| |

তারকাদের তারকা শেখ হাসিনা

আপডেটঃ 5:03 pm | December 07, 2019

Ad

বিশ্বের ব্যস্ততম এক রাষ্ট্রনায়ক বেহালা বাজাচ্ছেন আর নামকরা তারকা, রাষ্ট্রনায়ক, সূধীরা গভীর আগ্রহে শুনছেন। পরনে তাঁর জামদানী শাড়ী। তিনি কে ? প্রখ্যাত বেহালা শিল্পী মিরী বেন-আরির কাছ থেকেই না হয় জানি তাঁর সম্পর্কে।

জহুরী যেমন হীরা চিনে, শিল্পী তেমনি সংস্কৃতি প্রেমি কে ঠিক চিনে। মিরী বেন-আরি বলেন- ১৯ সেপ্টম্বর ২০১৬, শিল্পী জীবনে আমার সন্মানের দিন। কারণ সেদিন বিশ্ব রাজনীতির একজন তারকাকে বেহালার সুর শোনানোর সৌভাগ্য হয়। তিনি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী, হার এক্সেলেন্সি শেখ হাসিনা। জাতিসংঘের এসডিজি’র বার্ষিকী অনুষ্ঠানে বিশ্ব সংগঠন অব গভর্নেন্স অ্যান্ড কম্পিটিটিভেসিটি আর্ট এক্সবিবিশন এবং ফ্যাশন ফর ডেভেলপমেন্টের উদ্বোধনের জন্য উচ্চ পর্যায়ের রিসেপশন ছিল। উপস্থিত বিশ্বের রাষ্ট্রনায়ক, শিল্পী তারকা ও সূধীগণের মধ্যে উজ্জল নক্ষত্রটি হলেন শেখ হাসিনা।

ইতিপূর্বে জাতিসংঘের দক্ষিণ সাউথ অ্যাওয়ার্ডস অনুষ্ঠানে তাঁর সঙ্গে পরিচিত হওয়ার সুযোগ হয়। তখন বেহালাটি হাতে নিয়ে আমার দিকে তাকিয়ে হেসে ছিলেন। তাঁর স্নেহের হাসি আজও চোখে ভাসে। পরিচয় পাই তাঁর সংস্কৃতিমনা আত্মার। পরে খোঁজ নিয়ে জানতে পারি বেহালার সঙ্গে তাঁর বন্ধন সেই শৈসব থেকে। এই অনুষ্ঠানটির এক পর্যায় ব্যস্ত প্রধানমন্ত্রী চলে যাচ্ছিল আর তখন আমি পারফর্ম করার জন্যে মঞ্চে যাচ্ছি। তাঁর সঙ্গে দেখা হওয়া মাত্র আমি সুযোগটি হাত ছাড়া করতে চাইনি। অনুরোধ করি তাকে আমার বেহালার পারফর্ম শোনার জন্য। তিনি অনুরোধের রাখলেন।

দুটি গান আসল সুরে বেহালায় উপস্থাপন করি: “ব্রাদারহুডের সিম্ফনি” ডাঃ মার্টিন লুথার কিং জুনিয়রের উদ্দেশ্যে ও “ফ্রিডম” নেলসন ম্যান্ডেলার জন্য। অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণে খুব সম্মানিত হলাম, কারণ বিশেষ অতিথি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অনুষ্ঠান উপভোগ করলেন। পারফর্ম শেষে তাঁর কাছে ছুটে যাই আশির্বাদের জন্য। তিনি স্নেহের পরশে আমার হাত ধরে প্রশংসা করলেন। আমি তাঁর কাছে কৃতজ্ঞ। শিল্প কলার প্রতি তাঁর প্রেম, শ্রদ্ধা আগে শুনেছি। আজ দেখার সৌভাগ্য হলো। সত্যিই তিনি তারকাদের তারকা।

প্রখ্যাত বেহালা শিল্পী মিরী বেন-আরির কথার সঙ্গে মনে পরে বঙ্গবন্ধু কন্যা এক অনুষ্ঠানে শৈশবের স্মৃতিচারণ করে বলেছিলেন, আমাদের বাড়ির পরিবেশটাই ছিল অন্যরকম। বইপড়া, কবিতা আবৃত্তি বা সঙ্গীত চর্চা- একটা সাংস্কৃতিক আবহ বিরাজ করতো বাড়িতে। আমার ছোটবোন শেখ রেহানা গান শিখতো ছায়ানটে, আমি নিজে বেহালা বাজানো শেখার চেষ্টা করেছিলাম কিছুকাল, ছোটভাই শেখ কামাল গিটার বাজাতো। আমরা ভাইবোনেরা সবাই কোনো না কোনো সাংস্কৃতিক কাজে জড়িত ছিলাম।

একজন শেখ হাসিনা তাঁর আকা ছবি, রান্না যেমন প্রশংসনীয় তেমনি তাঁর রবীন্দ্র সংগীত প্রীতি, কবিতা সাহিত্য লেখাও প্রশংসনীয় আর বেহালায় সুরের মুর্ছনাও হয়তো শুনতে পারবো একদিন। মানবীক রাষ্ট্রপ্রধান হওয়ার পিছনে তাঁর সাংস্কৃতিক মনই হয়তো কাজ করে। তিনি অনন্যা, সত্যিই তিনি তারকাদের তারকা।

ব্রেকিং নিউজঃ