| |

ভালুকায় মাদক ব্যাবসায়ীর অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে এলাকাবাসির বিক্ষোভ থানায় অভিযোগ

আপডেটঃ ৩:৫১ অপরাহ্ণ | নভেম্বর ০৯, ২০১৯

Ad

ভালুকা(ময়মনসিংহ)প্রতিনিধিঃ ভালুকা পৌরসভার ৯ নং ওয়ারর্ডের বাসিন্দারা রিপন ও তার পরিবারের লোকজনের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে থানায় উপস্থিত হয়ে গণসাক্ষরিত অভিযোগ দায়ের করেন। পরে ঐ দিনই রিপনকে আটক করে পুলিশ। অভিযোগে জানা যায় ৯ নং ওয়ার্ডের মৃত মোছলেম উদ্দিনের ছেলে রিপন মিয়া, তার মা নাজমা আক্তার (আনার) ও তার বোন তাবাসুম শিশির খারাপ প্রকৃতির লোক। রিপন একজন মাদক সেবি এবং মাদক ব্যবসায়ী। সে এলাকার ভারাটিয়া ও বিভিন্ন মিলের শ্রমিকদের নানা ভাবে ভয় ভিতি দেখিয়ে টাকা হাতিয়ে নেয়। টাকা দিতে না চাইলে মারধর করে। সে এলাকায় বিভিন্ন সময় ছিনতাই করে। এদিকে রিপনের মা নাজমা আক্তার এলাকার অসহায় মানুষের নামে বিভিন্ন মিথ্যা দিয়ে হয়রানি করে বলে অভিযোগ ভুক্ত ভুগিদের। তারই মেয়ে তাবাসুম শিশির বিভিন্ন ছেলেদের সাথে প্রেমের অভিনয় করে মোটা অংকের টাকা কাবিন দিয়ে বিয়ে বসে এবং কিছুদিন পরই স্বামীর নামে মামলা করে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেয় বলে জানিয়েছে এলাকাবাসি। অপরদিকে পল্লি বিদ্যুতের ঠিকাদার নজরুল ইসলাম বলেন, আমার বাসার বিল্ডিং নির্মান করার সময় রিপন আমার বিল্ডিংয়ের রড সহ বিভিন্ন ধরনের মালামাল চুরি করে নিয়ে যায়। রিপন ও তার পরিবারের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে এলাকাবাসি এ বিক্ষোভ মিছিলের আয়োজন করেছে। ভারাটিয়া ফল বিক্রেতা রেজাউল করিম জানান, রিপন তার দুই সহযোগী নিয়ে আমার বাসায় আমাকে জিম্মি করে রেখেছিলো। সেখান থেকে ৯৯৯ নাম্বারে কল করে আমি কৌশলে পালিয়ে এসে থানায় অভিযোগ করি। তাবাসুম শিশির জানান, আমার মামাদের সাথে আমার মায়ের ওয়ারিশান জমি নিয়ে বিরোধ রয়েছে। তারা কয়েকদিন পূর্বে আমার খালাতো ভাই জুয়েলের উপর হামলা করে তার মোটর সাইকেল ভাংচুর করে উল্টো আমার বাবা ও জুয়েল সহ ৪ জনের নামে মামলা করে। যারা থানায় এসে আমাদের কিরুদ্বে অভিযোগ করেছে তাদের মাঝে অধীকাংশ লোক ভারাটিয়া এদেরকে ব্যবহার করা হচ্ছে।

ব্রেকিং নিউজঃ