| |

মাদক,সন্ত্রাস ও জঙ্গি নির্মূলে সবাই একযোগে কাজ করুন-ডিআইজি ব্যারিস্টার মোঃ হারুন-অর-রশিদ

আপডেটঃ 1:05 pm | January 21, 2020

Ad

মাদকের সাথে পুলিশের কোনো সদস্য জড়িত থাকলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন ময়মনসিংহ রেঞ্জ পুলিশের ডিআইজি ব্যারিস্টার মোঃ হারুন-অর-রশিদ, বিপিএম-সেবা । অনলাইন দৈনিক সংবাদ গ্যালারির প্রতিনিধির সাথে একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেন।

গত বছরের ২৬ ডিসেম্বর ময়মনসিংহ রেঞ্জে যোগদানকারী ডিআইজি ব্যারিস্টার মোঃ হারুন-অর-রশিদ বলেন , মাদক বন্ধ করতে যা যা করা দরকার তাই করা হবে। মাদক কারবারিদের পিছনের মদদদাতাদের খুঁজে বের করা হবে। ময়মনসিংহ রেঞ্জের পুলিশ বাহিনীকে একটি আধুনিক ডিজিটাল বাহিনী গড়ার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি । ময়মনসিংহ বিভাগের পুলিশ বাহিনীকে গণমানুষের কাছে গ্রহণযোগ্য ও আস্থাশীল হিসেবে গড়ে তুলতে চাই। পুলিশকে যেন মানুষ আস্থায় নিতে পারে, সে লক্ষ্যে আমি কাজ করে যাচ্ছি।

ডিআইজি বলেন, ময়মনসিংহ বিভাগে কোনো মাদকের আখড়া থাকলে পুলিশকে জানান, ব্যবস্থা নেয়া হবে। যুবসমাজ মাদকাসক্ত হয়ে পড়ায় উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। ময়মনসিংহ নতুন বিভাগ । শিক্ষা প্রতিষ্টায় উন্ন্নয়ন স্থান।এখানকার মানুষ শান্তিপ্রিয়। ময়মনসিংহ অনেক এগিয়েছে। যদি কেউ শান্তিশৃঙ্খলা বিঘ্ন ঘটিয়ে ময়মনসিংহে অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে চায়, পুলিশ তা কঠোর হস্তে দমন করবে।

ডিআইজি ব্যারিস্টার মোঃ হারুন-অর-রশিদ বলেন, আমি দায়িত্ব নেয়ার পর কিছু পরিবর্তন আনার চেষ্টা করছি। এটা একটি চলমান প্রক্রিয়া।

পুলিশের কোনো সদস্যের বিরুদ্ধে অভিযোগ এলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে । রেঞ্জের প্রতিটি থানায় যেন মানুষ নিরভয়ে অপরাধীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করতে পারেন । পাশাপাশি কোন পুলিশ অন্যায় , ক্ষমতার অপব্যবহার , অপেশাদারিত্ব ও অসদাচরণ করলে তাদের বিরুদ্ধেও অভিযোগ করতে করতে পারবে মানুষ ।

মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও চাদাঁবাজের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করে ডিআইজি ব্যারিস্টার মোঃ হারুন-অর-রশিদ বলেন, মাদক নির্মূল করে আমাদের নতুন প্রজন্মকে রক্ষা করা হবে।’ এজন্য তিনি ময়মনসিংহ রেঞ্জ পুলিশের সব সদস্যকে একযোগে কাজ করার আহবান জানান। একই সঙ্গে তিনি জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিকসহ সকল শ্রেণি পেশার মানুষকে প্রতিটি পাড়া-মহল্লাকে মাদকমুক্ত করতে পুলিশকে সহায়তা করার অনুরোধ করেছেন।

ব্রেকিং নিউজঃ