| |

রাজনীতির ঐক্যের প্রতিক কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারন সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবুকে সংবর্ধনা জানানো হবে আজ

আপডেটঃ 11:35 pm | January 07, 2020

Ad

প্রদীপ ভৌমিকঃ আজ সংবর্ধনা দেওয়া হবে ময়মনসিংহের তরুন রাজনীতিবিদ সেচ্ছাসেবকলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারন সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবুকে। সারাদেশব্যাপী যখন দূর্নীতি, সন্ত্রাস, জুয়া ও মাদকের বিরুদ্ধে জননেত্রী শেখ হাসিনা নিজ দল আঃলীগ ও তার অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনগুলিতে শুদ্ধি অভিযান পরিচালনা করে একটি দূর্নীতিমুক্ত সংগঠন গড়ার লক্ষ্যে উদ্যোগ গ্রহন করেন সেই সময় বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি গঠিত হয়।

জননেত্রী শেখ হাসিনা সম্মেলনের মাধ্যমে বাংলাদেশ স্বেচ্ছাসেবকলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত করেন আফজালুর রহমান বাবুকে। দূর্নীতির অভিযোগে অভিযুক্ত স্বেচ্ছাসেবকলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সভাপতি ও সাধারন সম্পাদককে বাদ দিয়ে আফজালুর রহমান বাবুর উপর সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব অর্পন প্রমাণ হয় যে কতটুকু নিষ্ঠাবান ও সৎ হলে জননেত্রী শেখ হাসিনার আস্থা ও বিশ্বাস আফজালুর রহমান বাবুর উপর রয়েছে।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহ সভাপতি, সাবেক যুগ্ম সাধারন সম্পাদক, সাবেক প্রচার সম্পাদক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের প্রাক্তন সদস্য, ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের প্রাক্তন সহ সভাপতি, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ গর্ভমেন্ট ল্যাবরেটরি স্কুল কমিটির প্রাক্তন সভাপতি ছিলেন আফজালুর রহমান বাবু। বাংলাদেশ আঃলীগের প্রচার উপ কমিটির সহ সম্পাদক ছিলেন তিনি।

এছাড়াও তিনি সম্মেলিত সাংস্কৃতিকজোটের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্যসহ অনেক সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের সাথে যুক্ত ছিলেন। আফজালুর রহমান বাবু ময়মনসিংহের গর্বিত সন্তান। ময়মনসিংহ জেলা ও মহানগর আঃলীগের যৌথ উদ্যোগে আজ দুপুর ২.৩০ মিনিটে সংবর্ধনা জানানো হবে তাকে স্থানীয় টাউনহল ময়দানে। ফুলে ফুলে বরণ করে নেওয়া হবে ময়মনসিংহের গর্বিত সন্তানকে।

আফজালুর রহমান বাবুর এই সংবর্ধনাকে কেন্দ্র করে ময়মনসিংহ জেলা আঃলীগ ও তার সহযোগী সংগঠন ময়মনসিংহ জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের কতিপয় নেতার মাঝে যে বিভক্তি ছিল তা বিলিন হয়ে গিয়ে ঐক্যে রূপান্তরিত হয়েছে। ময়মনসিংহ জেলা আঃলীগ ও স্বেচ্ছাসেবকলীগের মধ্যে যে বিভাজনটি ছিল তার অস্থিত্য আজ খোজে পাওয়া যায় না।

সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধভাবে ময়মনসিংহের সন্তান কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারন সম্পাদককে অভিনন্দন, শুভেচ্ছা ও সংবর্ধনা জানানোর জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। ময়মনসিংহের নেতাকর্মী ও সাধারন মানুষ আফজালুর রহমান বাবুকে বরণ করে নেওয়ার জন্য উন্মুখ হয়ে আছে। সর্বত্র সাজ সাজ রব।

বর্ণিল সাজে সজ্জিত করা হয়েছে ময়মনসিংহ শহরকে। রাজনৈতিক সচেতন অনেককেই মন্তব্য করতে শুনা গেছে ময়মনসিংহের রাজনীতির আকাশে উদয় হয়েছে এমন একটি নতুন সূর্য্য যার আলোকছটায় দূরীভূত হয়েছে অনৈক্যের কালো ছায়া।

অনেকেই তাকে আবার রাজনীতির বর পুত্র বলে আখ্যায়িত করছেন কারণ ময়মনসিংহ জেলায় আওয়ামী রাজনীতিতে ভাষা সৈনিক সৈয়দ নজরুল ইসলাম, মুক্তিযোদ্ধের সংগঠক রফিক উদ্দিন ভূইয়া, বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ আহমেদ, বাংলাদেশ আঃলীগের কেন্দ্র্রীয় কমিটির সাবেক সাধারন সম্পাদক সৈয়দ আশরাফ, বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ মতিউর রহমানের রাজনৈতিক পিঠস্থান ময়মনসিংহ থেকে উল্লেখিত বরণ্য ব্যক্তিদের পরে বাংলাদেশ আঃলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির কোন স্তরে বর্তমানে কেউ স্থান পায়নি।

এমনি সময় স্বেচ্ছাসেবকলীগকে দূর্নীতিমুক্ত, স্বচ্ছ ও আদর্শিক সংগঠন হিসেবে গড়ে তুলার লক্ষ্যে জননেত্রী শেখ হাসিনা আফজালুর রহমান বাবুর উপর কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারন সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব প্রদান করেছেন যা আমাদের ময়মনসিংহবাসীর গর্বের বিষয়। ময়মনসিংহের সন্তান এমন একজন গর্বিত রাজনৈতিক নেতাকে সংবর্ধনা জানানোর জন্য আজ প্রস্তুত। প্রস্তুত ময়মনসিংহ মুজীব আদর্শের সৈনিকেরা। শুভেচ্ছা রইল আফজালুর রহমান বাবুর প্রতি।

ব্রেকিং নিউজঃ