| |

ঈশ্বরগঞ্জে নির্বাচনী সন্ত্রাসের ফলে আওয়ামী লীগ কার্যালয়সহ বাসা বাড়ি ভাংচুর-নিহত ১

আপডেটঃ 6:35 pm | April 04, 2019

Ad

স্টাফ রিপোর্টার:

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলায় নির্বাচনী সহিংসতায় আহত পথচারী সাখাওয়াত হোসেন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। গতকাল বুধবার সকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সাখাওয়াত মারা যান।

প্রত্যক্ষদশীরা জানায়, গত ২৮ মার্চ রাত সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার রায়ের বাজার বাসস্ট্যান্ড এলাকায় আওয়ামী লীগের উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী মাহমুদ হাসান সুমন এর মিছিলের লোকজন স্বতন্ত্র প্রার্থী বদরুল আলম প্রদীপের সমর্থকদের উপর হামলা চালায়। বদরুলের সমর্থকরা পিছু হটলে সে সময় মাহমুদ হাসান সুমনের নেতৃত্বে মিছিলে থাকা তার ভাই উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক আবুল খায়ের সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে পথচারি সাখাওয়াতের উপর নির্দয় হামলা চালায়। এতে সে শরিরের বিভিন্নস্থানে ও মাথায় মারাত্নক জখমী হয় বলে প্রত্যক্ষদশীরা জানান। আহত অবস্থায় উদ্ধার করে সাখাওয়াতকে প্রথমে ঈশ্বরগঞ্জ ও পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে আরো উন্নত চিকিৎসার জন্য তাঁকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানেই গতকাল তিনি মারা যান। বর্তমানে হাসপাতাল মর্গে তাঁর মরদেহ রাখা হয়েছে। ওসি আহমেদ কবীর হোসেন বলেন, গত ২৮ মার্চের ওই ঘটনার পর সাখাওয়াতের ভাই বরকত উল আলম বাদী হয়ে নয়জনকে আসামি করে একটি মামলা করেন। সে সময় পুলিশ মোস্তাফিজুর রহমান স্বপন ও রবিন নামের দুজনকে গ্রেপ্তার করে। এ ছাড়া আসামিদের মধ্যে চারজন জামিনে মুক্ত ও তিনজন পলাতক রয়েছে বলে ওসি জানান।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা রায়েরবাজার পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোতালেব চৌধুরী জানান, নিহতের ভাই বাদী হয়ে যে মামলাটি করেছিলেন সেটি এখন হত্যা মামলা হিসেবে গণ্য করা হবে।
উল্লেখ্য গত ৩১ মার্চ রাতে মাহমুদ হাসান সুমন জয়ী হবার পর সুমনের নির্দেশে তার ভাই উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক আবুল খায়েরের নেতৃত্বে মারাত্নক অস্রসস্র নিয়ে জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি স্বতন্ত্র প্রার্থী বদরুল আলম প্রদীপের রাজনৈতিক কার্যালয়, বাসা ভাংচুর ও বিভিন্ন দোকান প্রতিষ্ঠানে হামলা করে ব্যাপক লুটপাট করে। এ সময় সন্ত্রাসী দলটি পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক মেয়র হাবিবুর রহমানের অফিস এবং সাবেক সংসদ সদস্য বর্তমানে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের শিল্প ও বানিজ্য বিষায়ক সম্পাদক এর শশুর আব্বাস মড়লের বাড়িতে হামলা ও ভাংচুর করে। এ ব্যপারে থানায় মামলা হয়েছে। তবে মূল হোতা এখনো গ্রেফতার হয়নি।

ব্রেকিং নিউজঃ