| |

বিশ্বকাপের প্রস্তুতি ম্যাচে বাংলাদেশ-ভারতের স্কোয়াড

আপডেটঃ ১২:২০ অপরাহ্ণ | মে ২৮, ২০১৯

Ad

বিশ্বকাপের আগে নিজেদের শেষ প্রস্তুতি ম্যাচে মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ-ভারত। যেকোনো মূল্যে জয় পেতে মরিয়া টিম ইন্ডিয়া। অর্থাৎ ক্ষুধার্ত কোহলি বাহিনীর সামনে টাইগাররা। তবে অনেকটা নির্ভার মাশরাফি ব্রিগেড। মঙ্গলবার কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেন্সে বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে ৩টায় শুরু হবে দুই প্রতিবেশী দলের লড়াই।

বিশ্বকাপে বাংলাদেশের প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচ ছিল পাকিস্তানের বিপক্ষে। তবে বৃষ্টির কারণে পরিত্যক্ত হয় সেটি। ফলে ইংলিশ কন্ডিশনে মূল মঞ্চের লড়াইয়ে নামার আগে এখনও ম্যাচ প্রস্তুতি নেয়া হয়নি টাইগারদের। ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়েই তাই বিশ্বকাপের আগে শেষ প্রস্তুতিটা সারতে চাইছেন তারা।

ত্রিদেশীয় সিরিজে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়ে ইংল্যান্ডে পা রেখেছে বাংলাদেশ দল। বিশ্বকাপের আগে নিজেদের আরেকটু ঝালিয়ে নিতে মুখিয়ে আছেন দলের ক্রিকেটাররা। পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচটি পরিত্যক্ত হওয়ায় হতাশ ছিলেন তারা। টাইগারদের লক্ষ্য টিম ইন্ডিয়ার বিপক্ষে ভালো পারফরম্যান্স করে আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে নেয়া।

সোমবার ম্যাচপূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে এসেছিলেন বাংলাদেশ পেস অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। তিনি বলেন, কাল (আজ) একটা প্রস্তুতি ম্যাচ আছে। বৈশ্বিক টুর্নামেন্টের আগে এটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ। নিজেদের পরখ নেয়ার আরেকটা সুযোগ। সবচেয়ে বড় কথা প্রতিটা ম্যাচই গুরুত্বপূর্ণ। জয়ের কোনো বিকল্প নেই।

প্রস্তুতিটা ভালো হয়নি ভারতেরও। নিজেদের প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের কাছে ৬ উইকেটে হেরেছে কোহলি বাহিনী। বাংলাদেশের বিপক্ষে ভালো পারফরম্যান্স দেখাতে মুখিয়ে তারা। গেল ম্যাচে একেবারেই ম্লান ছিলেন ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা। কোহলি, রোহিত, ধাওয়ান- টপঅর্ডারের কেউই রান পাননি। বিশ্বমঞ্চে হাঁটার আগে প্রস্তুতি নেয়ার এটা তাদের শেষ সুযোগ। স্বাভাবিকভাবেই ক্ষুধার্ত মেন ইন ব্লুরা।

বাংলাদেশকে এ ম্যাচে ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের তোপের মুখে পড়তে হতে পারে। কঠিন পরীক্ষা দিতে হতে পারে লাল-সবুজ জার্সিধারী বোলারদের। অবশ্য শেষ সুযোগটা কাজে লাগাতে চায় বাংলাদেশও। টাইগার ব্যাটসম্যানরা নানা নিরীক্ষা চালাতে পারে প্রতিপক্ষ বোলারদের ওপর। সব মিলিয়ে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের প্রত্যাশা করছেন উভয় দেশের ক্রিকেটপ্রেমীরা।

বাংলাদেশ স্কোয়াড

মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান (সহঅধিনায়ক), তামিম ইকবাল, লিটন দাস, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোহাম্মদ মিঠুন, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, মুশফিকুর রহিম (উইকেটরক্ষক), মোস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন, সাব্বির রহমান, আবু জায়েদ রাহী, সৌম্য সরকার ও মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত।

ভারত স্কোয়াড

বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), রোহিত শর্মা (সহঅধিনায়ক), শেখর ধাওয়ান, মহেন্দ্র সিং ধোনি (উইকেটরক্ষক), দীনেশ কার্তিক, বিজয় শঙ্কর, লোকেশ রাহুল, কেদার যাদব, হার্দিক পাণ্ডিয়া, জাসপ্রিত বুমরাহ, ভুবনেশ্বর কুমার, মোহাম্মদ সামি, রবীন্দ্র জাদেজা, কুলদীপ যাদব ও যুগবেন্দ্র চাহাল।

তথ্যসূত্র: ক্রিকট্র্যাকার