| |

নিহত শিমুল হত্যা মামলার আসামী স্বপন গ্রেফতার

আপডেটঃ ৯:২৭ অপরাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ০৮, ২০১৬

Ad

স্টাফ রিপোর্টারঃ ময়মনসিংহের দিঘারকান্দায় পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের গুলাগুলিতে নিহত যুবক শিমুলের মা ফিরোজা বেগম বাদী হয়ে ৫ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ৪ জনের নামে একটি হত্যা মামলা দায়ের করার পরে পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত মামলার এজাহার ভুক্ত আসামী স্বপনকে গ্রেফতার করেছে।
ময়মনসিংহের কোতোয়ালী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল ইসলাম জানান ৬ ফ্রেরুয়ারী শনিবার রাত সোয়া ১১টার দিকে সদর উপজেলার দিঘারকান্দা নামক স্থনে রনি তার জেষ্ঠাত ভাই হুমায়ুন কবীর ভুট্রোর কাছে পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে দুই জনের মাঝে তর্ক বির্তক ও হাতাহাতির এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের  মধ্যে গোলা গুলিতে পথচারী বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ডাঃ ফয়েজ’র গাড়ী চালক ফিরোজ সরকার শিমুল নামের এক যুবক  ঘটনাস্থলে মারা যায় এবং গুলিতে বঙ্গ বন্ধু স্মৃতি সংসদ ময়মনসিংহ মহানগর শাখার সেক্রেটারী আয়াত বিন মাহমুদ সোহান গুলিবিদ্ধ হয়। তাদের আর্তচিৎকারে  ফাতেমা বেগম ও  রিনা আক্তার এগিয়ে আসলে তাদের ২ জনকে কুপিয়ে গুরুতর ভাবে আহত করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে নিহত ও আহতদের উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসে ,বর্তমানে হাসপাতালে আয়াত বিন মাহমুদ সোহান, ফাতেমা বেগম ও  রিনা আক্তার চিকিৎসাধীন রয়েছে।
কোতোয়ালী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল ইসলাম জানান এই ঘটনার একদিন পর গত রবিবার নিহত শিমুলের মা ফিরোজা বেগম বাদী হয়ে স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা নূরুল কবির (৫০),তার সহোদর ভাই হুমায়ুন কবীর ওরফে ভুট্রো(৪৬),মানু (৪০),তাদের বোন জামাই স্বপন (৪২) ও শুভ’র নামে কোতোয়ালী মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা নং-২৫(২)১৬ দায়ের করে। কোতোয়ালী মডেল থানার উপ-পরিদর্শক মনিরুল ইসলামকে মামলাটির তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।
মামলাটির দায়িত্বভার পাওয়ার পর তদন্তকারী কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম আসামী গ্রেফতারের জন্য শহরের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ব্যার্থ হয়। অবশেষে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে সোমবার ভোররাতে শহরের ধোপাখোলা থেকে মামলার এজাহার ভুক্ত আসামী স্বপনকে গ্রেফতার করেছে।

ব্রেকিং নিউজঃ