| |

ধেয়ে আসছে ফনি: বিপদ এড়াতে যা করবেন

আপডেটঃ ২:২৮ অপরাহ্ণ | মে ০২, ২০১৯

Ad

৪৩ বছর পর সবচেয়ে শক্তিশালী আঘাত নিয়ে হাজির হচ্ছে ফনি। অতিপ্রবল এ ঘূর্ণিঝড় আগামীকাল শুক্রবার বাংলাদেশে আঘাত হানতে পারে বলে আবহাওয়া অধিদফতরের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে।বাংলাদেশ অতিক্রম করার সময় এটির গতি হবে ঘণ্টায় ১৫০ থেকে ১৮০ কিলোমিটার।

আবহাওয়া অধিদফতরের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ফনি বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ১০৬৫ কিমি দক্ষিণ-পশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ১০২৫ কিমি দক্ষিণ-পশ্চিমে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ৯১৫ কিমি দক্ষিণ-পশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ৯২৫ কিমি দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছিল।

ধীরে এগিয়ে এলেও ফনি বেশ শক্তিশালী হয়ে গেছে। এখন তার গতি বেড়ে গেছে। এ কারণে বাংলাদেশের পায়রা ও মোংলা সমুদ্রবন্দরকে সাত নম্বর বিপদসংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।সারাদেশে নৌচলাচল বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।উপকূলীয় এলকায় সতর্ক সংকেত জারি করে সব সরকারি ছুটি বাতিল করা হয়েছে।

ঘূর্ণিঝেড়ের মত পরিস্থিতিতে যে কেউ ঘাবড়ে যাওয়াটা অস্বাভাবিক নয়। তবে এ সময় মাথা ঠাণ্ডা রেখে কিছু বিষয়ে নজর দিলে অনেক বড় দুর্ঘটনা বা বিপদ এড়ানো যায়। ঘূর্ণিঝড়ের মত বিপদে পড়ে গেলে কী করবেন, সে বিষয়ে জরুরি কিছু পরামর্শ দেয়া হল।

# বাড়ির আশেপাশে বড় গাছের শুকিয়ে যাওয়া ডাল থাকলে আগে তা কেটে ফেলুন।

# জোরে বাতাস বয়ে গেলে উড়ে যেতে পারে এমন বস্তু খোলা জায়গা থেকে সরিয়ে ফেলুন। যেমন আলগা হয়ে যাওয়া টিন, ময়লার বাক্স, সাইন বোর্ড ইত্যাদি। কারণ দমকা হাওয়ায় এই সব উড়ে গিয়ে কোনো বিপদ ঘটাতে পারে।

# শোবার ঘর, রান্নাঘর, টয়লেটসহ জরুরি কোনো স্থাপনা মেরামতের প্রয়োজন হলে আগেই সেটা করিয়ে নিন।

# বিদ্যুতের লাইনে কোনো সমস্যা থাকলে তা সারিয়ে ফেলুন।বাড়ির উপর বিদ্যুতের লাইন থাকলে সরিয়ে ফেলুন।

# ঝড় শুরু হয়ে গেলে ঘরের ভেতর ভিমের নিচের জায়গাটা বেছে নিন।

# হাতের সামনে কাঠের বোর্ড রাখুন। কাঠ বিদ্যুৎ অপরিবাহী।

# হ্যারিকেন, মম এবং টর্চ হাতের কাছে রাখুন।কারণ যেকোনো সময় বিদ্যুৎ চলে যেতে পারে।

# ঘূর্ণিঝড়ে ঘরের চালা উড়ে গেলে খাটের নিচে অবস্থান নিন।

# বাড়িতে খাবার মজুদ করে রাখুন। বিশেষ করে মুড়ি চিড়া গুড় এমন নষ্ট না হয় শুকনো খাবার। সব পাত্রে পানীয় জল ভরে রাখুন।

# প্রয়োজনীয় ওষুধ মজুদ ঘরে রাখুন।

# ঝড়ের সময় বাড়িতেই থাকার চেষ্টা করুন। বাড়ির এমন এক জায়গা বেছে নিন যেখানে নির্ভয়ে থাকতে পারবেন।

# ঝড়ের সময় শিশুদের শক্ত করে ধরে রাখবেন। তারা ভয় পেয়ে যেতে পারে।

# কাঁচের জানালা থাকলে আগে থেকে তাতে শক্ত করে বোর্ড জাতীয় কিছু ঝুলিয়ে দিন। না হলে জানলা ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।

# পরিস্থিতির উপর নজর রাখুন। কোনও গুজবে কান দেবেন না।

# সাইক্লোন অ্যালার্ট জারি হলে অন্তত ২৪ ঘণ্টা আগে থেকে সতর্ক থাকুন ।

#সর্বোপরি আতঙ্কগ্রস্ত হওয়া যাবে না। মাথা ঠাণ্ডা রেখে বিপদের মোকাবিলা করতে হবে।

ব্রেকিং নিউজঃ