| |

বাকৃবি ভর্তি পরীক্ষার ব্যবস্থাপনা দেখে মুগ্ধ পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকবৃন্দ

আপডেটঃ 10:55 pm | November 30, 2019

Ad

অদ্য ৩০ নভেম্বর’১৯ বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার সার্বিক ব্যবস্থাপনায় মুগদ্ধ পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকবৃন্দ।

পরীক্ষা শেষে বাড়ী ফেরার পথে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার সার্বিক ব্যবস্থাপনার ও অতিথি পরায়নতার উপর সন্তুষ্টি প্রকাশ করে অভিভাবকবৃন্দ বলেন, মনে হলো আমরা যেন কোন এক আত্মীয়র বাড়িতে বেড়াতে এসেছিলাম।

ব্রহ্মপুত্রের তীর ঘেঁষে ময়মনসিংহের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত উপমহাদেশেরে ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা অতিথি পরায়নতা ও উৎসবমুখর পরিবেশে অনুষ্ঠিত হলো।

১২০০ আসনের বিপরীতে ১২৩৬৮জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে দেশে প্রথমবারের মতো ৭টি কৃষি ও কৃষি বিষয়ক বিশ্ববিদ্যালয়ের সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

ভর্তি পরীক্ষা উপলক্ষে বাকৃবিকে সাজানো হয়েছে নতুন রুপে। ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের সাহায্য-সহযোগিতায় প্রতিটি পয়েন্টে বসানো হয়েছে হেল্প ডেক্স। যেকোন অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতি মোকাবেলায় তৎপর রয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তাকর্মীসহ আইন শৃঙ্খলা বাহিনী ও ছাত্রলীগসহ শিক্ষক সমিতি, অফিসা’র পরিষদ, ৩য় ও ৪র্থ শ্রেণীর কর্মচারী ও কারিগরি পরিষদ।

প্রথমবারের মতো বিশাল পরিসরে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেওয়া পরীক্ষার্থীদের সহযোগিতায় মাঠে রয়েছে ময়মনসিংহ হেল্পলাইন। ময়মনসিংহের তথ্য-উপাত্তের সংগ্রহশালা খ্যাত অনলাইন গ্রুপের সমন্বয়ে গঠন করা হয়েছে বিশেষ স্বেচ্ছাসেবী টিম।

জানা যায়, হেল্পলাইনের ব্যানারে মোট ৭টি পয়েন্টে প্রায় শতাধিক ভলান্টিয়ার কাজ করে । ভলান্টিয়াররা “May I Help You” লেখা সম্বলিত সাদা টি শার্ট পড়ে সেবা দেয়।

এছাড়া ময়মনসিংহকে পজিটিভভাবে উপস্থাপনের জন্য কাজ করা এই গ্রুপটি বিগত কয়েকদিন যাবত তথ্য সরবরাহ করে এ ব্যাপারে।

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. লুৎফুল হাসানের সার্বিক তত্ত্বাবধানে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি, অফিসার’স পরিষদ, ৩য় ও ৪র্থ শ্রেনী কর্মচারি পরিষদ স্ব-স্ব ক্ষেত্রে সুষ্ঠ সুন্দর পরিবেশে শতভাগ নিরাপত্তা নিশ্চিতের লক্ষ্যে নিরলস পরিশ্রম করে বিচ্ছিন্ন কোন অঘটন ছাড়াই একটি চমৎকার ভর্তি পরীক্ষার নজির স্থাপন করেন।

বলেন্টিয়ার-স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে সহযোগিতা করেন বা.কৃ.বি’র চারপাশের স্থানীয় এলাকার লোকজন।

ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোঃ ইকরামুল হক টিটু শিক্ষার্থীদের যাতায়াতের সুবিধার জন্য ২টি বাস, ৫০০০ পিস খাবার পানির বোতল প্রদান করেন।

মোঃ আব্দুর রহিম মিন্টু’র নেতৃত্বে জেলা কৃষকলীগের নেতৃবৃন্দ ও একেএম ফখরুল আলম বাপ্পী চৌধুরীর নেতৃত্বে ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাব-এর নেতৃবৃন্দ সংবাদ সংগ্রহের পাশাপাশি স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে কাজে সহযোগিতা করেন। পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকদের জন্য হালকা খাবার, ৫০০ বোতল খাবার পানি, বমি ও গ্যাস্টিকের ঔষধসহ প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা প্রদান করেন।

৩য় শ্রেনী কর্মচারী পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মোঃ মোশারফ হোসেনের নেতৃত্বে দুই দিন ব্যাপী বা.কৃ.বি’র বিভিন্ন রাস্তা-ঘাট পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করেন। অভিভাবকদের বসার জন্য বৃক্ষতলে ৮০০ (আটশত) চেয়ারের ব্যবস্থা করেছিলেন।

নিরাপত্তা বাহিনীর পাশাপাশি ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দের একটি বিশেষ টিম সম্পূর্ণ ক্যাম্পাসের নিরাপত্তার স্বার্থে সার্বক্ষণিক টহলরত ছিল। অভিভাবকদের জন্য খাবার পানি, ঔষধ ও প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা প্রদান করেন।

আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী’র যথাযথ দায়িত্ব পালনে সর্বমহলে প্রশংসিত হয়।পরীক্ষা শেষে বাড়ী ফেরার পথে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার সার্বিক ব্যবস্থাপনার ও অতিথি পরায়নতার উপর সন্তুষ্টি প্রকাশ করে বলেন, “মনে হলো আমরা যেন কোন এক আত্মীয়র বাড়িতে বেড়াতে এসেছিলাম”।

ব্রেকিং নিউজঃ