| |

ময়মনসিংহে ডিবির অভিযানে গৌরীপুরের জনি হত্যাকান্ডে গ্রেফতার ১ । রহস্য উদঘাটন

আপডেটঃ ১১:৪৬ অপরাহ্ণ | মে ২১, ২০১৯

Ad

ময়মনসিংহের গৌরিপুরের নুরুজ্জামান জনি হত্যাকান্ডে মোখলেছ নামে একজনকে গ্রেফতার করেছে ডিবি পুলিশ। সে গৌরিপুরের ঝলমল এলাকার আঃ গফুরের ছেলে। তাকে মঙ্গলবার আদালতে পাঠানো হলে সে হত্যার দায় স্বিকার করে জবানবন্দি দিয়েছে। গত ১৭ মে গৌরীপুরের মাওহা ইউনিয়নের নওহাটা পশ্চিম বাজারের সুজনের কম্পিউরের দোকানের জনিকে হত্যার উদ্দেশ্যে উপুযপুরি আঘাত করে ফেলে রাখে। । এ ঘটনায় গৌরীপুর থানায় ১৭ জনের নাম উল্লেখ্য সহ আরো অজ্ঞাতনামা ৫/৭ জন আসামী করে হত্যা মামলা হয়। মামলাটি অধিক গুরুত্বপূর্ণ বিবেচনায় নিয়ে জেলা পুলিশ ডিবি পুলিশকে তদন্তডিভার দেয়। ডিবি পুলিশ গত ২০ মে তদন্তভার প্রাপ্ত হয়ে এসআই মোঃ মনিরুজ্জামানকে তদন্তকারী অফিসার হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয় বলে ডিবির ওসি শাহ কামাল আকন্দ জানান। ডিবির ওসি শাহ কামাল আকন্দ ও মামলার তদন্তকারি কমকতা এসআই মনিরুজ্জামান বলেন, নুরুজ্জামান জনির সাথে একই গ্রামের মাদক ব্যবসায়ী নুর মিয়ার পূর্ব বিরোধ ছিল। এর আগে নিহত নুরুজ্জামান জনি আসামি নূর মিয়াকে মাদক সহ পুলিশের হাতে তুলে দেয়। নূর জামিনে এসে জনিকে হত্যার জন্য বিভিন্ন হুমকি ধামকি প্রদান করে।এতে জনি বাদী হয়ে আসামী নুর এর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। আসামী নূর আক্রোশে গত ১৭ মে গৌরীপুরের মাওহা ইউনিয়নের নওহাটা পশ্চিম বাজারের জনৈক সুজনের কম্পিউরের দোকান ঘর থেকে ডেকে এনে দোকান ঘরের ১০/১৫ হাত দুরে এজাহার নামীয় আসামীসহ অজ্ঞাতনামা ৫/৭ জন আসামীরা নুরুজ্জামান জনিকে এলোপাথারি মারপিট ও ধারালো অস্ত্র দ্বারা গুরুতর আঘাত করে ফেলে পালিয়ে যায়। নুরুজ্জামান জনি বাঁচার জন্য দৌড়ে জনৈক খোকন মিয়ার পুকুরের পাড়ে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে যায়। পরে আশপাশের লোকজন তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে কর্তব্য ডাক্তার জনিকে মৃত ঘোষনা করেন। ওসি শাহ কামাল আকন্দ আরো জানান, এসআই মোঃ মনিরুজ্জামান নারায়গঞ্জ জেলার রূপগঞ্জ থানা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে বরপা এলাকা থেকে আলোচিত এ মামলার ঘটনার সাথে জড়িত অন্যমত আসামী মোখলোছকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামী মামলার ঘটনার সাথে জড়িত আছে বলে স্বেচ্ছায় বিজ্ঞ আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেছে। এছাড়া ময়মনসিংহ পৃথক অভিযানে ২০০ পিস ইয়াবা ও ১৫ গ্রাম হেরোইন সহ চার মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করে। পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হলো রাসেল মিয়া, মঞ্জু মিয়া, অছুম উদ্দিন ওরফে আশরাফুল ও ওয়ানিস মিয়া। তাদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। নান্দাইল পংকরহাটি এলাকা থেকে ডিবির এসআই আলাউদ্দিন ২০০ বিশ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট সহ মাদক ব্যবসায়ী রাসেল মিয়া ও মঞ্জু মিয়াকে এবং এসআই আব্দুল জলিল সংগীয় অফিসার ফোর্সসহ মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে নান্দাইলের জাহাঙ্গীরপুর থেকে ১৫ গ্রাম হেরোইন সহ মাদক ব্যবসায়ী অছুম উদ্দিন ওরফে আশরাফুল ও ওয়ানিছ মিয়াকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃতকে মঙ্গলবার আদালতে পাঠানো হয়েছে।

ব্রেকিং নিউজঃ