| |

ময়মনসিংহে আওয়ামীলীগের ১৬ নেতাকে শোকজ

আপডেটঃ ১২:৩৫ পূর্বাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৯

Ad

স্টাফ রিপোর্টার : ময়মনসিংহে আওয়ামীলীগের ১৬ নেতাকে শোকজ করেছে কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগ। উপজেলা নির্বাচনে বিদ্রোহ ও বিদ্রোহী প্রার্থীদের মদদ দেয়ার কারণে ময়মনসিংহ বিভাগের ১৬ আওয়ামীলীগ নেতাসহ সারাদেশের ১৫০ জন নেতাকে শোকজ করতে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ। এ তালিকায় মন্ত্রী, এমপি ও দলটির প্রভাবশালী নেতাও আছেন। আজ থেকে তাদেরকে চিঠি দেয়া হবে। রেজিস্ট্রি ডাকযোগে পাঠানো এই চিঠির জবাব দিতে হবে তিন সপ্তাহের মধ্যে।

ময়মনসিংহ বিভাগের যেসব নেতাকে শোকজ করা হচ্ছে তাদের নাম হলো-

ময়মনসিংহ জেলার হালুয়াঘাটে উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা কবিরুল ইসলাম বেগ। ধোবাউড়ায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য অ্যাড. হাবিবুর রহমান। ফুলপুরে পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউল করিম রাসেল। গৌরীপুর উপজেলায় উপজেলা আওয়ামী লীগের শ্রমবিষয়ক সম্পাদক আলী আহাম্মদ খান পাঠান সেলভী।

জামালপুরের ইসলামপুরে জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি জিয়াউল হক ও দেওয়ানগঞ্জে উপজেলা আওয়ামী লীগের কৃষিবিষয়ক সম্পাদক সোলাইমান হোসেন।

নেত্রকোনা জেলার বারহাট্টায় জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মাইনুল হক কাসেম, দুর্গাপুরে উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য সাইদুল হোসেন আকুঞ্জি, কামাল পাশা, কলমাকান্দায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ফজলুল হক ফজলু, মদনে উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ইফতেখার আলম খান চৌধুরী।

শেরপুর জেলার নালিতাবাড়ীতে আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোকছেদুর রহমান লেবু ও নালিতাবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য গোলাম ফারুক, নকলা উপজেলায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ্ মো. বোরহান উদ্দিন, শ্রীবরদী উপজেলা নির্বাচনে জেলা আওয়ামী লীগ সদস্য এডিএম শহিদুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আবদুল মতিন।

শনিবার আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের এই তথ্য জানান। তিনি বলেন, উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে যারা বিদ্রোহী ছিলেন, তাদের শোকজের সিদ্ধান্ত আগে থেকেই ছিল। ১৫০ জনের মতো নেতাকে শোকজ নোটিশ ইস্যু করা হবে। শোকজের জবাবের জন্য তিন সপ্তাহ সময় দেয়া হবে।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, এমপি-মন্ত্রী যারা মদদদাতা, তাদেরও শোকজ করা হবে। তবে তাদের নাম প্রকাশ করতে চাননি ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, মদদদাতাদের মধ্যে কেন্দ্রীয় নেতাও থাকতে পারেন। যাদের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ও মদদ দেয়ার অভিযোগ আছে, তারা সবাই শোকজ চিঠি পাবেন।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, ১৫ দিনের সময় দিয়ে অভিযুক্ত বরাবর শোকজ চিঠি পাঠানো হবে। চিঠিতে ‘কেন স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হবে না’, তা-ও জানতে চাওয়া হবে। জবাব সন্তোষজনক না হলে দলীয় পদসহ স্থায়ী বহিষ্কার হবেন অভিযুক্ত নেতারা।

তবে মন্ত্রী-এমপিসহ প্রভাবশালী নেতাদের মধ্যে যাদের শোকজ করা হচ্ছে তাদের নাম জানা যায়নি।

ব্রেকিং নিউজঃ