| |

ময়মনসিংহ সিটি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী টিটু

আপডেটঃ 4:36 pm | April 05, 2019

Ad

আগামী ৫ মে অনুষ্ঠিত হবে ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের (এমসিসি) নির্বাচন। এ নির্বাচনে ক্লিন ইমেজ, সর্বমহলের গ্রহণযোগ্য প্রার্থী দিতে চায় ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। এ জন্য দলের পক্ষ থেকে মনোনয়ন ফরম বিতরণ ও জমা নেওয়া হয়। মেয়র পদে দলীয় মনোনয়ন পেতে ছয়জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করে জমা দিয়েছেন। তারা নিজ নিজ অবস্থান থেকে জোর লবিং-তদবির চালিয়ে যাচ্ছেন। মেয়র পদে ময়মনসিংহ মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও সিটি করপোরেশনের প্রশাসক ইকরামুল হক টিটুতেই আস্থা রাখছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। আর নির্বাচন উৎসবমুখর করতে ঢাকা সিটি করপোরেশনের মতো সাধারণ কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদ উš§ুক্ত রাখার চিন্তা করছে আওয়ামী লীগ। দলটির স্থানীয় মনোনয়ন বোর্ডের একাধিক সদস্যের সঙ্গে আলাপ করে এসব তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে।

জানা গেছে, আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য প্রার্থীদের মধ্যে জনপ্রিয়তা ও গ্রহণযোগ্যতার দৌড়ে এগিয়ে রয়েছেন ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের বর্তমান প্রশাসক ও মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ইকরামুল হক টিটু। প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠেয় নির্বাচনে তাকেই দেওয়া হচ্ছে দলীয় প্রতীক নৌকা। সম্প্রতি গণভবনে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কয়েকজন নেতার সঙ্গে ময়মনসিংহ সিটি নির্বাচন নিয়ে কথা বলেন। প্রসঙ্গক্রমে তিনি বলেন, বিভিন্ন মাধ্যমে খোঁজ নিয়েছি, সেখানে ইকরামুল হক টিটুর জনপ্রিয়তা অনেক বেশি।’ সেখানে উপস্থিত একজন নেতা  বলেন, প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠেয় ময়মনসিংহ সিটিতে টিটুই দলের প্রার্থী হবেন এটা নিশ্চিত বলা যায়, প্রধানমন্ত্রীর মনোভাব তাই বলে।

জানা গেছে, ইকরামুল হক টিটু পৌর মেয়র ছিলেন। বর্তমানে সিটির প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। ফলে জনপ্রতিনিধি হিসেবে অভিজ্ঞতায় এগিয়ে রয়েছেন তিনি। অন্যদিকে মেয়র পদে নির্বাচন করবেন বলে মাঠও গুছিয়ে নিয়েছেন তিনি। এ প্রসঙ্গে ইকরামুল হক টিটু  বলেন, গত ১১ বছর পৌর মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালনের সময় মানুষের সঙ্গে গভীর একটি সুসর্ম্পক গড়ে তুলেছি। একইভাবে সংগঠনকেও গুছিয়ে নিয়েছি। জননেত্রী শেখ হাসিনার ভিশন ও মিশন বাস্তবায়নে কাজ করেছি।  সিটি হওয়ার পর প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে একটা পরিকল্পনা করেছি। আশা করি দলীয় সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে নৌকা দিলে জনগণের ভোটে বিজয়ী হয়ে সেই পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করব। একটি সুন্দর সিটি উপহার দিতে পারব।

ইকরামুল হক টিটু ছাড়াও এ সিটিতে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশীদের মধ্যে রয়েছেন- মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি এহতেশামুল আলম, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহিত উর রহমান শান্ত, মহানগরের সহ-সভাপতি সাদেক খান মিলক্কী টজু এবং সদস্য একেএম সাজ্জাদ হোসেন শাহীন ও ফারামার্জ আল নুর রাজীব। তারাও জোর তৎপরতা চালাচ্ছেন। নিজেদের পরিকল্পনা তুলে ধরছেন নগরবাসীর কাছে। বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো পুরো সিটি করপোরেশন নির্বাচন ইভিএম (ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন) পদ্ধতিতে সম্পন্ন করতে যাচ্ছে নির্বাচন কমিশন। এতে ১৩০টি কেন্দ্র রয়েছে। ৩৩টি সাধারণ এবং ১১টি সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ড নিয়ে ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশন। মনোনয়ন বিষয়ে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের স্থানীয় মনোনয়ন বোর্ডের সদস্য ও দলটির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ বলেন, মেয়র পদে স্থানীয় নেতাদের কাছে নাম চাওয়া হয়েছে। তারা একক নাম পাঠাতে পারেনি। দলের স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের সভায় দলীয় জরিপ, বিভিন্ন সংস্থার জরিপ পর্যালোচনা করে যাকে গ্রহণযোগ্য বলে মনে করা হবে তাকেই নৌকা প্রতীক তুলে দেওয়া হবে।

ব্রেকিং নিউজঃ