| |

শিমুল হত্যার প্রতিবাদে খুনিদের দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন

আপডেটঃ ৯:১৬ অপরাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ০৮, ২০১৬

Ad

স্টাফ রিপোর্টারঃ ময়মনসিংহের দিঘারকান্দায় ফিরোজ সরকার শিমূল হত্যার প্রতিবাদে এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে খুনিদের অবিলম্বে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবীতে ৮ফেব্রয়ারী দুপুরে কেওয়াটখালীতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে ১৩নং বয়রা ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের সদস্য মো: ইসমাইল হোসেন, ৫নং ওয়ার্ডের সদস্য মো: ওয়াহিদ মিয়া, ৯নং ওয়ার্ডের সদস্য মো: শাহাদাৎ হোসেন, আওয়ামীলীগের সদস্য মো: সাইদুল ইসলাম, ৮নং আকুয়া ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের সদস্য মো: লাল মিয়া লালু, ময়মনসিংহ পৌরসভার প্যানেল মেয়র-৩ মোছা: ইসমত আরা আশা, ২১নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো: মোস্তফা ফারুক, ২১নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি সুনীল নারায়ন,২০নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মো: সিরাজুল ইসলাম, ২০নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি ডা: সোবহান সরকার, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, ময়মনসিংহ মহানগর সেচ্ছাসেবকলীগের যুগ্ন আহবায়ক মো: আব্দুল আওয়াল মিন্টু, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য মো: মঞ্জুর হোসেন রনি সহ এলাকাবাসী উপস্থিত ছিলেন।
শনিবার দিবাগত রাত ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় আয়াস বিন মাহমুদ সোহাগ নামের একজন গুলিবৃদ্ধ এবং ধারালো অস্ত্রের আঘাতে রিনা ও ফাতেমা গুরুতর আহন হন। আহতদেরকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
নিহত শিমুল বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মচারী বলে জানা গেছে। খবর পেয়ে পুলিশ ও র‌্যাব তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে যান এবং নিহতের লাশ উদ্ধার করেন। একাধিক সুত্রে জানা গেছে রনি নামের এক ব্যক্তির সাথে অপর একদলের বিরোধ হলে এ গুলির ঘটনা ঘটে। এতে  বাকৃবি কর্মচারী শিমুল গুলিবৃদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই মৃত্যুবরণ করেন। এ ঘটনা ফিরাতে গিয়ে আয়াস বিন মাহমুদ গুলিবৃদ্ধ হন এবং ধারালো অন্ত্রের আঘাতে রিনা ও ফাতেমা নামের দুই মহিলা গুরুতর আহত হন। আহতদেরকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ব্রেকিং নিউজঃ