| |

গণমাধ্যমের বিকাশ ঘটেছে প্রধানমন্ত্রীর হাতেই : তথ্যমন্ত্রী

আপডেটঃ ৭:৩৪ অপরাহ্ণ | জুলাই ২৯, ২০১৯

Ad

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরেই বাংলাদেশে গণমাধ্যমের বিকাশ হয়েছে। বাংলাদেশে গণমাধ্যমের ব্যাপক বিস্তৃতি ঘটেছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের সময়ে। তিনিই প্রথম এদেশে বেসরকারি টিভি চ্যানেলের অনুমোদন দিয়েছেন।

্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরেই বাংলাদেশে গণমাধ্যমের বিকাশ হয়েছে। বাংলাদেশে গণমাধ্যমের ব্যাপক বিস্তৃতি ঘটেছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের সময়ে। তিনিই প্রথম এদেশে বেসরকারি টিভি চ্যানেলের অনুমোদন দিয়েছেন।

আজ সোমবার মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরামের (বিএসআরএফ) নবনির্বাচিত নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় এ কথা বলেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

গণমাধ্যম সমাজের দর্পণ উল্লেখ করে হাছান মাহমুদ বলেন, বাংলাদেশ গণমাধ্যমের পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ব্যাপক বিস্তার ঘটেছে। সমাজ যাতে সঠিক ভাবে প্রবাহিত হয় এবং রাষ্ট্রগঠনে গণমাধ্যমের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। গণমাধ্যম সমাজের দর্পণ হিসেবে কাজ করছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচারের বিরুদ্ধে সরকারের সঙ্গে গণম্যধ্যমের কর্মীদের এক হয়ে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম আন এডিটেড প্ল্যাটফর্ম।

ফলে এখানে যেসব সংবাদ প্রকাশিত হয়, এসব সংবাদ অনেক সময় অস্থিরতা তৈরি করে, সামাজিক বন্ধন নষ্ট করে, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিকে বিনষ্ট করে। তিনি বলেন, সংবাদপত্রগুলো এডিটিং প্ল্যাটফর্ম বলে সেখানে ভুল কম হয়। এ কারণে সাংবাদিকদের উচিত হবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচারের বিরুদ্ধে সরকারের সঙ্গে এক হয়ে কাজ করা।

তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান বলেন, একটি কুচক্রি মহল সরকারকে বেকায়দার ফেলতে নানা ভাবে গুজব ছড়াচ্ছে। যারা স্বাধীনতা বিশ্বাস করে না, দেশের উন্নয়ন চায় না, সরকার যাতে দেশের মানুষের জন্য ভালোভাবে কাজ করতে না পারে তাই তারা এই ধরনের অপপ্রচার চালাচ্ছে। মতবিনিময় সভায় তথ্য সচিব আবদুল মালেক, প্রধান তথ্য কর্মকর্তা সুরথ কুমার সরকার, সংগঠনের সভাপতি তপন বিশ্বাস, সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমেদসহ কার্যনির্বাহী কমিটির নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

ব্রেকিং নিউজঃ