| |

ময়মনসিংহে মহামায়া কালিমাতা মন্দিরে ভাঙচুর-লুটপাত ও হামলায় পূজা বন্ধু, সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবি

আপডেটঃ ১১:৪৪ পূর্বাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০১৯

Ad

স্টাফ রিপোর্টার: ময়মনসিংহের কেওয়াটখালী শশ্বান সংলগ্ন সার্বজনীন মহামায়া ভূমিহীন কালিমাতা মন্দিরে গত বৃহস্প্রতিবার রাত আনুমানিক ১১ টায় মুক্তিযোদ্ধা পল্লীর আব্দুল হেকিম, সাইফুল, সোহাগ এর নেতৃত্বে মন্দিরের গেইটের তালা ভেঙ্গে স্বরস্বতি মূর্তী এবং ক্যাশবাক্স ভেঙ্গে নগদ অর্থ, থালা বাসন সর্বত্র লোট করে নিয়ে যায়। মন্দিরের গেইট ভাঙ্গার প্রতিবাদ করায় অত্র ভূমিহীন পরিবারের রীনার ৭ বছরের প্রতিবন্ধী ছেলে সালামকেও মারধর করে।

এছাড়াও আবাসনে ঝুমা, আখি, কবিতাকে মারধোর করে এবং মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়। এ ব্যাপারে ময়মনসিংহ কোতোয়লী মডেল থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করলে কোতোয়ালী থানার এস আই জুলফিকার আলী ঘটনার তদন্তে যান। থানায় জিডি করার পরে মহামায়া ভূমিহীনের সভাপতি বাদল সরকার, সাধারন সম্পাদক অমল দত্ত, সহ সভাপতি মো: জামাল উদ্দিনসহ মহিলাদের মুঠোফোনে হুমকি দিয়ে যাচ্ছে।

মুক্তিযোদ্বা পল্লীর আব্দুল হেকিম,রনি, সোহাগ ও সাইফুলের নেতৃত্বে মন্দিরে হামলা চালালেও বীর দর্পে এখন পর্যন্ত মহামায়া ভূমিহীন আবাসনে এরা প্রতিনিয়তই সংখ্যালঘু পরিবারসহ মহামায়া আবাসনের সভাপতি বাদল সরকার, সাধারন সম্পাদক অমল দে, মো: জামাল উদ্দিন কে হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। এখন প্রশ্ন এরা কোন দলের লোক। কার ইন্দনে মন্দির ভাংচুর এবং সরকারী জায়গা দখলের পায়তারা করছে। মন্দির ভাঙ্গার ঘটনায় পূজারিরা পূজা বন্ধ করে রেখেছেন। প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষন করে অবিলম্বে সুষ্ঠ তদন্ত করে দোষীদের আইনের আওতায় আনা হউক।