| |

‘মোটরযান আইন’ অনুযায়ী কোন অপরাধের শাস্তি কি?

আপডেটঃ 2:15 pm | December 18, 2019

Ad

ট্রাফিক ব্যবস্থার উন্নয়ন, ট্রাফিক আইনের কঠোর প্রয়োগ, জনসচেতনতা এবং ট্রাফিক শৃঙ্খলা আনয়নের লক্ষ্যে গত ১৫ জানুয়ারি থেকে শুরু হয়েছে ট্রাফিক শৃঙ্খলা কার্যক্রম। চলবে আগামী ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত।

১৯৮৩ সালের ‘মোটরযান আইন’ অনুযায়ী কোন অপরাধে কি শাস্তির বিধান আছে তা সংক্ষেপে পাঠকদের কাছে তুলে ধরা হলো।

১) নিষিদ্ধ হর্ন/হাইড্রোলিক হর্ন ব্যবহার: জরিমানা ১০০ টাকা (ধারা-১৩৯)।

২) আদেশ অমান্য বাধা সৃষ্টি ও তথ্য প্রদানে অস্বীকৃতি: জরিমানা ৪০০ টাকা {ধারা-১৪০(১)}।

৩) ওয়ানওয়ে সড়কে বিপরীত দিকে গাড়ি চালানো: জরিমানা ২০০ টাকা {ধারা- ১৪০(২)}।

৪) অতিরিক্ত গতি বা নির্ধারিত গতির চেয়ে দ্রুত গতিতে গাড়ি চালানো: জরিমানা ৩০০ টাকা। অপরাধের পুনরাবৃত্তি করলে: জরিমানা ৫০০ টাকা (ধারা- ১৪২)।

৫) দূর্ঘটনা সংক্রান্ত যে সকল অপরাধ থানায় ব্যবস্থা নেওয়া হয় নাই: জরিমানা ৫০০ টাকা। অপরাধের পুনরাবৃত্তি করলে: জরিমানা ১০০০ টাকা (ধারা-১৪৬)।

৬) নিরাপত্তা বিহীন অবস্থায় গাড়ি চালানো: জরিমানা ২৫০ থেকে ১০০০ টাকা (ধারা- ১৪৯)।

৭) কালো বা অতিরিক্ত ধোঁয়া বের হওয়া মোটরযান ব্যবহার: জরিমানা ২০০ টাকা (ধারা- ১৫০)।

৮) মোটরযান আইনের সাথে সঙ্গতিবিহীন অবস্থায় গাড়ি বিক্রয় বা ব্যবহার, গাড়ির পরিবর্তন সাধন: জরিমানা ২০০০ টাকা (ধারা- ১৫১)।

৯) রেজিষ্ট্রেশন সার্টিফিকেট বা ফিটনেস সার্টিফিকেট অথবা রুট পারমিট ব্যতীত মোটরযান ব্যবহার: জরিমানা ১৫০০ টাকা। অপরাধের পুনরাবৃত্তি করলে: জরিমানা ২৫০০ (ধারা- ১৫২)।

১০) অনুমোদন বিহীন এজেন্ট বা ক্যানভাসার নিয়োগ: জরিমানা ৫০০ টাকা। অপরাধের পুনরাবৃত্তি করলে: জরিমানা ১০০০ টাকা (ধারা-১৫৩)।

১১) অতিরিক্ত মাল বা অনুমোদিত ওজন অতিক্রম পূর্বক গাড়ি চালনা: জরিমানা ১০০০ টাকা, অপরাধের পুনরাবৃত্তি করলে: জরিমানা ২০০০ টাকা (ধারা- ১৫৪)।

১২) বীমা ব্যতীত গাড়ি চালানো: জরিমানা ৭৫০ টাকা (ধারা- ১৫৫)।

১৩) অনুমতি ব্যতীত গাড়ি চালানো: জরিমানা ৭৫০ টাকা (ধারা-১৫৬)।

১৪) প্রকাশ্য সড়কে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি: জরিমানা ৫০০ টাকা (ধারা- ১৫৭)।

১৫) গাড়ীর ব্রেক কিংবা কোন যন্ত্র অথবা গাড়ির বডি কিংবা স্পিড গর্ভনর সিল বা ট্যাক্সি মিটারের উপর অন্যায় হস্তক্ষেপ করা: জরিমানা ৫০০ টাকা (ধারা- ১৫৮)।

ব্রেকিং নিউজঃ