| |

৭০ ইউপিতে নেই বিএনপি, ৭৩৮-এ আ.লীগের ৭৪১ প্রার্থী!

আপডেটঃ 9:03 pm | February 23, 2016

Ad

আলোকিত ময়মনসিংহ  : প্রথম ধাপে ৭৩৮টি ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের চেয়ারম্যান পদে ৩ হাজার ৫৬৮টি মনোনয়ন জমা পড়েছে। এর মধ্যে আওয়ামী লীগের ৭৪১ জন ও বিএনপির ৬৬৮ প্রার্থী মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। ৭০ ইউপিতে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী মনোনয়ন জমা পড়েনি। উল্টো ৭৩৮টি ইউনিয়ন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী দিয়েছে ৭৪১ জন!

সোমবার নির্বাচন কমিশনের গণসংযোগ শাখার পরিচালক এসএম আসাদুজ্জামান আরজুর পাঠানো পরিসংখ্যান বিশ্লেষণ করে এ তথ্য পাওয়া যায়।

এ তথ্য বিশ্লেষণ করে আরো দেখা যায়, প্রথম ধাপের ৭৩৮টি ইউপির ৭০ ইউপিতে কোনো প্রার্থীই দিতে পারেনি বিএনপি। আর কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার কালারমারছ ইউনিয়ন, খুলনার দিগুরিয়া ইউনিয়ন ও পটুয়াখালীর ধুলাপাড়া ইউপিতে আওয়ামী লীগের দু’জন করে প্রার্থী মনোনয়ন জমা দিয়েছেন।

প্রথমবারের মতো দলীয় প্রতীকে হওয়া ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের চেয়ারম্যান পদে প্রতি দল থেকে বিধি অনুযায়ী একজন প্রার্থী দেয়ার নিয়ম রয়েছে। কোনো ইউপিতে একদল থেকে একাধিক প্রার্থী দেয়া হলে সেই দলের সবারই প্রার্থিতা বাতিল হয়ে যাবে।

তবে এ বিষয়ে ইসি কর্মকর্তারা জানান, আওয়ামী লীগের একাধিক প্রার্থীর মনোনয়ন প্রদানের বিষয়ে কমিশন কিছু বলতে পারে না। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে, এরপরই আইন অনুসারে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এসএম আসাদুজ্জামান আরজু জানান, আওয়ামী লীগ ও বিএনপির ১ হাজার ৪০৮ প্রার্থী ছাড়াও জাতীয় পার্টির ১৪৮ প্রার্থীসহ অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুলোর ১ হাজার ৯শ জন মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। বাকি ১ হাজার ৬৬৮ জন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে তাদের মনোনয়ন দাখিল করেছেন।

এদিকে ৭৩৮ ইউপির মধ্যে বিএনপি ২০টিতে তাদের জোটের দলগুলোকে দেয়ার কথা। আর বাকিগুলোতে দলটি তাদের সমর্থিত প্রার্থীকে মনোনয়ন দেবে। সে হিসাবে দেখা যায়, বিএনপি অর্ধশতাধিক ইউপিতেই মনোনয়ন জমা দিতে পারেনি।

অবশ্য বিএনপি প্রার্থীদের মনোনয়ন দাখিলে বাধা ও হয়রানির অভিযোগ করে আসছে দলটির শীর্ষ নেতারা। তাদের দাবি, বিভিন্ন স্থানে দলীয় প্রার্থীকে মনোনয়নে জমা দানে ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থী ও তার সমর্থিত কর্মীরা বাধা দিয়েছে। এ কারণে ওইসব ইউপিতে বিএনপির প্রার্থীরা মনোনয়ন জমা দিতে পারেনি।

তবে এ বিষয়ে ইসি সচিব মো. সিরাজুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘মনোনয়ন দাখিলে কোথায়ও বাধা প্রদান করা হয়েছে, আমাদের কাছে এ ধরনের কোনো সুনির্দিষ্ট অভিযোগ আসেনি। তাই কোনো পদক্ষেপ নেয়া হয়নি। সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

উল্লেখ্য, এবার সারাদেশে ছয় ধাপে ইউপি ভোট হচ্ছে। প্রথম ধাপে ভোট গ্রহণ ২২ মার্চ, দ্বিতীয় ধাপের ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী ৬৮৪ ইউপিতে ২ মার্চ পর্যন্ত মনোনয়ন জমার শেষদিন, ভোট ৩১ মার্চ। এরপর যথাক্রমে চারধাপে ২৩ এপ্রিল ৭১১টি, ৭ মে ৭২৮টি, ২৮ মে ৭১৪টি এবং ৪ জুন ৬৬০টি ইউপিতে নির্বাচন হবে।

ব্রেকিং নিউজঃ