| |

আওয়ামীলীগ সরকার মানেই দেশের উন্নয়নের সরকার—অধ্যাপক ডাঃ এমএ আজিজ

আপডেটঃ ৮:৫৯ অপরাহ্ণ | নভেম্বর ০২, ২০১৮

Ad

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি ঃ বাংলাদেশের যে কোন সেক্টরে দেখেন আজ কি উন্নয়ন হয়েছে, স্বাস্থ্যখাত, শিক্ষা, গার্মেস সেক্টর, কৃষি-মৎসখ্যাত সকল স্তরেই উন্নয়নের ছোয়ার জন্যই আমরা আজ মধ্যম আয়েয় দেশে উন্নিত হয়েছি। আগামী আওয়ামীলীগের সরকার ক্ষমতায় আসলেই বাকি অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করে দেশের জন্য ব্যাপক উন্নয়ন হবে বলেও তিনি জানান। ময়মনসিংহ সদর উপজেলার ময়মনসিংহ ৪ আসনের অন্যতম রাজনৈতিক ব্যক্তিত্য অধ্যাপক ডাঃএমএ আজিজ ।

 

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বিভিন্ন অংঙ্গ-সংগঠনের মধ্যে পেশা জীবি সংগঠন চিকিৎসকদের সংগঠন শক্তিশালী। মাননীয় প্রধান মন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার জন্য সকলকেই ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করতে হবে রপয বলে ফশফন ঁজানান।

 

চিকিৎসকদের ভুমিকা রাখতে হবে শুধু বক্তব্যে দিতে পারলেই হবে না সকল দিক দিয়ে দেশের মানুষের কল্যাণে জন্য কাজ করতে হবে। আসছে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পাবেন না বিতর্কিত মন্ত্রী- এমপিরা। এ তালিকায় কপাল পুড়েছে বর্তমান সংসদে থাকা শতাধিক এমপির।

 

যে সব এমপি তাদের এলাকায় গ্রহনযোগ্যতা নাই, যারা তৃনমুল নেতা-কর্মীদের দ্বিধাবিভক্ত করেছেন, ক্ষমতার দাপট দেখিয়েছেন তাদের নৌকায় তুলবেন না আওয়ামীলীগের সভানেত্রী ও মাননীয় প্রধান মন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা।

 

আওয়ামীলীগের নীতি নির্ধারকরা মনে করছেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন হবে প্রতিদ্বদিদ্বতা মুলক। বিএনপিসহ অন্যান্য রাজনৈতিক দল এ নির্বাচনে অংশ গ্রহন করবে। সে কারনেই হিসাব নিকাশ করে এই নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হবে।

 

স্বচ্ছ ভাবমূর্তি ও এলাকায় গ্রহন যোগ্য ব্যক্তিকে মনোনয়ন দেওয়ার মাধ্যমে ভোটের আগেই এগিয়ে থাকতে চায় ক্ষমতাসীন দলের নীতি নির্ধারকরা। এ ক্ষেত্রে নেতা-কর্মীদের কাছে ভাল ইমেজ, দক্ষ সংগঠক, সততা, শিক্ষিত, এমন যোগ্যতা সম্পন্ন প্রার্থীরাই মনোনয়ন দৌড়ে এগিয়ে থাকবেন বলে জানা যায়।

 

বিভিন্ন মিডিয়ার সূত্রে জানা যায়, দলের সভানেত্রী এখন থেকেই প্রত্যেক এলাকার খোজ খবর নেওয়া শুরু করছেন। বর্তমান এমপি-মন্ত্রীদের আমলনামা সংগ্রহ ছাড়াও তিনি সম্ভাব্য মনোনয়ন প্রত্যাশীদের ব্যাপারেও খোজ খবর নিচ্ছেন।

 

কাকে মনোনয়ন দেওয়া হবে কে বাদ পড়বেন এটিও যেমন দেখছেন তেমনি চলমান সংসদের যে সব এমপিরা নেতিবাচক কর্মকান্ডের কারনে আগামী নির্বাচনের ফলাফল কি প্রভাব পড়তে পারে সে বিষয়টিও তিনি পর্যালোচনা করছেন।

 

এদিকে ময়মনসিংহ – ৪ (ময়মনসিংহ-সদর) আসন থেকে আলোচনায় আছেন (স্বাচিপ) মহাসচিব অধ্যাপক ডাঃ এম.এ আজিজ। বাংলাদেশর চিকিৎসা জগতে বিশাল স্থান দখল করে আছেন চরাঞ্চলের কৃর্তি সন্তান অধ্যাপক ডাঃ এম.এ আজিজ।

