| |

চাইলেই মন্ত্রী,এমপি হওয়া যায় কিন্তু মোয়াজ্জেম হোসেনের মত রাজনীতিবীদ হওয়া যায় না।

আপডেটঃ 7:14 pm | March 21, 2019

Ad

আলোকিত ডেস্ক: চাইলেই মন্ত্রী,এমপি হওয়া যায় কিন্তু মোয়াজ্জেম হোসেনের মত রাজনীতিবীদ হওয়া যায় না।। যুগের পর যুগ রাজনীতি করে একজন মোয়াজ্জেম হওয়া যায় না। যিনি ১৯৭২ সাল থেকে শুরু করে আজও বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারন করে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার লক্ষে রাঁজপথে আছেন।

দীর্ঘ ৪৬ বছর রাজনৈতিক জীবনে আওয়ামী রাজনীতির জন্য ৯ বার গ্রেপ্তার হয়েছেন এবং ২৫৫৫ দিন প্রায় ৭ বছর জেল খেটেছেন। ময়মনসিংহের আওয়ামী রাজনীতির ইতিহাসে ( এডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল) আওয়ামীলীগের এক উজ্জল নক্ষত্র।

আমরা অনেকেই জানিনা তবে অনেক মন্তব্য করি। একটা কথা বলতে চাই যাদের বয়স এখনো ৪৬ বছর হই নাই, তারাও সংসদ সদস্য এমপি, মন্ত্রী। এডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুলের রাজনীতিক অভিষেক হয় ১৯৭২ সালে সাবেক বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের হাত ধরে, প্রথমে স্কুল ছাত্রলীগের সভাপতি, তার পর শহর ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক,জেলা ছাত্রলীগের সদস্য, আনন্দমোহন কলেজের ভিপি,জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি/সাধারন সম্পাদক, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক, জেলা আওয়ামীলীগরে সাবেক প্রচার সম্পাদক,।

বর্তমান ময়মনসিংহ জেলা আওমীলীগের সাধারন সম্পাদক দায়িত্বে রয়েছেন। কারাজীবন প্রিয় নেতা এড.মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল ভাই. ১৯৭৬ সালে প্রথম কারাবরণ করেন, তারপর ১৯৭৮, ১৯৮২, ১৯৮৭, ১৯৮৮, ১৯৯০, ১৯৯৩, ২০০৩, ২০০৫ সালে গ্রেফতার হন এবং দীর্ঘ সময় কারাবরণ অব্যহত থাকে। ১৯৮৬ সালে জীবন বিপন্ন হওয়ার উপক্রম হলে শেখ হাসিনা’র সরাসরি তত্ত্বাবধানে ভারতে চলে যান। দীর্ঘ সাড়ে ৭ বছর কারাবরণ করার পরও জননেত্রী শেখ হাসিন…

ব্রেকিং নিউজঃ