে কেউ অবহিত করেনি।

 

সাংবাদিক শামছুজ্জামান বাবুল আমাকে ফোনে জানানোর পর তাৎক্ষণিক নিজের ব্যবহৃত অফিসের গাড়ি পাঠিয়ে বৃদ্ধাকে নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য প্রেরণ করে কর্তব্যরত ডাক্তারকে বিষয়টি দেখভাল করার অনুরোধ করেছি। মানবিক দৃষ্টিকোন থেকে ধন্যবাদ তাঁকেই দেয়া উচিৎ।

ব্রেকিং নিউজঃ