 

তিনি চিকিৎসার পাশাপাশি রাজনৈতিকভাবেও সুপরিচিত একটি নাম। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বুকে ধারন করে চিকিৎসা ক্ষেত্রেও (স্বাচিপ)-এর মহাসচিব হিসাবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। তিনি সৎ, নিষ্ঠাবান, পরিশ্রমীর জন্য মাননীয় প্রধান মন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার জন্য ও বিশেষ ভুমিকা রাখছেন।

 

বাংলাদেশের প্রাচীনতম আওয়ামীলীগ সংগঠনকে বিভিন্নভাবে বিভিন্ন অঙ্গ-সংগঠনের মাধ্যমে শক্তি সঞ্চার করে ইউনিট সৃষ্টি করে কৌশলে সংগঠনের দৃঢ় শক্তিশালী করার জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন বলে স্থানীয় লোকজন জানান। বিনা পয়সায় চিকিৎসা করার জন্য ময়মনসিংহের সাধারন মানুষ এক নামে চিনে ও জানে এম.এ আজিজের নাম।

 

ময়মনসিংহ সদর আসন জয়ের জন্য চরাঞ্চলবাসীর ভোট অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ কারন প্রতিবার এম.পি নির্বাচনে বিজয়ের মালা ছিনিয়ে আনে ভোটাররা। এই ধারাবাহিকতায় ময়মনসিংহ সদরে আওয়ামীলীগ সরকারের উন্নয়নের হ্যান্ড বিল প্রচার করেন অধ্যাপক ডাঃ এম.এ আজিজ। চরাঞ্চলবাসী ডাঃ এম.এ আজিজ নির্বাচনে দাড়ানোর কথা শুনে আনন্দিত। মোট ভোটের প্রায় বেশী অংশই চরাঞ্চলের । সেই ক্ষেত্রে ডাঃ আজিজ যদি মনোনয়ন পায় তাহলে চরাঞ্চলবাসী জয়ের জন্য সকলেই মিলেমিশে ভোট দিয়ে চরাঞ্চলের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটাতে সক্ষম হবে বলে মন্তব্য করেন স্থানীয় জনগণ।

সরেজমিনে গিয়ে প্রতিবেদন তৈরি করতে সাধারন মানুষের অনুভুতি জানতে চাইলে তারা বলেন, আসলে যারা চরাঞ্চরের সন্তান তারাই বুঝে সাধারন মানুষের কথা। চিকিৎসার পাশাপাশি রাজনৈতিকভাবে ও এগিয়ে আছেন তিনি। বিভিন্ন রাস্তাঘাট, স্কুল-কলেজ, মসজিদ-মাদ্রাসা,এয়াতিমখানা, সামাজিকভাবে উন্নয়নের জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন তিনি। গরীব অসহায় রোগীদের নিজস্ব খরচে বিভিন্ন রোগের চিকিৎসা করা থেকে শুরু করে হাসপাতালেও সুবিধা প্রদানে ও অবধান রয়েছে। চরাঞ্চলের মানুষের গর্ব এবং অহংকার অধ্যাপক ডাঃ এম এ আজিজ। চরাঞ্চলের ভোট ব্যাংকার হিসাবে পরিচিত যাহার নাম তিনি অধ্যাপক ডাঃ এম.এ আজিজ । স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ (স্বাচিপ) এর মহাসচিব হিসাবে সুনামের সহিত দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

দক্ষতা ও সততার মধ্য দিয়ে চরাঞ্চলের পাঁচটি ইউনিয়নের মত নিজের দক্ষতার বলে ময়মনসিংহের সদরের প্রতিটি ইউনিয়ন ও সিটি কর্পোরেশন এলাকার মানুষের মন জয় করেছেন অধ্যাপক ডাঃ এমএ আজিজ। সদর আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা ধারনা পোষন করে অধ্যাপক ডাঃ এমএ আজিজের মাধ্যমেই আওয়ামীলীগের এ আসনটি আওয়ামীলীগের ঘরে আসতে পারে। অন্যথায় নৌকার ঘাঁটি বলে খ্যাত আওয়ামীলীগের এ আসনটি হাত ছাড়া হয়ে যেতে পারে।দেশের উন্নয়নের ধারাকে অব্যাহত রাখার জন্য আবার নৌকা মার্কায় ভোট দিন বলেও এলাকা মানুষের দাবী।

ব্রেকিং নিউজঃ