| |

ফুলবাড়ীয়ার শিক্ষক বীর মুক্তিযোদ্ধা ওসমান গণির উপর বর্বরোচিত হামলা ঃ হামলাকারীদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে ডিসি ও এসপি’র কাছে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের স্মারকলিপি

আপডেটঃ ১:১০ পূর্বাহ্ণ | ডিসেম্বর ০৮, ২০১৯

Ad

ইব্রাহিম মুকুট: ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়া উপজেলাধীন রাধাকানাই ইউনিয়নের জবরদস্তা গ্রামের বাসিন্দা রাধাকানাই উচ্চ বিদ্যালয়ের উচ্চ বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ৮৬ বছর বয়সী বৃদ্ধ বীর মুক্তিযোদ্ধা ওসমান গণি চৌধুরী উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে ও হামলাকারী দুর্বৃত্তদের গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ কেন্দ্রিয় কমিটি ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার বরাবরে গতকাল ৫ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার দুপুরে এক স্মারকলিপি প্রদান করেছেন।

জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার এ স্মারক লিপি গ্রহণ করেন এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস প্রদান করেন।স্মারকলিপিতে স্বাক্ষর করেন মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের কেন্দ্রিয় কমিটির সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলবুল।

এ সময় তার সাথে কেন্দ্রিয় ছাত্রলীগের সহসভাপতি সোহেল রানাসহ বিভিন্ন পর্যায়ের বিপুল সংখ্যক প্রতিবাদী মানুষ উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য রাধাকানাইয়ের জবরদস্তা গ্রামে ২০১৮ সালে নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে গিয়ে স্থানীয় ইউপি মেম্বার মোফাজ্জল হোসেন তার বাহিনী নিয়ে ব্যাপক চাঁদাবাজী শুরু করে। চাঁদাবাজী বন্ধের জন্য বীর মুক্তিযোদ্ধা ওসমান গণি চৌধুরীর পুত্র ছাত্রলীগ নেতা নিয়ামুল কবীর চৌধুরী জোর প্রতিবাদ করে। স্থানীয় লোকজন নিয়ে চাঁদাবাজীর বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলে।

এতে চাঁদাবাজী বন্ধ হয়ে যায়। এখন গ্রামে চাঁদাবিহীন অবস্থায় নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ চলছে। এ ঘটনায় চাঁদাবাজ দুর্বৃত্ত মেম্বার মোফাজ্জল হোসেন গং চরমভাবে ক্ষিপ্ত হয় এবংপ্রতিশোধের নেশায় বেসামাল হয়ে পড়ে। পরবর্তীতে গত ২৮/১১/২০১৯ ইং তারিখ সকাল অনুমান ৯টায় রাধাকানাই বাজার থেকে বাড়ী ফেরার পথে বৃদ্ধ শিক্ষক বীর মুক্তিযোদ্ধা ওসমান গণি চৌধুরীর উপর মোফাজ্জল তার ৭/৮ জনের সশস্ত্র বাহিনী নিয়ে হায়েনার ন্যায় ঝাঁপিয়ে পড়ে। বীর মুক্তিযোদ্ধাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ শুরু করে এবং লাঠি ও জুতা পেটা করে চরমভাবে নাজেহাল করে। মুক্তিযোদ্ধার সাথে থাকা জালাল মিয়া এ সবকিছু অসহায়ের মত দাঁড়িয়ে থেকে প্রত্যক্ষ করেন। এ ঘটনায় ফুলবাড়ীয়া থানায় মুক্তিযোদ্ধা ওসমান গণি চৌধুরীর বড় ছেলে গোলাম রব্বানী বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং-৪, তারিখ- ০৪/১২/২০১৯ ইং, ধারা-১৪৩/৩৪১/৩২৩/৩০৭/৫০৬/১১৪ দঃবিঃ। মামলার এজাহারভূক্ত আসামীরা হচ্ছে মোফাজ্জল হোসেন, মাজহারুল ইসলাম বায়তুল্লাহ, শাহাদাৎ, আহাম্মদ আলী, আতিক মিয়া আরও অজ্ঞাতনামা ৫/৭ জন। পুলিশ মূল আসামী সন্ত্রাসী চাঁদাবাজ মেম্বার মোফজ্জল হোসেনকে গ্রেফতার করেছে কিন্তু তার সহযোগি হামলাকারী অন্যান্য সন্ত্রাসীরা এখনও গ্রেফতার হচ্ছে না।

এ নিয়ে এলাকায় ব্যাপক তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। প্রতিবাদের ঝড় বইছে। মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের লোকজন জানায় ফুলবাড়ীয়ার ছাত্রলীগ নেতা রফিকুল ইসলাম রাকিব হামলাকারীদের পক্ষ নিয়ে তাদেরকে ভয়ভীতি দেখাচ্ছে এমনকি হামলাকারীরা আবারও হামলা ও অপদস্ত করতে পারে বলে হুমকি দিচ্ছে। রফিকুল ইসলাম রাকিব হামলাকারীদের সাথে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। যারা মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে সহযোগিতা করছে তাদেরকেও চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করবে বলে হুমকি দিচ্ছে।

ব্রেকিং নিউজঃ