| |

শ্রীলঙ্কা হামলায় বিশ্বনেতাদের নিন্দা

আপডেটঃ ৮:১২ অপরাহ্ণ | এপ্রিল ২২, ২০১৯

Ad

ভয়াবহ আটটি বোমা হামলায় কেঁপেছে শ্রীলঙ্কা। বিশেষ দিনে গির্জা আর হোটেল টার্গেট করে দফায় দফায় এ হামলায় নিহত হয়েছেন এ পর্যন্ত ২০৭ জন। দেশটির প্রেসিডেন্ট এবং প্রধানমন্ত্রীর পাশাপাশি বর্বর এ ঘটনাটিতে তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন বিশ্বনেতারা।

রোববার (২১ এপ্রিল) স্থানীয় সময় সকাল এবং দুপুরে দেশটির রাজধানী কলম্বো ও এর আশপাশের তিন গির্জা, চার অভিজাত হোটেল এবং আরেকটি ভিন্ন জায়গায় দফায় দফায় এ বোমা হামলা হয়।

পরে তাৎক্ষণিক এ ঘটনার নিন্দা এবং তৎপরতা শুরু করেন দেশটির প্রেসিডেন্ট মাইথ্রিপালা সিরিসেনা এবং রনিল বিক্রম সিংহে। এর পরপরই ঘটনাটির তীব্র নিন্দা এবং শোক প্রকাশ করতে শুরু করেন বিশ্ব সম্প্রদায়ের নেতারা।
শ্রীলঙ্কান ঘটনার তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ডোনাল্ড ট্রাম্প:
ঘটনাটির নিন্দা জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারে তিনি বলেছেন, গির্জা ও হোটেলে ভয়াবহ বিস্ফোরণে ব্যাপক নিহত এবং আহত হওয়ার ঘটনাটি একটি সন্ত্রাসী হামলা। যুক্তরাষ্ট্র নিহতদের প্রতি শোক প্রকাশ করছে। একইসঙ্গে শ্রীলঙ্কার কোনো সহায়তায় আমরা প্রস্তুত রয়েছি।

রিসেপ তাইয়্যেব এরদোয়ান:
হামলাটি নিয়ে তাৎক্ষণিক তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেব এরদোয়ান টুইটে বলেছেন, বিশেষ দিনে গির্জায় ভয়াবহ এ সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি আমি। এই হামলা আমাদের সবার মানবিকতাকে আহত করেছে। সব তুর্কির পক্ষ থেকে আমি নিহতদের প্রতি শোক এবং তাদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করছি। একইসঙ্গে আমরা আশা করছি আহতরা খুব দ্রুত সেরে উঠবেন।

টেরিজা মে:
কলম্বো হামলার ব্যাপারে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী টেরিজা মে। তিনি টুইটে বলেছেন, বিশেষ দিনে গির্জা এবং হোটেলে ভয়াবহ এ হামলা উদ্বেগজনক। এ ঘটনায় যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন, তাদের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি। একইসঙ্গে তিনি এমন ঘটনা মোকাবিলায় সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহ্বান জানান।

নরেন্দ্র মোদী:
শ্রীলঙ্কান হামলার নিন্দা জানিয়ে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী টুইটে বলেছেন, আমাদের অঞ্চলে এ ধরনের বর্বতার কোনো স্থান নেই। শ্রীলঙ্কানদের প্রতি সংহতি জানিয়ে যেকোনো প্রয়োজনে তাদের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতিও দিয়েছেন নরেন্দ্র মোদী।

ইমরান খান:
বর্বরোচিত এ হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়ে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান টুইট করে বলেছেন, শ্রীলঙ্কার এ দুঃসময়ে পাকিস্তান তাদের পাশেই রয়েছে।

ভ্লাদিমির পুতিন:
গির্জা এবং হোটেলে ভয়াবহ সিরিজ বোমা হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। শ্রীলঙ্কায় পাঠানো টেলিগ্রামে তিনি বলেছেন, এসব আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে আমাদের অংশীদার শ্রীলঙ্কার পাশে আছে মস্কো।

মার্ক রুট:
এ ঘটনায় টুইট করেছেন নেদারল্যান্ডসের প্রধানমন্ত্রী মার্ক রুট। তিনি বলেছেন, বিশেষ দিনে গির্জা ও হোটেলে ভয়াবহ রক্তাক্ত হামলার খবর পাওয়া গেছে শ্রীলঙ্কায়। এ ঘটনায় নিহতদের প্রতি শোক এবং তাদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি।

স্কট মরিসন:
ঘটনায় নিহতদের প্রতি শোক জানিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসনও। বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, শ্রীলঙ্কানদের পক্ষে আছে অস্ট্রেলিয়া। তাদের প্রয়োজনে সক্ষমতা অনুযায়ী আমরা সহায়তা করে যাবো। এজন্য আমরা প্রস্তুত।

জাসিন্ডা আরর্ডান:
কলম্বো ঘটনার গভীর শোক জানিয়েছেন সম্প্রতি মুসলমানদের ওপর আরেকটি বর্বরোচিত সন্ত্রাসী হামলা কাটিয়ে ওঠা নিউজিল্যান্ড প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরর্ডান। তিনি বলেছেন, গত ১৫ মার্চ নিউজিল্যান্ডে হামলার পর বিশ্ব সম্প্রদায়ের ঐক্য বেড়েছে। কিন্তু শ্রীলঙ্কায় গির্জায় মানুষের ওপর হামলা খুবই দুঃখজনক। এসব মোকাবিলায় আমাদের এক হয়ে কাজ করতে হবে।

জাস্টিন ট্রুডো:
টুইটারে কানাডিয়ান প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, শ্রীলঙ্কা থেকে ভয়ঙ্কর রকমের খবর এসেছে। দেশটির গির্জা এবং হোটেলে এ ধরনের সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছে কানাডা। এ ঘটনায় নিহতদের প্রতি শোক এবং তাদের পরিবার ও আহতদের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন তিনি।

এছাড়া এ ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন বিশ্বের বিভিন্ন দেশের রাজনীতিবিদ, খেলোয়াড়, অভিনেতা-অভিনেত্রীসহ দায়িত্বশীলরা। তারা সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন।