| |

মুক্তাগাছার পর ফুলবাড়িয়া রোডে বিআরটিসি বাস চালুর দাবী

আপডেটঃ 6:06 pm | June 25, 2019

Ad

স্টাফ রিপোর্টার: ময়মনসিংহ মুক্তাগাছা রোডে যাত্রী চলাচলে সমস্যা নিরসনে বিআরটিসির বাস চলাচল শুরু হয়েছে। এ রোডের যাত্রীরা সরকারের এ সিদ্ধান্তে স্বাগত জানিয়েছে। এ রোডের মত আরো একটি রোড সেই রোডটির নাম ময়মনসিংহ ফুলবাড়িয়া রোড। এ রোডে কোন বাস সাভিস নেই। ২০ কিলোর এ রোডে সিএনজি বড়বিলা আর দুচারটে মাহিন্দ্রই চলাচলের একমাত্র ভরসা। এছাড়াও আলম এশিয়া নামের বড় বাস ঢাকা ফুলবাড়িয়া রোডে চলে। সবশেষ কথা হলো এসব যানবাহন বিশেষ করে ছোটযান সিএনজি মাহিন্দ্র বড়বিলা মানুষের পেকট কেটে ভাড়া নিচ্ছে। কথা বললে চালকদের সাথে যাত্রির বাক বিতন্ডা এমনকি মাঝে মধ্যে শারীরিক নাজেহাল। একইসাথে এ সব ছোটযান সিএনজি মাহিন্দ্র বড়বিলা পরিবহনে সামান্য অজুহাতে বাড়তি ভাড়া আদায় করছেই। বিশেষ কোন দিন বা মৌসুম এলে ওরা হয় রাস্তার রাজা। কেউ থাকেনা তদারকিতে। গত রমজানের ঈদের কযেকদিন আগে থেকে ওদের চালকের চাহিদা মত ভাড়া আদায় করে। চলে ঈদের পাচদিন আগে থেকে পরবর্তী আরো পাচদিন। এভাবে প্রতিটি সিএনজি মাহিন্দ্র ও বড়বিলা এ সব মৌসুমগুলোতে যাতীদের পকেট থেকে প্রতিদিন দুই থেকে তিন হাজার টাকা লুটে নিচ্ছেন। এভাবে শুধুমাত্র গত রমজানের ঈদ মৌসুমের দশদিনে প্রায় কোটি টাকা লুটে নিয়েছে। যা প্রশাসন থেকে শুরু করে যানবাহন মালিক, শ্রমিক, মালিক ও শ্রমিক নেতাদের পকেটে গেছে। তবে ঈদ মৌসুমগুলোতে যান চলাচলে যানজট নিরসনের কাজে মাঠে প্রশাসন ব্যস্ত থাকলেও যাত্রীদের পকেট লুট, অতিরিক্ত ভাড়া আদায় নিয়ে তারা কোন তাজ করেনি। মাঠে খোজ নিয়ে পাওয়া তথ্যমতে, এ সব ছোটযানের রাস্তায় চলাচলের কোন বৈধতা নেই। এরপরও প্রশাসন ম্যানেজ করেই চলছে। এ সব থেকে ফুলবাড়িয়া ময়মনসিংহ রোডের যাত্রীরা মুক্তি চেয়ে এই রোডে বিআরটিসির বাস চালুর দাবি করেছেন।

ব্রেকিং নিউজঃ