| |

ময়মনসিংহে ৮৬ ডাক্তার নার্স ও কর্মকর্তা কর্মচারী করোনায় আক্রান্ত ঃ ৪০ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন

আপডেটঃ 7:48 pm | May 10, 2020

Ad

বিশেষ প্রতিনিধি: বৈশি^ক এ দূর্যোগে প্রথম সারির মানবিক যুদ্ধা হিসেবে কাজ করছেন ডাক্তার নার্স ও স্বাস্থ্য কর্মীগণ। করোনায় আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা সেবা দিতে গিয়ে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কর্মরত ৮৬ জন ডাক্তার, নার্স ও কর্মকর্তা-কর্মচারী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে ৩২ জন ডাক্তার, ৩২ জন নার্স ও ২২ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী রয়েছে। ইতোমধ্যে আক্রান্তদের মধ্যে ৪০ জন সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। আক্রান্ত অন্যান্যরা অনেকটা উন্নতির দিকে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে। মচিমহা’র সহকারী পরিচালক ডাক্তার জাকির হোসেনের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন টেলিফোনে ২ হাজারেরও অধিক লোককে স্বাস্থ্যসেবা পরামর্শ ও চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। আক্রান্ত ডাক্তার, নার্স ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের শারীরিক অবস্থা অনেকটা উন্নতির দিকে। মচিমহার প্রশাসনিক কর্মকর্তা ফরিদ রতন জানান করোনায় আক্রান্ত ডাক্তার, নার্স, কর্মচারীদের শারীরিক অবস্থা অনেক ভাল আছে। কোন খারাপ সংবাদ নেই। সেবা তত্ত্বাবধায়ক সেলিনা আক্তার জানান আক্রান্ত নার্সদের এস.কে. হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে না রেখে মচিমহায় অবস্থিত বিভাগীয় নার্সিং ট্রেনিং সেন্টারে (বিসিএসই) রেখে চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে। তাদের খাওয়া দাওয়ার ব্যবস্থাও করা হচ্ছে। ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৭ শতাধিক নার্স কর্মরত রয়েছে। করোনা রোগীদের জন্য সেবা প্রদান কাজে ৯ জন করে নার্স নিয়ে আইসোলেশন ইউনিটে কাজ করেন। ডিউটিরত অবস্থায় নার্সদের সুরক্ষার জন্য হোটেল আমির ইন্টারন্যাশনালে থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ডিউটি শেষে বাইপাস মোড়ে শাপলা রিসোর্স সেন্টারের কোয়ারেন্টাইনে রাখা হচ্ছে। সেখানেও খাওয়ার দাওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। মচিমহায় কর্মরত অর্ধ শতাধিক নার্সের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তারা সেবা তত্ত্বাবধায়ক সেলিনা আক্তারের ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন যেকোন সময়ের চেয়ে বর্তমান সেবা তত্ত্বাবধায়কের অধীনে কাজ করে আমরা অত্যন্ত ভাল আছি। স্বাধীনতা বিরোধী জামাত-শিবির চক্র নার্সদের মাঝে বিভক্তি সৃষ্টির পাঁয়তারা চালাচ্ছে। চিকিৎসাসেবাকে বাঁধাগ্রস্ত করার জন্য ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। আমরা এদের অপতৎপরতা ও মিথ্যাচারিতার নিন্দা জানাচ্ছি। খবর নিয়ে জানা গেছে সেবা তত্ত্বাবধায়ক সেলিনা আক্তার মচিমহা’তে সিনিয়র স্টাফ নার্স হিসেবে ইতোপূর্বে কর্মরত ছিলেন। তার কর্ম দক্ষতা সর্বত্র প্রশংসিত হয়ে আসছে। সেবা তত্ত্বাবধায়কের দায়িত্ব পাওয়ার পর তিনি সততা, নিষ্ঠা ও দক্ষতার সাথে কাজ করছেন। তার কর্ম দক্ষতাকে বিতর্কিত করার জন্য স্বাধীনতা বিরোধী জামাত শিবির চক্র তার পিছু লেগেছে। করোনায় আক্রান্ত নার্সদেরকে পুঁজি করে অপপ্রচারে মেতে উঠেছে ষড়যন্ত্রকারীরা। নার্সদের বিভক্তি করে চিকিৎসা কার্যক্রমকে ব্যহৃত করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। অভিজ্ঞ মহল দুর্বৃত্তদের থেকে সাবধান থাকার পরামর্শ দিয়ে গুজবে ও মিথ্যাচারীদের অপপ্রচারে কান না দেয়ার জন্য আহবান জানিয়েছেন।

ব্রেকিং নিউজঃ