| |

সবুজের মিশ্রণে পাখির কিচিরমিচির ত্রিশালের কোনাবাড়ি নদীরপাড়

আপডেটঃ 5:12 pm | May 30, 2020

Ad

শামিম ইশতিয়াকঃ পড়ন্ত বিকেলে নিস্তব্ধতায় এক বুক প্রশান্ত বাতাস নিতে কার না ভালো লাগে? কেই বা না চায় চোখ ধাধানো সবুজের মাঝে দাড়িয়ে পাখির কলকাকলীতে মুখর হতে, কিংবা পাশেই ছোট নদের পাড়ে বেকে যাওয়া রাস্তায় হাটতে কেই বা অপছন্দ করে?
ত্রিশাল উপজেলার কোনাবাড়ি গ্রামের নদীর পাড়ে ঠিক এমনি এক দৃশ্য চোখে পরবে আপনার, দুপাশে গাছপালার ক্ষুদ জঙ্গল যার বুক চিড়ে চলে গেছে পিচঢালা রাস্তা, রাস্তার সঙ্গি হয়েই পাশেই চলে গেছে সুতিয়া নদ, আহামরি কোন সৌন্দর্য না থাকলেও এখানকার বিশেষত্ব হলো নিস্তব্ধ নিরবতা আর সবুজের বুকে পাখিদের কলরব।
ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের নওধার লেকেরপাড় এলাকার সুতিয়া ব্রিজের থেকে ছুটে যাওয়া রাস্তা হয়েই এখানে যেতে হয়, রাস্তাটি দিয়ে সামনে হাটলে আপনি দেখতে পাবেন জনবসতি, কিন্তু আপনি যখন সামনে এগিয়ে যাবেন তখন কমতে থাকবে বসতি, শুরু হবে রাস্তার পাশে গাছাপালা আর মেহগনি, সেগুন বাগান, পিচঢালা রাস্তায় সামনে এগিয়ে গেলে পাবেন আরো বাগান, পাশেই নদের পারে ফুরফুরে বাতাস, দাড়িয়ে থেকে উপভোগ করতে পারবেন সবুজের মাঝে অন্য সব রঙের মিশ্রণ, শুনতে পাবেন পাখির কিচিরমিচির, দুপুরের খাখা রৌদেও আপনি এখানে পাবেন শীতলতা, আহামরি কোন দৃশ্য না দেখলেও আপনি পাবেন মানসিক শান্তি, তবে হ্যা আপনাকে অবশ্যই প্রকৃতি প্রেমী হতে হবে, না হলে এখানে আপনার আসাটা বৃথা, নয়ত এখানে এসে গালিগালাজ করবেন প্রকৃতি প্রেমি এই এই প্রতিবেদককে।
এই রাস্তায় এসে আপনি এখানে মিলার বাড়ি বলে পরিচিত একটি স্থান বললে আপনাকে যে কেউ দেখিয়ে দিবে, সেখানে আপনি যেতে পারেবন, মেহগনি বাগানে চাইলে হাটতে পারেন যদি আপনি মর্মর পাতার ধ্বনি শুনতে ভালোবাসেন, কিংবা চোখ বন্ধ রেখে ভাবুক হয়ে আপনি শুনতে পারেন অচেনা অজানা অনেক পাখির কলকাকলী।
আপনি প্রকৃতি প্রেমী না হলে এখানে আসলে হতাশ হবেন, আহামরি কিছু পাবেন না হয়ত, তবে যদি চলেই আসেন তাহলে আপনার সাময়িক মানসিক প্রশান্তি নিশ্চিত ।
তবে সাবধান এখন কোনভাবেই এখানে আসা চলবেনা, এখন যতটা সম্ভব ঘরে থাকুন, ত্রিশাল উপজেলায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা এমন বিভিন্ন স্থান নিয়ে আমার ধারাবাহিক লেখার জন্যেই মূলত আপনাদের জেনে রাখার জন্যেই আমার এই লেখা, মূলত যারা ত্রিশালকে ভালোবাসে এবং ত্রিশালের বিভিন্ন সৌন্দর্য জানতে চায় তাদের জন্য জেনে রাখার স্বার্থেই এই লেখা।

ব্রেকিং নিউজঃ