| |

জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য হিসেবে মনোনয়ন প্রত্যাশী মুনীর চৌধুরীর পক্ষে ব্যাপক জনসমর্থন

আপডেটঃ ৭:৫৪ অপরাহ্ণ | অক্টোবর ২৯, ২০১৮

Ad

রুহুল আমিনঃ ময়মনসিংহ জেলা জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাকালীন সময় থেকে জেলা জাতীয় পার্টির সহ সভাপতি সাবেক রাষ্ট্রপতি পল্লীবন্ধু জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসাইন মোহাম্মদ এরশাদের আস্থাভাজন বর্তমান জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা রওশন এরশাদ এমপির অত্যন্ত কাছের লোক বলে পরিচিত বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মুনীর চৌধুরী ময়মনসিংহ ২ (ফুলপুর তারাকান্দা) আসনে জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য হিসেবে মনোনয়ন প্রত্যাশী।

 

তিনি ফুলপুর তারাকান্দা এলাকায় দীর্ঘদিন যাবৎ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহনের জন্য গনসংযোগ ও বর্তমান সরকারের উন্নয়নের প্রচারনা চালিয়ে ব্যাপক সাড়া ফেলে দিয়েছেন। গত কয়েক মাস যাবৎ তিনি ফুলপুর তারাকান্দাবাসী ও জনগনকে সাথে নিয়ে বিগত জাতীয় পার্টির সরকারের আমলের সাফল্য ও বর্তমান ১৪ দলীয় জোট সরকারের উন্নয়নের চিত্র প্রত্যন্ত অঞ্চলে ভোটারদের মাঝে তুলে ধরছেন।

 

তিনি ব্যবসায়ীক কাজে ব্যস্ত থাকলেও জেলা জাতীয় পার্টির কর্মকান্ডের পাশাপাশি ফুলপুর তারাকান্দার জাতীয় পার্টির নেতাকর্মী ও সাধারন জনগনের সাথে নিবীড় সম্পর্ক গড়ে তুলেছেন। ফুলপুর তারাকান্দা এলাকার জনগনের কাছে তিনি প্রিয় ব্যক্তি হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছেন।

 

দৈনিক আলোকিত ময়মনসিংহের সাথে একান্ত আলাপকালে তিনি বলেন ফুলপুর তারাকান্দার জনগনের সাথে তার আত্মার সর্ম্পক গড়ে উঠেছে। তিনি বিশ্বাস করেন জাতীয় পার্টি কিংবা ১৪ দলীয় জোট থেকে যদি তাকে মনোনয়ন দেওয়া হয় তবে তিনি বিপুল ভোটে নির্বাচিত হবেন। তিনি সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হলে এলাকার উন্নয়নের জন্য সততারসহিত নিরলসভাবে কাজ করে যাবেন।

 

ফুলপুর তারাকান্দা এলাকা থেকে দূর্নীতি, স্বজনপ্রীতি, সন্ত্রাস ও মাদক নির্মূলের জন্য নিজেকে নিয়োজিত রাখবেন। তিনি বিশ্বাস করেন জাতীয় পার্টি তাকে ফুলপুর তারাকান্দা থেকে মনোনয়ন প্রদান করে তার কর্মের মূল্যায়ন করবেন।

 

তিনি মনোনয়ন পেলে শতভাগ বিজয় নিশ্চিত। মুনীর চৌধুরী আরও বলেন, জাতীয় পার্টি কিংবা ১৪ দলীয় জোট যাকেই মনোনয়ন দিবে তিনি তাকে বিজয়ী করার জন্য নিরলসভাবে কাজ করবেন। মুনীর চৌধুরী ময়মনসিংহ মহানগরের একজন সৎ ও নিষ্ঠাবান ব্যক্তি হিসেবে পরিচিত।

 

তিনি ময়মনসিংহ জেলা মটরমালিক সমিতির সাবেক সহ সভাপতি ও ময়মনসিংহ পৌরসভা থেকে জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে ২বার মেয়র নির্বাচন করেছেন। তিনি বর্তমানে জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য। উনার মত একজন জনদরদী, পরোপকারী ব্যক্তিকে যদি জাতীয় পার্টি মনোনয়ন প্রদান করে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সদস্য হিসেবে তার বিজয় সুনিশ্চিত বলে মনে করেন রাজনৈতিক অভিজ্ঞজনেরা।

ব্রেকিং নিউজঃ