| |

তৌহিদুল হত্যাকান্ডে খুনী অাতিক গ্রেফতারে এসপির সংবাদ সন্মেলন

আপডেটঃ 5:33 pm | May 04, 2020

Ad

স্টাফ রিপোর্টারঃ জাতীয় কবি কাজী

নজরুল ইসলাম

ইসলাম বিশ্ব বিদ্যালয়ের ছাত্র তৌহিদুল ইসলাম হত্যা ঘটনায় জড়িত কথিত খুনী অাশিকুজাজামান ওরফে অাশিককে গ্রেফতার ও অাদালতে অাশিকের ১৬৪ ধারায় জবানবন্ধী প্রেক্ষিতে অাজ বিকালে পুলিশের মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ এক সংবাদ সন্মেলনে করেন এসপি অাহমারউজ্জামান।

সংবাদ সন্মলনে এসপি অাহরামউজ্জামান বলেন, ঘটনার দুদিন অাগে সিগারেট খাওয়াকে কেন্দ্র করে তৌহিদুলের সাথে অাশিকের কথাকাটি হয়। অাশিক দীর্ঘদিন যাবৎ তৌহিদুলের দামী মোবাইলটি ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করছিল। এব্যাপারে মারা যাবার অাগে তার এক বন্ধুকে মোবাইলে মেসেজ দিয়ে বিস্তারিত জানায় বলে সংবাদ সন্মলেন জানান পুলিশ সুপার অাহমারউজ্জামান।
তিনি অারো বলেন ঘটনার রাতে তৌহিদু্লের মোবাইলটি
চুরি করার জন্য সে পাশ্ববর্তী টিনের বাড়ীর উপর দিয়ে দোতলায় উঠে তৌহিদুলের ঘরে ঢুকে।মোবাইলটি চুরি করার বিষয়টি টের পেয়ে তৌহিদুল অাশিককে ঝাপটে ধরে। এ সময় তৌহিদুলের ঘরে থাকা একটি লোহার রড তার বুকে ও অন্যান্য স্থানে অাঘাত করে।তার চিৎকারে মেসের মালিক বের হয়ে এলে অাশিক দোতলা দিয়ে পালিয়ে যায়। অাহত তৌহিদুলকে দ্রুত হাসপাতালে নেয়া হলে সে একটি জবানবন্দী দিয়ে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে। গত ১ লা মে সেহরির সময় এ ঘটনা ঘটে।
এ ঘটনায় নগরে অাতংক দেখা দিলে ডিবি পুলিশ ও কোতোয়ালি থানা পুলিশ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অাল অামিনের নেতৃত্বে যৌথভাবে তদন্তে নামে। পরে গতকাল রবিবার তাকে অাকুয়া বোর্ড ঘর থেকে রাত ৩ টায় তাকে ওসি ডিবির নেতৃত্বে পরিদর্শক দুলাল অাকন্দ ফারুক অাহমদ,এসঅাই মলয় চক্রবর্ত্তী ,মনিরুজ্জামান, অানোয়ার হোসেন, দেবাশীষ সাহা সঙ্গীয় ফোর্স সহ তাকে অাটকে সমর্থ হয়।অাজ সোমবার তাকে অাদালতে৷ তোলা হলে সে ১৬৪ধারায় জবানবন্দী দিয়ে হত্যাকান্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে।সংবাদ সন্মেলনে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অাল অামিন,হুমায়ুন কবীর,মোঃ শাহজাহান,ওসি কোতোয়ালি মাহমুদুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 

ব্রেকিং নিউজঃ