| |

ময়মনসিংহ শহর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি অস্র সহ চাদাবাজী মামলায় গ্রেফতার, তিন দিনের রিমান্ড

আপডেটঃ ১১:৪৯ অপরাহ্ণ | মে ৩১, ২০১৯

Ad

স্টাফ রিপোর্টার: ময়মনসিংহ জেলা যুবলীগ সদস্য রেজাউল করিম রাসেল হত্যা মামলার আসামী শহর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আরিফকে বৃহস্পতিবার অস্ত্র ও গুলিসহ গ্রেফতার করেছে ময়মনসিংহ ডিবি পুলিশের একটি দল। তাকে শুক্রবার চাঁদাবাজি ও অস্ত্র মামলায় আদালতে পাঠানো হলো আদালত তাকে তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন বলে ডিবির ওসি শাহ কামাল আকন্দ জানান।

মামলা সুত্রে জানা গেছে, জেলা যুবলীগ সদস্য রেজাউল করিম রাসেল হত্যা মামলায় আরিফকে প্রধান করে মামলা দায়ের হয়। এ মামলায় আরিফ উচ্চ আদালত থেকে আগাম জামিনে আসে। এর আগে ময়মনসিংহ সদর সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসে দলিল লেখকদের উপর চাঁদাবাজির অভিযোগে দলিল লেখক মোঃ আবু হানিফ কোতোয়ালী মডেল থানায় ২৭/০৫/১৯ ইং তারিখে ১১৩ নং মামলা দায়ের করে। মামলায় তিনজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। চাদাবাজির এ মামলায় শুক্রবার পুলিশ আরিফকে শহরের জিরো পয়েন্ট এলাকা থেকে একটি বিদেশী অস্ত্র, চার রাউন্ড গুলি ও ম্যাগজিনসহ গ্রেফতার করে। অস্ত্র ও গুলি উদ্ধারের ঘটনায় পুলিশ আরিফের বিরুদ্ধে আরেকটি মামলা নং ১৩৭ তাং-৩১/০৫/১৯ ইং দায়ের করেন।

শুক্রবার পৃথক মামলায় পুলিশ রিমান্ড আবেদনসহ আরিফকে আদালতে প্রেরণ করলে আদালত তাকে চাঁদাবাজির মামলায় একদিন ও অস্ত্র মামলায় দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

উল্লেখ্য বহুদিন ধরেই সদর সাব রেজিষ্ট্রি অফিসে চাঁদাবাজি হয়ে আসছে একদল সশস্ত্র সন্ত্রাসী কর্তৃক। চাঁদা না দিলে মারধর এমনকি হত্যা করে লাশ গুমের হুমকি দেয়া হতো। সর্বশেষ গত ২৭/৫/১৯ ইং তারিখে চাঁদা দাবী করলে চাঁদা না দেয়ায় মারতে এগিয়ে যায় সন্ত্রাসী চাঁদাবাজরা। খবর পেয়ে ডিবির ওসি’র নেতৃত্বে পুলিশ দল ছুটে আসে এবং ঘটনাস্থল থেকে মাকতুম হোসাইন, মহিউল আউয়াল রানা ও রাকিবুল আলমকে গ্রেফতার করে। অন্যরা পালিয়ে যায়। এব্যাপারে চিহ্নিত ১১ জন ও অজ্ঞাত ২০/২৫ জনের বিরুদ্ধে কোতোয়ালী থানায় ওই দিনেই ১১৩ নং মামলটি হয়।